রবিবার, মে ১৯, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

ন্যায্য মূল্য নেই, হতাশ পাটকেলঘাটার কৃষকরা

‘ধান লাগায়ি কি হবে, এর চায়ি কিনি খাব’

‘ধান লাগায়ি কি হবে, এর চায়ি কিনি খাব তবুও লোকসান গুণতি হবে না আমাগি মতোন কৃষকের’ -কথাগুলো বলছিলেন পাটকেলঘাটার থানার কুমিরা গ্রামের আব্দুস সালামের পুত্র ধানচাষি শহিদুল ইসলাম।
অনেকটা অভিমানের সুরে নিজের অজান্তে কথা গুলো অকপটে বলেই চলেছিলেন একান্ত স্বাক্ষাৎকারে।

তিনি আরো বলেন- ‘ধান যদি আমরা না লাগাই তাহলি সরকারের তো বাইর দেশেত্তে আনতি হবে। আমাগির সরকার কি বোঝে না খরচের চায়ি যদি দাম কম পাই তালি ও লাগাবো কি করতি।’

সরেজমিনে পাটকেলঘাটার কয়েকজন ধান ব্যবসায়ীর নিকট খোজ নিয়ে এমন কথার সত্যতা পাওয়া যায়।

দেখা যায়- এসকল ব্যবসায়ীগণ অনেককটা অনাগ্রহের সহিত ধান কিনছেন। বিশেষত মুদি, কাপড় সহ সমস্থ দোকানগুলোতে বৈশাখের শুরু হতে এক যোগে হালখাতার লগ্ন চলছে। সারাবছর বাকি করে কিনলে এখন সেগুলো পরিশোধ করা বাধ্যতা মুলক হয়ে দাড়িয়েছে সকলের। তাই যার যা সম্বল গরু, ছাগল বিক্রি করেও অনেকে দেনা পরিশোধ করছেন বলে জানা যায়।

অপরদিকে অধিকাংশ ধানচাষী কৃষকরা চেয়ে আছেন কষ্ট করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে অর্জিত ধান ক্ষেতের দিকে।

বছরের ভাত ঘরে তুলে বাকি ধানগুলো বিক্রি করে সকল দেনা পরিশোধ করে দেবেন। কার্যত দেখছেন ঝুকি নিয়ে ধানগাছ লাগানোর চেয়ে ধান কেনাই লাভবান বেশি।

বুধবার উপজেলার বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পাটকেলঘাটা বাজারে বেশিরভাগ কৃষকের ধান বিক্রি করতে এসে কপাল ভাজ হতে দেখা যায়। তাদের এমন দশা লোকসান হলেও করার কিছুই নেই। ধান বিক্রি করে হালখাতার টাকা শোধ না করলে বাড়ি গিয়ে মান অপমান হতে পারেন।

কয়েকজন ধান ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা যায়- বর্তমানে সর্বোচ্চ সাড়ে ৭’শ দামে মণ দিচ্ছি। বাজার যদি চড়া না হয় সরকার যদি মাঠপর্যায়ে কৃষকের খোজ খবর না নেয় আমরা কি বা করতে পারি। অথচ মণ প্রতি ধান উৎপাদন করতে হাজারেরও বেশি অলিখিত খরচ হয়ে দাড়িয়েছে এতদাঞ্চলের কৃষকের। চড়া দামে ধান বীজ কেনা, অনেকের চড়া দামে পাতা (ধানের চারা) কেনা অতপর শ্রমিক দিয়ে চারা লাগানো, পরিষ্কার করা, পানি খরচ, সার দেয়া, গাছগুলো কাটা, ঝাড়া পরিষ্কার শেষে ঘরে তোলা নেহায়েত কম শ্রম নয়। অথচ যা খেয়ে আমাদের জীবন বাচে, যা এদেশের কৃষকরা উৎপাদন না করলে সরকার সহ জনগণের মাথায় হাত উঠে যাবে তার দাম দর নিয়ে কারও কোনো মাথা ব্যথা নেই।

অনেকের ধানের দাম না পাওয়ায় ধানগাছে আগুন ধরিয়ে দিয়ে প্রতিবাদ জানানোর খবরও কানে আসছে। তাই সরকারের উচিত এদেশের কৃষকদের দিকে সুনজর দেয়া।

আবারও যাতে কৃষকরা লাভের আশায় নতুন উজ্জীবিত হয়ে ধান পাট চাষে আগ্রহ তৈরী করতে পারে তার সুব্যবস্থার জন্য আহবান জানান এ অঞ্চলের সাধারণ কৃষককুল।

একই রকম সংবাদ সমূহ

তালায় যৌতুকের দাবীতে অন্তঃসত্বা স্ত্রীকে পেটালেন পাষন্ড স্বামী!!

সাতক্ষীরা তালায় যৌতুকের দাবীতে তারমিনা (১৯) নামের ৫মাসের অন্তঃসত্বা একবিস্তারিত পড়ুন

পেশা বদলেও ভাগ্য বদলায়নি তালার বাউল শিল্পী নির্ম্মল মন্ডলের

বড় শিল্পী হওয়ার বাসনায় নিজের ইচ্ছায় মাত্র ১২/১৩ বছর বয়সেইবিস্তারিত পড়ুন

সাতক্ষীরার তালায় ঘুমন্ত স্বামীকে পিটিয়ে মারলো স্ত্রী!!

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় এবার স্বামীকে বাঁশের লাটি দিয়ে পিটিয়ে হত্যাবিস্তারিত পড়ুন

  • তালায় ছাত্রলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
  • সাতক্ষীরা ও তালায় দুই গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা!!
  • ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে তালার বালিয়া ভাঙ্গনকুল উপ-প্রকল্প বাস্তবায়নে স্তরে স্তরে দুর্নীতি-অনিয়ম
  • ইউরোপের বাজারে এবারো যাবে সাতক্ষীরার আম…
  • তালায় যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে বিষ খাইয়ে হত্যা!!
  • সাতক্ষীরার বুধহাটায় মিনিস্টার শো-রুমে সাংবাদিকদের সম্মানে ইফতার
  • তালার জালালপুর ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে অপপ্রচারে কুচক্রী মহল
  • ‘তৃণমূল কর্মীরাই আ.লীগের শক্তি ও প্রাণ’ : সাতক্ষীরায় আ.লীগের বর্ধিত সভায় নেতৃবৃন্দ
  • সাতক্ষীরায় স্বস্তির বৃষ্টি
  • ৪র্থ দিনে ময়না তদন্তের অনুমতি, মঙ্গলবার সৎকার হতে পারে তালার নমিতার লাশ
  • সাতক্ষীরায় আটক ১৩জন মানসিক ভারসাম্যহীনকে পাঠানো হলো পাবনা মেন্টাল হাসপাতালে
  • error: Content is protected !!