বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

মনোনয়নের খবর জানেই না দফতর

বিএনপির নারী সাংসদ হচ্ছেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা

একাদশ জাতীয় সংসদে বিএনপি জন্য সংরক্ষিত একটি নারী আসনে দলটি মনোনীত একমাত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন কমিশনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা।

সোমবার দুপুরে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে রিটা‌নিং অ‌ফিসার ই‌সির যুগ্ম স‌চিব আবুল কাসেমের কাছে তিনি এ মনোনয়নপত্র জমা দেন।

সোমবার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আমি সংসদে গিয়ে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আশু ‍মুক্তির জন্য কথা বলব। দেশ, জনগণের জন্য কথা বলব।”

সংরক্ষিত আসনে মনোয়ন দেওয়ায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করেন রুমিন ফারহানা।

তিনি বলেন, “আমার ওপর যে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়েছে তা নিষ্ঠা, সততার সাথে পালন করতে আমি সচেষ্ট থাকব।”

মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলে শেরেবাংলা নগরে গিয়ে জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত করবেন বলে জানান রুমিন ফারহানা।

নির্বাচন কমিশনে মনোয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, সংরক্ষিত নারী আসনের ক্ষেত্রে একটি আসনে একক প্রার্থী থাকেন বলে ভোটের আনুষ্ঠানিকতার প্রয়োজন হয় না। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের দিন শেষে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয় প্রার্থীকে। ফলে কাগজপত্র ঠিক থাকলে রুমিন ফারহানার সংসদ সদস্য হওয়ার কথা। ইতোমধ্যে দলের স্থানীয় পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে এই রুমিন ফারহানাকে নিয়ে যথেষ্ট আগ্রহ দেখা দিয়েছে।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, “রিটার্নিং কর্মকর্তা যদি দেখেন যে সব কাগজ ঠিক আছে, তবে গেজেট প্রকাশ করা হবে।”

কে এই রুমিন ফারহানা?

টেলিভিশন টকশোর পরিচিত মুখ ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা একাদশ জাতীয় সংসদের আগে আলোচনায় আসেন। তার নিজ নির্বাচনী আসনের (ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২) মানুষের কাছেও সে সময় তেমন পরিচিতি না থাকলেও বিভিন্ন এলাকায় তার জ্বালাময়ী বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় দ্রুত পরিচিতি পান।

অবশ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসন থেকে মনোনয়ন চেয়েও পাননি রুমিন ফারহানা। ওই আসনে উকিল আবদুস সাত্তারকে বিএনপি মনোনয়ন দিলে তিনি বিজয়ী হন।

পেশায় আইনজীবী ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ–আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক। তার বাবা অলি আহাদ একজন ভাষা সৈনিক ও রাজনীতিবিদ।

বিএনপির নেতাকর্মীদের মতে, যুক্তি দিয়ে কথা বলায় পটু থাকায় দলের অনেক নারী নেত্রীকে পেছনে এখন সংসদে যাওয়ার পথে রুমিন ফারহানা।

রুমিনের মনোনয়নের খবর জানেই না দফতর

সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির মনোনয়নের খবর গণমাধ্যমে প্রচার হলেও দলের দায়িত্বশীলরা দফতরকে জানায়নি। এমন অভিযোগ দফতরের দায়িত্বে থাকা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভীর।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এমন অভিযোগ করেন রিজভী।

সেখানে রিজভীর কাছে সাংবাদিকদের প্রশ্ন ছিল-সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপি প্রার্থী হিসেবে কাকে চূড়ান্ত করেছে? এমন প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, দল থেকে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি।

এরপর সাংবাদিকরা আবারও প্রশ্ন করেন, রুমিন ফারহানা বলেছেন তাকে দল থেকে চিঠি দেয়া হয়েছে। তিনি দুপুর ১২টায় স্পিকারের কাছে যাচ্ছেন। এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমি বলেছি দল থেকে আমাকে এখনও কেউ জানায়নি, জানালে জানতে পারবেন। ধন্যবাদ।’

সংরক্ষিত আসনে মনোনয়নের বিষয়টি নিয়ে বিএনপির একজন সহ-দফতর সম্পাদক ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, দলে এমন কিছু ব্যাপার রয়েছে যেগুলো মহাসচিবের জানার কথা অথচ তিনি জানেন না, আবার কিছু ব্যাপার থাকে যা দফতরের দায়িত্বে থাকা নেতার জানার কথা কিন্তু দেখা যাচ্ছে তিনি তা জানেন না।

ওই সংবাদ সম্মেলনের আগেই গণমাধ্যমে বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানার বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে প্রচার হয় তিনি দলের সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবীর খান বলেন, আজ সকালে চেয়ারপারসনের কার্যালয় থেকে রুমিন ফারহানা মনোনয়নের চিঠি পেয়েছেন। চিঠি নিয়ে তিনি তা নির্বাচন কমিশনে জমা দিয়েছেন।

এদিকে রুমিন ফারহানার মনোনয়নের খবরে তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, এ দৌড়ে থাকা বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুন রায় চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘আমার ব্যক্তিগত প্রত্যাশার কিছু নেই। আমি জেল থেকে যেদিন বের হলাম , সেদিন আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমাকে ফোনে অভিনন্দন জানিয়েছিলাম। সেদিন থেকে আমি আমার ব্যক্তিগত চাওয়া-পাওয়া নিয়ে ভাবি না। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমার এসব বিষয় ঠিক করবেন।’

তিনি বলেন, রুমিন আপু আমার সিনিয়র, আমি তাকে অভিনন্দন জানাই, তিনি সংসদে কার্যকরী ভূমিকা রাখবেন।’

একই রকম সংবাদ সমূহ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৭টি পদক লাভ

ড. কালাম স্মৃতি ইন্টারন্যাশনাল এক্সিলেন্স এ্যাওয়ার্ড-২০১৯ অর্জনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখবিস্তারিত পড়ুন

ড. কালাম ‘এক্সিলেন্স এওয়ার্ড’ গ্রহণ করেই দেশবাসীকে উৎসর্গ করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘ড. কালাম স্মৃতি ইন্টারন্যাশনাল এক্সেলেন্স এওয়ার্ডস-২০১৯’ গ্রহণবিস্তারিত পড়ুন

শোভন-রাব্বানী বাদ, ছাত্রলীগের নেতৃত্বে জয় ও লেখক

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে রেজওয়ানুলবিস্তারিত পড়ুন

  • শোভন-রাব্বানীকে পদত্যাগের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
  • তৃণমূল থেকে সংগঠনকে গড়ে তুলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
  • কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শোভন-রাব্বানির ভাগ্য নির্ধারণ
  • পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
  • বিএনপি অর্থ-সম্পদ অর্জনে বেশি ব্যস্ত ছিল: প্রধানমন্ত্রী
  • বিশ্বের শীর্ষ নারী নেতৃত্বের তালিকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
  • আগুন নিয়ে খেলতে বারণ করলেন শামীম ওসমান
  • ৮ সেপ্টেম্বর থেকে বিদ্রোহী প্রার্থীদের চিঠি দেয়া হবে : ওবায়দুল কাদের
  • মইনুল হোসেন ফের কারাগারে
  • লন্ডন পৌঁছেছেন রাষ্ট্রপতি
  • বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ
  • বাংলাদেশ যেন আর হায়েনাদের হাতে না পড়ে: প্রধানমন্ত্রী