মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

প্রস্তুত ১৩৭টি আশ্রয় কেন্দ্র

ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’ : ৭নং বিপদ সংকেত, সাতক্ষীরায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি প্রশাসনের

ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’ মোকাবেলায় সাতক্ষীরা জেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি সর্বোচ্চ সতর্কতা ও প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। বৃহষ্পতিবার (২মে) দুপুরে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪নং থেকে বাড়িয়ে ৭নং বিপদ সংকেত ঘোষনা করা হয়েছে।

ঘুর্ণিঝড় মোকাবেলা ও জানমালের ক্ষয়ক্ষতি শুন্যের কোটায় রাখতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসন দফায় দফায় জরুরী সভা ও কার্যকর ব্যবস্থা বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছেন। খোলা হয়েছে জেলা নিয়ন্ত্রন কক্ষ। জনস্বার্থে জরুরী প্রয়োজনে দু’টি ফোন নং দেয়া হয়েছে- ০৪৭১-৬৩২৮১ ও ০১৭৩৩-০৭৩৬০৪।

জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল ‘ঘূর্ণিঝড় ফণি’ মোকাবিলা করতে জেলার সকল সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের নিজ নিজ কর্মস্থলে অবস্থান করতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করেছেন।

পাশাপাশি সাধারণ জনগণকে সর্বোচ্চ সতর্কতা, সাবধানতা অবলম্বনের আহবান জানানো হয়েছে। শনিবার (৪মে) সকালে ঘুর্ণিঝড় ‘ফণি’র সম্ভাব্য আঘাত হানার পূর্বাভাসকে মাথায় রেখে এর আগেই নিরাপদ স্থানে নিরাপত্তার সাথে অবস্থানের অনুরোধ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের সচেতনতা-ই প্রথম পদক্ষেপ। দূর্যোগ মোকাবেলা করতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলো সজাগ ও প্রস্তুত রয়েছে।

এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে জেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি জরুর সভা সূত্রে জানা গেছে- জেলার ১৩৭টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখতে বলা হয়েছে। এছাড়া প্রত্যেক ইউনিয়নে মেডিকেল টিম ও স্বেচ্ছাসেবক টিম প্রস্তুত, ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ সংস্কার, শুকনা খাবার মজুদ রাখা, ওষুধের পর্যাপ্ততা নিশ্চিতকরণসহ দুর্যোগ মোকাবেলায় সম্ভাব্য সকল প্রস্তুতি নিশ্চিত করার কথা জানানো হয়।

সভায় জানানো হয়- জেলায় দুর্যোগ মোকাবেলায় ৩২শ প্যাকেট শুকনা খাবার, ১১৬ টন চাল, ১ লক্ষ ৯২হাজার টাকা, ১১৭ বান টিন, গৃণ নির্মাণে ৩ লক্ষ ৫১ হাজার টাকা ও ৪০ পিস শাড়ি মজুদ আছে।

সভায় ১৫-২০ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছাসের আশংকা করে বলা হয়, ৮, ৯ ও ১০ নম্বর সর্তক সংকেত আসলে উপকূলীয় মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে নিতে হবে। যতদূর সম্ভব দ্রুততার সাথে মাঠের ফসল ঘরে তুলতে হবে। সংকেত প্রচারে ইমামদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে।

সভায় জেলা প্রশাসন, সকল সরকারি বিভাগ, জনপ্রতিনিধি, বেসরকারি সাহায্য সংস্থা ও জনগণের সমন্বয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’ মোকাবিলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি গ্রহণের বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সেখানে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারাসহ ৭ উপজেলার সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধিসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়ার হিজলদীর আজগার ফেন্সিডিলসহ আটক

সাতক্ষীরায় ৪০০ বোতল ফেন্সিডিলসহ মোঃ আজগার আলিকে আটক করেছে জেলাবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় তথ্য অধিকার আইন বিষয়ক প্রশিক্ষণ

কলারোয়ায় তথ্য অধিকার আইন-২০০৯ বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় হতদরিদ্রদের মাঝে বিনামূল্যে ভ্যান বিতরণ

কলারোয়ায় হতদরিদ্র ৭জন ব্যক্তিকে ৭টি ভ্যানগাড়ি বিনামূল্যে বিতরণ করেছে বেসরকারিবিস্তারিত পড়ুন

  • কলারোয়ায় খাল ও কৃষকের জমি দখল করে মাছের ঘের!! ইউএনও’র কাছে অভিযোগ
  • পাটকেলঘাটা সহ উপজেলায় বেতন না পেয়ে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মীদের মানবেতর জীবন
  • কলারোয়া পৌরসদরের ১৫টি পরিবার বিদ্যুৎ বঞ্চিত!
  • কলারোয়া বাজারে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি!
  • কলারোয়ায় আম ব্যবসায়ীকে ১০হাজার টাকা জরিমানা
  • কলারোয়ায় প্রয়াত নুরুর মাগফিরাতে দোয়া ও ইফতার মাহফিল
  • কলারোয়ায় রড সিমেন্ট ব্যবসায়ী সমিতির ইফতার মাহফিল
  • কলারোয়ায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতার আঙুল কেটে নেয়ার ঘটনায় মামলা ॥ আটক ১
  • কলারোয়ার ছলিমপুরের হাজী নাছির উদ্দীনের ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী পালন
  • কলারোয়া উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা
  • দিনদুপুরে কলারোয়ায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতার হাতের ৪টি আঙুল কেটে দিলো প্রতিপক্ষরা
  • কলারোয়ায় গৃহকর্মীকে ধর্ষণের দায়ে গৃহকর্তা আটক
  • error: Content is protected !!