রবিবার, আগস্ট ২৫, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

গ্রাহকদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে কলারোয়ায় জীবন বীমা অফিসে দুদকের ঝটিকা অভিযান

গ্রাহকদের পলিসির টাকা আত্মসাতের অভিযোগের ভিত্তিতে কলারোয়ায় জীবন বীমা কর্পোরেশনের অফিসে (শাখা-৯৩৮) ঝটিকা অভিযান চালালো দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কর্মকর্তারা।

সোমবার (৫আগস্ট) বিকাল ৪টার দিকে পৌরসদরের হাসপাতাল রোডে কৃষি ব্যাংক সংলগ্ন এ অফিসে আসেন খুলনা বিভাগীয় দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক ফয়সাল কাদের, সহকারী পরিদর্শক মনিরুজ্জামান ও শ্যামল চন্দ্র সেন।
সেসময় তারা জীবন বীমা অফিসে অভিযোগের সংশ্লিষ্ট সূত্রের কাগজপত্রে গড়মিল দেখেন।

পরে সরেজমিনে ভূক্তভোগিদের সাথে কথা বলতে উপজেলা শংকরপুর গ্রামে যান।

দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক ফয়সাল কাদের জানান- ‘জীবন বীমা কর্পোরেশনের কলারোয়া অফিসের বীমা পলিসি করা উপজেলার শংকরপুর গ্রামের ১৩জন ব্যক্তি প্রায় ৬লাখ টাকা আত্মসাতের বিষয়ে দুদকে অভিযোগ করেন। ওই অভিযোগের সূত্র ধরে তারা (দুদক কর্মকর্তারা) সোমবার বিকেলে কলারোয়ার জীবন বীমা অফিসে আসেন। তখন অফিসের ম্যানেজার ও অভিযোগের আবেদনে অভিযুক্ত টাকা তছরুপকারী অফিসার আরিজুল ইসলামকে পান নি। সেখানে উপস্থিত উন্নয়ন অফিসার হাফিজুর রহমান সংশ্লিষ্ট কোন কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হন। তখন মুঠোফোনে আরিজুল ইসলামকে অফিসে ডেকে আনা হয়। আরিজুল অফিসে এসে তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করায় তাকে নিয়ে তাৎক্ষনিক উপজেলাধীন শংকরপুর গ্রামে যান দুদক কর্মকর্তারা। সেখানে পৌছে পলিসি আত্মসাতের অভিযোগ দেয়া আবেদনকারীরা জানান- তাদের পলিসির টাকা জমা দেয়া হলেও যথাযথ রিসিট তারা পাননি। অনেকের কিস্তি পরিশোধ হওয়ার পরেও তাদের লভ্যাংশসহ আসল টাকা পূর্ণাঙ্গ ফেরত পাননি। আবার অনেকে ৫কিস্তির টাকা জমা দিলেও রিসিট পেয়েছেন ২টা। দুদক কর্মকর্তাদের কাছে অভিযুক্ত আরিজুলের সামনেই তার বিরুদ্ধে এরূপ অন্যান্যভাবে প্রায় ৬লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তোলেন। তবে সেখানে উপস্থিত আবেদনকারীর মধ্যে ২/১জন জানান যে, তাদের পলিসিকৃত টাকা পরবর্তীতে ফেরত পেয়েছেন।’

দুদকের সহকারী পরিদর্শক মনিরুজ্জামান জানান- ‘সরেজমিনে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত জীবন বীমা অফিসার আরিজুল ইসলামের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সেসময় কলারোয়া জীবন বীমা অফিসের শাখা ব্যবস্থাপক হাফিজুর রহমানসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, শংকরপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে ইয়াসিন আরাফাত, ‍মৃত মোহর আলী বিশ্বাসের ছেলে লিয়াকত আলী, তিরাসতুল্ল মোড়লের ছেলে মোস্তফা, নুরুল ইসলামের স্ত্রী বিলকিস, দিনাজ মোড়লের ছেলে রবিউল, মৃত আকরাম আলী সানার ছেলে কামরুজ্জামান, রবিউল ইসলামের স্ত্রী আকলিমাসহ ভূক্তভোগিরা জীবন বীমা অফিসার আরিজুলের বিরুদ্ধে ‘পলিসির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’ দায়ের করেন দুদকে। অভিযুক্ত আরিজুল ইসলমের বাড়িও শংকরপুর গ্রামে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়ার হাজী নাছিরউদ্দিন কলেজে অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার ছলিমপুরের হাজী নাছির উদ্দিন ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু ।। আহত ১

কলারোয়ায় বজ্রপাতে এক ব্যক্তির করুণ মৃত্যু হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী’রবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ার জয়নগরে কৃষি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা

কলারোয়ার জয়নগরে কৃষকদের দিনব্যাপী কৃষি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।বিস্তারিত পড়ুন

  • স্বাধীনতা টেলিভিশনে মডেল তারকার চূড়ান্ত বাছাই পর্বে কলারোয়ার মেহেদি জনি
  • কলারোয়ায় দুই ব্যক্তি গ্রেপ্তার ॥ ফেনসিডিল উদ্ধার
  • কলারোয়ার কেঁড়াগাছিতে প্রীতি ফুটবল ম্যাচে স্বাগতিকদের জয়
  • সাতক্ষীরা সীমান্তে ভারতীয় পণ্যসহ দুই ব্যক্তি আটক
  • কলারোয়ার কাজীরহাটে প্রীতি ফুটবল ম্যাচে স্বাগতিকদের জয়
  • চীন সফরে যাচ্ছেন দৈনিক আমাদের সময়’র কুটনৈতিক প্রতিবেদক কলারোয়ার মামুন
  • অভিনব পদ্ধতিতে কলারোয়ায় ‘একদরে’ গরু বিক্রয়!
  • কলারোয়ায় বাল্যবিবাহের অভিযোগে বরকে কারাদন্ড ॥ বরের পিতা ও আইনজীবীকে জরিমানা
  • কলারোয়ায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে জন্মষ্ঠমী উৎসব উদযাপন
  • সাতক্ষীরায় গ্রেফতার ২৮
  • সাতক্ষীরা জেলার সব খালের বন্দোবস্ত বাতিল করলেন জেলা প্রশাসক
  • কলারোয়ায় সাপ্তাহিক হরিবাসর অনুষ্ঠিত