সোমবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

কলারোয়ার মুরারীকাটি পালপাড়ায় ৭১’র গণহত্যা দিবস পালন

কলারোয়ার পালপাড়ায় গণহত্যা দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে ভাগবত আলোচনা সভা ও বদ্ধভূমিতে আলোক প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে কলারোয়া পৌরসভার উত্তর মুরারীকাটি পালপাড়া বদ্ধভূমি প্রাঙ্গনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

পালপাড়া শ্রীশ্রী রাধা গোবিন্দ মন্দিরে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে ভাগবত আলোচনা করেন যশোরের কেশবপুরের দেবালয় ট্রাস্ট ও সচিবালয় স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার শ্যামল সরকার।

পালপাড়ার টালি ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি গোষ্ঠ চন্দ্র পালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সহযোগী অধ্যাপক শশী ভূষন পাল, গণহত্যার প্রত্যক্ষদর্শী আহত ত্রৈলক্ষ পাল, কুশি পাল, শিবুপদ পাল, পালপাড়ার টালি ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হরেন্দ্র নাথ পাল ময়না, প্রশান্ত কুমার, প্রদীপ পাল, দিলিপ পাল, রীনা রাণী পাল প্রমুখ।
সন্ধ্যায় পালপাড়া বদ্ধভূমির শহীদদের গণকবরে আলোক প্রজ্জ্বলন করা হয়। এর আগে সেখানে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে স্বাধীনতার দোসররা ১৯৭১সালের ২৯এপ্রিল ওই স্থানে পালপাড়ার ৯জন সনাতন ধর্মাবলম্বীসহ ১১জনকে নৃশংস ভাবে হত্যা করে বলে জানা যায়।

স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা জানান-১৯৭১ সালের ২৯ এপ্রিল দুপুর আড়াইটার দিকে হানাদার বাহিনী ও তাদের দেশীয় দোসররা কলারোয়ার উত্তর মুরারীকাটি গ্রামের কুমারপাড়ায় পৈশাচিক হত্যাযজ্ঞ চালায়। তখন পালপাড়ার অনেকে দুপুরের খাওয়া শেষ করেছেন। কেউবা বসেছেন খেতে। ঠিক এমন সময় অতর্কিত হামলা চালিয়ে নির্বিচারে গুলি করে ও বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করা হয় গ্রামবাসীকে। গুলিতে ও বেয়নেটের আঘাতে জর্জরিত প্রাণহীন দেহগুলো লুটিয়ে পড়ে মাটিতে। পড়ে থাকে দুপুরের সেই খাবার।

সেদিন পাকিস্তানি বাহিনীর নির্মম-নারকীয় গণহত্যার শিকার হন পালপাড়ার বৈদ্যনাথ পাল (৪৫), নিতাই পাল (৪০), গোপাল পাল (৪২), সতীশ পাল (৪৫), রাম চন্দ্র পাল (৪০), বিমল পাল (৪২), রঞ্জন পাল (৪০), অনিল পাল (৪৫) ও রামপদ পাল (৪২)। সেখানে বেয়নেটবিদ্ধ হয়েও জীবিত ছিলেন-শিবু পাল, ত্রৈলক্ষন পাল ও কুশি পাল। একই দিন সকালে কলারোয়ার মাহমুদপুর গ্রামের আওয়ামীলীগ নেতা আফছার আলী (৪৮) হানাদার বাহিনীর হাতে প্রথম শহীদ হন। পরে পালপাড়ার শহীদদের স্মরণে গড়ে তোলা হয়েছে স্মৃতিসৌধ।

এদিকে- প্রতি বছর ২৯ এপ্রিল শহীদদের সন্তান, স্বজন ও সতীর্থরা বিদেহী আত্মার মঙ্গল কামনা করে এখানে পালন করেন ১৬ প্রহরব্যাপী অখন্ড মহানাম সংকীর্ত্তন ও বিভিন্ন মঙ্গলাচার ও মহানাম সংকীর্তন অনুষ্ঠান। বছর ঘুরে ২৯ এপ্রিল এলেই পালাপাড়ার স্বজনহারা পরিবারগুলো একাত্তরের সেই গণহত্যার স্মৃতিচারণায় নীরবে ফেলেন চোখের জল। আপন স্মৃতির পাতায় খুঁজতে থাকেন হারিয়ে ফেলা প্রিয়জনদের সেই প্রিয় মুখগুলো। এই দিনটির ভয়াবহতা স্মরণ করে আজও তাঁরা শিউরে ওঠেন। ৪দিন ব্যাপী এই মহানাম সংকীর্ত্তণ পরিবেশন করা হয়।

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়ায় পল্লী চিকিৎসকদের নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা

কলারোয়ায় পল্লী চিকিৎসকদের নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্মবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় লক্ষ্মীপূজা অনুষ্ঠিত

কলারোয়ায় লক্ষ্মীপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী’র সংকলনে লেখা আহবানবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় ফেনসিডিলসহ এক মাদক ব্যবসায়ী ও দুই মাদকসেবী গ্রেপ্তার

কলারোয়ায় পৃথক অভিযানে ফেনসিডিলসহ এক মাদক ব্যবসায়ী ও দুই মাদকসেবীকেবিস্তারিত পড়ুন

  • কলারোয়াসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় লক্ষ্মীপূজা অনুষ্ঠিত
  • সাতক্ষীরা জেলা ব্যাপী গ্রেফতার ২০।। ফেন্সিডিল, গাঁজা উদ্ধার
  • কলারোয়ায় ৮দলীয় গাদন খেলার ১ম সেমিফাইনাল অনুষ্ঠিত
  • কলারোয়ায় আ.লীগের ত্রি-বার্ষিকী কাউন্সিল উপলক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা
  • কলারোয়ায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে শ্রমিকলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত
  • কলারোয়ায় ৪ জুয়ারী আটক
  • কলারোয়া প্রেসক্লাবের কমিটি পুনর্বহাল, বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহন
  • কলারোয়ার কেঁড়াগাছিতে গ্রাম পুলিশের ডেঙ্গু নিধন অভিযান
  • কলারোয়ায় স্বামীর পরকীয়া প্রেমে বাধা দেয়ায় স্ত্রীকে হত্যা! স্বামী গ্রেপ্তার
  • কলারোয়া উপজেলা ইলেকট্রিশিয়ান শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন
  • কলারোয়ায় বাস ও ইঞ্চিনচালিত করিমনের সংঘর্ষে আহত ২
  • কলারোয়ায় ফিরোজ আহম্মেদ স্বপনের নেতৃত্বে আ.লীগের কাউন্সিল সম্পর্কিত প্রস্তুতি সভা