বুধবার, জুলাই ২৪, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

প্রকৃত সুখ আর সত্যতায় বেঁচে থাকুক পৃথিবীর সব সত্যি ভালোবাসা!

ভালোবাসা ভালো আছে?

ভালোবাসা অন্য রকম একটা অনুভূতি। এই অনুভূতিতে যেমন শান্তি মেলে অপরদিকে ভালোবাসাহীন বেদনার না দেখা আগুনে পুড়ে পুড়ে অনেকেই শেষ হয়। ভালোবাসলে যেমন টুকরো টুকরো অনেক কিছু আনন্দ দেয়। ঠিক তেমনি অনেক ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ব্যাপারে কল্পনাতীত কষ্ট দেয়।

কিছু সম্পর্কে অধিকারবোধ থাকে, কিন্তু কাজে অধিকার দেখানোর সুযোগটা খুব একটা মেলে না। বুকে অনেক কথা জমে থাকে তবুও কাছের মানুষটাকে চাইলেই সব বলে ফেলা যায় না। এক সময় যে মানুষটাকে সব কিছু বলতে ভালো লাগে, সেই মানুষটাকেই বলতে গিয়ে এক সময় হাজারটা চিন্তা করে কথাটা আটকে রাখতে হয়। হয়তো সেটা হতে পারে ভুল বোঝাবুঝির জন্য। আবার হতে পারে কোনো বিষয়ে মনের ক্ষোভ থেকে।
এই বিষয়ে কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের একটা উক্তি না বললেই নয়। আর তা হলো ‘ভালোবাসার মানুষের সবকিছুই সহ্য করা যায়। কিন্তু তার অবহেলা সহ্য করা যায় না।

আসলেই যাকে ভালোবাসা হয় তার অবহেলার পাত্র হতে কখনোও ভালো লাগে না। প্রেমে পড়ার প্রথম অনুভূতিটা যতখানি শান্তি দেয়, আর প্রেম হয়ে গেলে দুজনের কারো একজন যদি অবহেলা ব্যাপারটা শুরু করে সেটার অনুভূতিটা হয় চরম কষ্টের। ভালোবাসার কষ্ট সহ্য করার মত মানুষ এই পৃথিবীতে নেই বললেই চলে। কেননা প্রতিটা মানুষকে বাঁচতে শেখায় কিছু আবেগ অনুভূতি। এই আবেগ অনুভূতি না থাকলে মানুষ এত কষ্ট করে পাহাড় সমান বাধা পেরিয়ে একটু শান্তি খুঁজতো না। সব কিছু এই ছোট ছোট অনুভূতির জন্যই।

এমন কিছু সম্পর্ক আছে যেখানটায় দুজনের কোনো একজন অবহেলা করতে শুরু করছে। আর অপরপ্রান্তের মানুষটা সেই অবহেলাতেও ভালোবাসা খুঁজে বেড়াচ্ছে। আর যাই হোক, সম্পর্কটা টিকিয়ে রাখার নিরন্তর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। অবহেলা পাওয়ার পরও মুখে ভালোবাসি কথাটাকেই সত্যি বলে ধরে নিচ্ছে। এমন করতে করতে হয়তো কখনও সম্পর্কটা টিকে যায়, কখনও বা ভেঙে যায়। তবে শেষটায় যাই ঘটুক, এমন সম্পর্ক কোনো একজনকে হয়তো মানসিকভাবে বিধ্বস্ত করে দেয়।

প্রেমে পড়লে ভালোবাসার মানুষটিকে চোখের আড়াল করতে ইচ্ছা করে না। তার সাথে থাকতে, কথা বলতে ইচ্ছা করে। কিন্তু একটা সময় দেখা যায়, আগে যেখানে দিনরাত ফোনে থাকতেন, একঘন্টা কথা না হলে কিছু ভালো লাগতো না, সেখানে এখন দু’দিন ফোন না করলেও নিজে থেকে কল দেওয়ার প্রয়োজনও মনে করেন না। কথা বলতে গেলেও সৃষ্টি হয় অন্য রকম বিপদে। কারণ, হয়তো অপর পক্ষ এমনভাবে কথা বলে, মনে হয় রেখে দিতে চাচ্ছে। এই লক্ষণ দেখলে খানিকটা আন্দাজ করা যায় প্রিয় মানুষটি আর আগের মতো নেই। নিজে থেকে না বললেও তার অবচেতন মনে লুকিয়ে আছে আলাদা হয়ে যাবার ইচ্ছা।

ভালোবাসার সম্পর্ক চিরন্তন। যদি মনে হয় আপনি তার সঙ্গে ভালো নেই, তাহলে তাকে সেটা বলে দিন। অহেতুক তাকে মিথ্যে বলবেন না। এতে কষ্ট বাড়বেই। যদি মনে হয় যে ভালোবাসা আর নেই তাহলে এখানেই শেষ করুন। তাকে মিথ্যে বলে ঠকাবেন না। সম্পর্ককে সত্য-মিথ্যার জালের আবদ্ধ না রেখে সেটাকে মূল্যায়ন করা উচিত। যদি ভেঙ্গে দেবার হয় তাহলে দ্রুত ভেঙ্গে দিয়ে মানুষটিকে মুক্ত করে দেওয়ায় ভালো। আর যদি মনে হয় মানুষটিকে কাছে রাখবেন তাহলে তার খেয়াল রাখুন। প্রিয় মানুষটি আপনার কোন আচরণে মানসিকভাবে আহত হচ্ছে মনে হলে নিজে থেকেই সেই ক্ষতটা সারিয়ে তোলার চেষ্টা করুন।

প্রকৃত সুখ আর সত্যতায় বেঁচে থাকুক পৃথিবীর সব সত্যি ভালোবাসা।

একই রকম সংবাদ সমূহ

অর্থ জমানোর কৌশল জানেন?

অর্থ জমানোর ইচ্ছা সকলেরই। কিন্তু অনেকেই আছেন যারা অর্থ জমাতেবিস্তারিত পড়ুন

৭ ঘণ্টার কম ঘুম আর নয়

শারীরিক সুস্থতার সাথে ঘুমহীনতার গভীর সম্পর্ক আছে। বর্তমানে আলঝেইমার্স, ক্যান্সার,বিস্তারিত পড়ুন

মেসেঞ্জারে আসছে যে পাঁচ ফিচার

মেসেঞ্জার ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন ৫টি ফিচার আনছে চলেছে ফেসবুক। গতবিস্তারিত পড়ুন

  • আইফোন থেকে আগুনের ফুলকি, বিস্ফোরণ
  • দেড় বছরে সেলফি তুলতে গিয়ে ১২০৩ জনের মৃত্যু!
  • হঠাৎ ফেসবুকের হলোটা কি?
  • শাড়ি পড়ার টুকিটাকি
  • যেসব খাবার ফ্রিজে রাখবেন না
  • জন্ম নেওয়ার পরই দাঁড়িয়ে হাঁটা শুরু সদ্যোজাত শিশুর! (ভিডিও)
  • প্রেম করে বিয়ে করলেই কি সঙ্গী রোমান্টিক!!
  • স্মার্টফোনের ভাইরাস তাড়াবেন যেভাবে
  • জামাই আদরের উৎসব “জামাই ষষ্ঠী”
  • শ্বেতী রোগ হলে কি করবেন?
  • যে কারণে ব্রণ হতে পারে
  • error: Content is protected !!