বুধবার, জুলাই ২৪, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

দখল-দূষণে অস্থিত্ব সংকটে তালার বাওনের কুড়ের খাল॥ ফসল উৎপাদন হ্রাস

গত কয়েক বছরে দখল হয়ে গেছে সাতক্ষীরা তালার খলিলনগরের জনগুরুত্বপূর্ণ বাওনের কুড়ের খালটি। সেখানকার গঙ্গারামপুরের কদমতলা-ঘোষনগরের উপর দিয়ে কপোতাক্ষে প্রবাহিত খালটি বিস্তীর্ণ জনপদের পানি নিষ্কাশনের এক মাত্র মাধ্যম।

উপজেলার সব্জিসহ ফসল উৎপাদনের অন্যতম ক্ষেত্র খলিলনগরের কাপালিপাড়ার ফসলের প্রাণ পানির যোগান পেতে খালটি ব্যবহার হয়ে আসছে সেই স্মরণাতীত কাল থেকে। ক্যাচমেন্ট এরিয়ার গঙ্গারামপুর, ঘোষনগর, খলিলনগর, নলতা, পাইকগাছার কাশিমনগরসহ বিস্তীর্ণ অঞ্চলের পানি নিষ্কাশনের একমাত্র মাধ্যম বাওনের কুড়ের খাল।

তবে খালটির দু’পাশের রেকর্ডীয় জমির মালিকদের অব্যাহত দখল প্রক্রিয়ায় তা পরিণত হয়েছে সরু ড্রেনে।

স্থানীয়দের দাবি, বহিরাগতদের বসতি স্থাপনে অকাল মুত্যু হয়েছে খালটির। এছাড়া আশপাশের জমি ও বাড়ির ময়লা আবর্জনা ফেলে খালটিকে ভরাট করে তা দখলে নিচ্ছে।

অন্যদিকে দখল প্রক্রিয়ায় শেষ পেরেক ঠুকেছে স্থানীয় ক’মৎস্য চাষী। খালটিকে ঘেরের মধ্যে নিয়ে বাঁধ দিয়ে শুরু হয়েছে মাছ চাষ। আসন্ন বর্ষা মৌসুমকে ঘিরে তাই পানি নিষ্কাশনের পুরনো চিত্রকে মনে করে এলাকাবাসীর দিন কাটছে অজানা আশংকায়। তাদের দাবি,খালটির দখলমুক্ত করে পুন:খনন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরেজমিনে প্রতিবেদনকালে কথা হয়, স্থানীয় ইউপি সদস্য প্রকাশ চন্দ্র দালালসহ ভূক্তভোগী অনেকের সাথে।
তারা জানান- তালা ও পাইকগাছা সীমান্তবর্তী খলিলনগর ইউনিয়নের গঙ্গারামপুর, ঘোষনগর, নলতা ও খলিলনগরসহ পাশ্ববর্তী পাইকগাছার কাশিমনগর এলাকার একাংশের পানি নিষ্কাষণের একমাত্র মাধ্যম বাওন কুড়ের খাল।

তাছাড়া সব্জি উৎপাদন থেকে বিভিন্ন ফসল উৎপাদন মৌসুমে পানির যোগান মেটাতে স্থানীয় কাপালি পরিবার থেকে শুরু করে সর্ব স্তরের কৃষকের একমাত্র মাধ্যম ছিল খালটি। কিন্তু দিনকে দিন ফসল উৎপাদন হ্রাস পাচ্ছে।

গুরুত্বের কথা বিবেচনায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান প্রনব ঘোষ বাবলুর তত্ত্বাবধানে কয়েক দফায় সংষ্কার হলেও সর্বশেষ কয়েক বছরে কোন খনন হয়নি খালে। আর এই সুযোগে খালের দু’পাশের রেকর্ডীয় জমির মালিক বিশেষ করে বহিরাগতরা বসতিস্থাপনে ক্রমান্বয়ে খালটি চলে গেছে অবৈধ দখলদারদের হাতে। এছাড়া কয়েক মাছ চাষী খালের বড় একটি অংশের দখল নিয়ে তাদের মাছের ঘেরে সম্পৃক্ত করে যার যার মত বাঁধ দিয়ে শুরু করেছে মাছ চাষ।

এলাকাবাসী জানায়, গঙ্গারামপুরের কতিপয় ব্যক্তিরা তাদের নিজ নিজ সীমানার মাথায় খালের অংশ দখলে নিয়ে মূলত খালের অস্তিত্ব সংকটে ফেলেছে।

এলাকাবাসীর দাবি, অচিরেই খালটির দখলমুক্ত করে পুন:খনন না হলে দখল আর দূষণে অস্থিত্ব হারাবে বাওন কুড়ের খাল।

একই রকম সংবাদ সমূহ

তালায় যুবককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা, আটক ৩

সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মুড়াগাছা গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরেবিস্তারিত পড়ুন

সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেফতার ১৭

সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী পুলিশের মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযানে মাদক মামলার ৩বিস্তারিত পড়ুন

তালায় এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা, আহত-২

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় বাড়ি থেকে বেরুনোর রাস্তা তৈরির করার সময়বিস্তারিত পড়ুন

  • সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী ২৯জন আটক; ইয়াবা, মদ, গাঁজা উদ্ধার
  • ‘একটি কৃত্রিম পা’ এর আকুতি সাতক্ষীরার আয়েশার
  • তালায় দুই মহিলাকে পিটিয়ে আহত
  • তালায় ২০পিচ ইয়াবাসহ গ্রেফতার-২
  • সাতক্ষীরা জেলা ব্যাপী গ্রেফতার ২২
  • তালায় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ
  • তালায় সীমানা পিলার পিন শনাক্তকারী যন্ত্রসহ আটক-৫
  • তালায় ছোট ভাইয়ের লাশ দেখে বড় ভাইয়ের মৃত্যু
  • তালায় ঝড়ে ক্ষয়ক্ষতি : মাদরাসায় শিক্ষার্থীরা ক্লাস করছে খোলা আকাশের নীচে
  • সাতক্ষীরায় বিকাশ এজেন্টদের সংবাদ সম্মেলন : চার কোটি টাকা নিয়ে কেটে পড়েছে ডিস্ট্রিবিউটর
  • সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে তালায় মানববন্ধন
  • তালায় কয়েক মিনিটের ঝড়ে লন্ডভন্ড ঘরবাড়ি-শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
  • error: Content is protected !!