বুধবার, জুন ৩, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

কে এই বাঙালি নোবেল বিজয়ী অভিজিৎ?

অভিজিতের স্ত্রীও নোবেল পেলেন অর্থনীতিতে

এ বছর অর্থনীতিতে যৌথভাবে তিনজন নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

এদের মধ্যে অভিজিৎ ব্যানার্জি ও আস্থার ডাফলো সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। অভিজিৎ ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক, আস্থার ডাফলো ফ্রেন্স-আমেরিকান ও মাইকেল ক্রেমার আমেরিকান অর্থনীতিবিদ।

বাংলাদেশ সময় সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টায় রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস এ পুরস্কার ঘোষণা করেন।

নোবেল কমিটি জানাচ্ছে, অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে বিশ্বের দারিদ্র্য বিমোচনে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তাদের এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছে।

কে এই বাঙালি নোবেল বিজয়ী অভিজিৎ?

এ বছর অর্থনীতিতে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী তিনজনের একজন অভিজিৎ ব্যানার্জি, যিনি অমর্ত্য সেনের পর দ্বিতীয় বাঙালি হিসেবে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হলেন। বিশ্বের দারিদ্র্য দূরীকরণে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এ বছর অর্থনীতিতে অভিজিতের সঙ্গে তার স্ত্রী আস্থার ডাফলো ও আমেরিকান অর্থনীতিবিদ মাইকেল ক্রেমারও এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। জন্মগতভাবে বাঙালি হলেও অভিজিৎ এখন আমেরিকার নাগরিক।

অভিজিতের পুরো নাম অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জি। ১৯৬১ সালে ভারতের কলকাতাতে তার জন্ম। অভিজিতের বাবা দীপক ব্যানার্জি ছিলেন কলকাতা প্রেসিডেন্সি কলেজের অর্থনীতি বিভাগের প্রধান ও অধ্যাপক এবং তার মা নির্মলা ব্যানার্জিও ছিলেন সেন্টার ফর স্টাডিজ ইন সোশ্যাল সায়েন্সেস, কলকাতা এর অর্থনীতি বিভাগের একজন অধ্যাপক। তিনি সাউথ পয়েন্ট স্কুল এবং কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে লেখাপড়া করেন, যেখান থেকে ১৯৮১ সালে অর্থনীতিতে বি.এস ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে তিনি ১৯৮৩ সালে দিল্লির জওহরলাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে এম.এ ডিগ্রি সম্পন্ন করেন।

১৯৮৮ সালে তিনি অর্থনীতিতে পিএইচডি করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাচীনতম বিশ্ববিদ্যালয় হার্ভার্ডে ভর্তি হন। অর্থনীতিতে পিএইচডি নিতে তার থিসিস এর বিষয়টি ছিলো “এসেস ইন ইনফরমেশন ইকোনমিকস”।
আমেরিকান নাগরিক অভিজিৎ বর্তমানে এমআইটির ফুর্ড ফাউন্ডেশনের অর্থনীতি বিভাগের একজন আন্তর্জাতিক অধ্যাপকও। অভিজিৎ ব্যানার্জি, আব্দুল লতিফ জামিল পুভার্টি অ্যাকশন ল্যাবের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং কনসোর্টিয়াম অন ফিন্যান্সিয়াল সিস্টেমস অ্যান্ড পোভার্টি এর একজন সদস্যও। এছাড়াও তিনি অর্থনীতি বিশ্লেষণ ও উন্নয়ন বিষয়ক গবেষণা সংস্থা ন্যাশনাল ব্যুরো অব ইকোনমিক রিসার্চ এর সাবেক প্রেসিডেন্ট, সেন্টার ফর ইকোনমিক পলিসি রিসার্চ, কিইল ইনস্টিটিউট, আমেরিকান একাডেমি অব আর্টস এন্ড সায়েন্স এবং ইকোনমিক সোসাইটির সম্মানিত ফেলো। এছাড়াও তিনি পুর ইকোনমিকস এর একজন সহকারী লেখকও।

একই রকম সংবাদ সমূহ

নিজ ছবিযুক্ত মাস্ক কিনতে উপচে পড়া ভিড়

করোনা সতর্কতায় সারাবিশ্বে যখন সার্জিক্যাল বা এন নাইটি ফাইভ মাস্কেরবিস্তারিত পড়ুন

১০ কোটি মানুষের ভিয়েতনামে যে কারণে করোনাভাইরাসে মৃত্যু শূন্য

করোনাভাইরাস মহামারী সফলভাবে মোকাবেলার উদাহরণ খুঁজতে বিশ্ববাসী যখন এশিয়ায় নজরবিস্তারিত পড়ুন

প্রথম ইউরোপীয় দেশ হিসেবে ‘করোনামুক্ত’ মন্টেনিগ্রো

করোনা ভাইরাস মহামারিতে বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। এরইমধ্যে প্রথম ইউরোপীয় দেশবিস্তারিত পড়ুন

  • মসজিদে নববী খুলে দিচ্ছে সৌদি আরব
  • দেশ একটি, নাম দুইটি! ইন্ডিয়া থেকে হয়ে যেতে পারে ভারত
  • বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবাষির্কী উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করল জাতিসংঘ
  • মহানবী (সা.)-এর জীবনী পড়ে মুসলিম হওয়া এক ব্রিটিশ যুবকের গল্প
  • আসছে ইলেকট্রনিক মাস্ক
  • লিবিয়ায় এলোপাতাড়ি গুলিতে নিহত বাংলাদেশিদের পরিচয় মিলেছে
  • করোনা স্ত্রীর মতো, নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে মানিয়ে নিন!!
  • ভারতে ঢুকলেই গ্রেফতার হবেন নোবেল
  • ভারতে পঙ্গপালের হানার
  • লাদাখে মুখোমুখি চীন ও ভারতের সৈন্যরা, যুদ্ধ কি আসন্ন?
  • করোনাভাইরাস: উহানে ৯ দিনে ৬৫ লাখ নমুনা পরীক্ষা
  • বিশ্ব তালিকায় করোনা আক্রান্তের ২৫তম স্থানে বাংলাদেশ