মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

আশ্রয়কেন্দ্রে সাতক্ষীরা উপকূলের ৯২ হাজার মানুষ

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় বুলবুল ক্রমশ শক্তিশালী হয়ে উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে। ফলে সাতক্ষীরার উপকূলীয় এলাকার বিভিন্ন অঞ্চলের ৯২ হাজার মানুষকে আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

শ্যামনগর উপজেলা ও আশাশুনি উপজেলার উপকূলবর্তী অঞ্চলের এসব মানুষদের আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়া হয়।

শনিবার দুপুরে জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম মাসুদুল আলম বলেন, শনিবার দুপুর পর্যন্ত আমার ইউনিয়নের প্রায় তিন হাজার মানুষকে আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে নেয়া হয়েছে। মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিতে চাই না। তবুও তাদের বুঝিয়ে আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়া হচ্ছে।
তিনি বলেন, এলাকায় কোনো রাস্তাঘাট নেই। মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে চাইলেও রাস্তা না থাকায় সেটিও অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

উপকূলীয় শ্যামনগর উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ক কর্মকর্তা (পিআইও) শাহিনুর ইসলাম জানান, শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ও পদ্মপুকুর ইউনিয়ন দুটি অধিক ঝুঁকিতে রয়েছে। এছাড়া বুড়িগোয়ালিনী, আটুলিয়া, কৈখালি ও মুন্সিগজ্ঞ ইউনিয়নও ঝুঁকিপূর্ণ। আমরা এসব এলাকার মানুষদের আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়ার চেষ্টা করছি। কিন্তু মানুষ আশ্রয় কেন্দ্রে আসতে চায় না। তারা বাড়িতেই থাকতে চায়। কেউ কেউ তাদের আত্মীয় স্বজনের বাড়িতে চলে যাচ্ছে।

শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম কামরুজ্জামান বলেন, আমি সকাল থেকেই উপকূলীয় গাবুরা ইউনিয়নের এলাকায় রয়েছি। এখানকার মানুষদের আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় যেতে বলা হচ্ছে, বোঝানো হচ্ছে। মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে যাচ্ছে।

অন্যদিকে আশাশুনি উপজেলার উপকূলীয় শ্রীউলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু হেনা শাকিল জানান, আমার ইউনিয়নের প্রায় দুই হাজার মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে খিচুড়ি ভাতের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

প্রতাপনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন জানান, দুই হাজারের অধিক মানুষ বর্তমানে নিরাপদে আশ্রয় নিয়েছে। সবাইকে আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে সেটি সম্ভব হচ্ছে না।

জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল জানান, বিকাল পর্যন্ত উপকূলের ৯২ হাজার মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। প্রশাসনের সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা কর্মচারীরা একযোগে কাজ করছেন। উপকূলীয় এলাকার মানুষদের বুঝিয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া হচ্ছে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

ত্রাণ নিয়ে ছিনিমিনি খেললে গ্রেফতার করা হবে : ডিসি

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল বলেছেন, ত্রাণের সুষ্ঠু বণ্টনবিস্তারিত পড়ুন

সাতক্ষীরায় ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ ও পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

সাতক্ষীরায় ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ এর ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ ও ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী পর্যালোচনাবিস্তারিত পড়ুন

সাতক্ষীরায় ‘মাসিক আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক সভা’ অনুষ্ঠিত

সাতক্ষীরায় ‘মাসিক আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক সভা’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালবিস্তারিত পড়ুন

  • সাতক্ষীরায় যুবলীগের ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত
  • বুলবুলকে ‘রুখে দিল’ প্রকৃতির ঢাল সুন্দরবন
  • সাতক্ষীরা জেলা আ.লীগের সম্মেলন ১০ ডিসেম্বর, বিদ্রোহীরা প্রার্থী হতে পারবেন না!
  • ঘূণিঝড় বুলবুল: লন্ডভন্ড সাতক্ষীরায় এক ব্যক্তির মৃত্যু ।। ফসল নষ্ট, কাঁচা ঘরবাড়ি ও রাস্তাঘাটের ক্ষতি
  • বুলবুল’র তাণ্ডব : লন্ডভন্ড সাতক্ষীরা
  • সাতক্ষীরায় ঘুর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন
  • সাতক্ষীরা জেলায় সেরা করদাতা বিশ্বজিৎ সাধু, আক্কাজ, হাসান, আশিক, দিপঙ্কর, গোলাম আকবর ও নিলুফা ইয়াসমিন
  • ১০নং মহাবিপদ সংকেতে সাতক্ষীরায় ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র প্রভাব, প্রস্তুতি সম্পন্ন
  • আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে চাচ্ছে না সাতক্ষীরা উপকূলের মানুষ
  • ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ : ১০ নম্বর মহাবিপদ সঙ্কেত জারি
  • ঝাউডাঙ্গার ওয়ারিয়ায় দামোদর ব্রত অনুষ্ঠান