শনিবার, মে ৩০, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

কলারোয়ায় সরিষা ফুলের গন্ধে মৌ-মৌ ফসলী মাঠ ।। মধু সংগ্রহে মৌ চাষীরা

কলারোয়ায় সরিষা ফুলের গন্ধে মৌ-মৌ ফসলী মাঠ। আর মধু সংগ্রহে ব্যস্ত মৌ চাষীরা।

ছয় ঋতুর এই দেশে ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে বদলে যায় ফসলের মাঠের চিত্র। এর ধারাবাহিকতায় সবুজ মাঠ হয়েছে হলুদে ভরপুর।

শুক্রবার দিনভর ছিটেফোঁটা বৃষ্টিতেও সরিষার হলুদ ফসলী মাঠ অন্যরকম দৃশ্যে রূপ নিয়েছে।

এবার শীতে সরিষা ফুলের নয়নাভিরাম দৃশ্য পাল্টে দিয়েছে কলারোয়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের ফসলের মাঠ। উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকায় এ মৌসুমে সরিষার চাষ করতে দেখা গেছে। চারিদিকে এখন শুধু হলুদ সরিষা ফুলের বর্ণিল সমারোহ।

মাঠজুড়ে সরিষা ফুলের মৌ-মৌ গন্ধ। মৌমাছির গুন গুন শব্দে ফুলের রেণু থেকে মধু সংগ্রহ আর প্রজাপতির এক ফুল থেকে আরেক ফুলে ধেয়ে চলার অপরূপ প্রাকৃতিক দৃশ্য মনোমুগ্ধকর।

গত কয়েকদিনের সকালের মিষ্টি রোদ আর বিন্দু বিন্দু শিশির ছুঁয়ে যায় ফুলগুলোকে। সরিষা ফুলের হলুদ হাসিতে রঙিন এখন কলারোয়া পৌরসদরের পাশাপাশি উপজেলার চন্দনপুর, সোনাবাড়িয়া, লাঙ্গলঝাড়া, কেঁড়াগাছি, কেরালকাতা, জয়নগর, দেয়াড়া, হেলাতলা, কুশোডাঙ্গা, জালালাবাদ, কয়লা, যুগিখালী ইউনিয়নের বিস্তির্ন ফসলের মাঠ। সরিষার ফুল যেন দিক-দিগন্ত রাঙিয়ে দিয়েছে। প্রকৃতি যেন হলদে শাড়ি পরা তরুণীর সাজে সজ্জিত হয়ে নতুন রূপে আবির্ভূত হয়েছে।

কৃষকরা জানিয়েছেন- সরিষা চাষে খরচ কম, কিন্তু লাভ বেশি। ফলে কৃষকরা সরিষা চাষে আগ্রহী। এ মৌসুমে অনেক কৃষক সরিষা ক্ষেতে শাক উৎপাদন করেও আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার প্রত্যাশা করছেন। সরিষার তেলের চাহিদা থাকে সারা বছর। তাই সারা বছরই থাকে সরিষার চাহিদাও। দামও পাওয়া যায় ভালো। অনেক এলাকাতেই ধানসহ অন্যান্য ফসল চাষে খরচ বেড়ে যাওয়া এবং ন্যায্য দাম না পাওয়ায় সরিষা চাষের দিকে ঝুঁকছেন চাষীরা।

তারা আরো জানিয়েছেন- বিগত বছরগুলোতে সরিষার ফলন ভালো হওয়ায় এবারো বেড়েছে সরিষার চাষাবাদ। তাই চলতি মৌসুমে পাল্টে গেছে উপজেলার দিগন্তজোড়া মাঠের চিত্রও।

এদিকে, সরিষা চাষাবাদের সময় মাঠজুড়ে মধু সংগ্রহে ব্যস্ত সময় পার করেন মৌ বা মধুচাষীরা। বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, সরিষা ক্ষেতের এক পাশে কিংবা মাঝ বরাবর মধুচাষীর অনেক গুলো বাক্স নিয়ে শুরু করেছেন মধু সংগ্রহের কাজ। মৌমাছি সরিষা ফুল থেকে মধু সংগ্রহ করে বাক্সে এনে মৌ চাকে জমা করে, বাক্সে থাকে রাণী মৌমাছি।

কয়েকজন মৌ চাষীরা জানান- প্রতি সরিষা মৌমুমে মধু সংগ্রহ ও ব্যবসা চলে রমরমা। অন্যান্য বছর এ মৌসুমে মধু সংগ্রহ ও বিক্রি করে তারা অর্থ উপার্জন করে থাকেন।

তারা আরো জানান- মৌ চাষে খরচ কম, লভ্যাংশ বেশি। তাই এ ব্যবসায় বেকার লোকজন তাদের কর্মসংস্থান তৈরির সুযোগ পাচ্ছেন।

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়ার কোমরপুরে ৪০০ পরিবারের মাঝে বিনামূল্যে হোমিওপ্যাথিক ওষুধ বিতরণ

কলারোয়া হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উদ্যোগে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধেবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ার বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ না থাকায় ফোনের ব্যাটারি চার্জ দিতে লম্বা লাইন

সুপার সাইক্লোন আম্পানের তাণ্ডবে এখনও বিদ্যুৎবিহীন সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার অনেকবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় মসজিদে অযাচিত হস্তক্ষেপের প্রতিবাদ স্থানীয়দের

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার হেলাতলার জাফরপুর গ্রামের মসজিদের দুই জমিদাতার ৫বিস্তারিত পড়ুন

  • কলারোয়ার লাঙ্গলঝাড়ায় ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে তরুন স্বেচ্ছাসেবক শাওন
  • কলারোয়ায় মাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা!
  • কলারোয়ার সোনাবাড়ীয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৩
  • গাছ বিক্রিকে কেন্দ্র করে কলারোয়ার ধানদিয়া মিশনে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৪
  • কলারোয়ায় ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ বিদ্যুতহীনতার রেশ এখনো কাটেনি, কাজ চলছে জোরেশোরে
  • সাতক্ষীরায় আরো ৪ জন করোনা শনাক্ত, এ পর্যন্ত ৪১জন, সুস্থ ৩
  • করোনা আর আম্পানের তান্ডবে জামাইষষ্ঠীর দফারফা!
  • কলারোয়ায় মাছে ঘেরে বিষ দিয়ে ৪৪ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন, ঘের মালিক দিশেহারা
  • কলারোয়ায় মা ছেলে করোনায় আক্রন্ত, মোট আক্রান্ত ৬
  • কলারোয়ায় পুত্রের হাতে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে পিতার মৃত্যু
  • ৪জন করোনা শনাক্ত: কলারোয়ার চন্দনপুর ইউনিয়ন লকডাউনের অনুরোধে চিঠি
  • কলারোয়ার প্রাক্তন আনসার ভিডিপি সদস্য আবুল কাশেম আর নেই