শনিবার, জুলাই ১১, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

কেশবপুরে জমি বিরোধে ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে বড় ভাইয়ের সংবাদ সম্মেলন

যশোরের কেশবপুর পৌর শহরের আলতপোল এলাকায় ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে বড় ভাইয়ের সম্পত্তি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে স্থানীয়ভাবে মিমাংসার কথা বলে একটি কুচক্রি মহলের সহায়তায় বড় ভাইকে মারপিট ও তার বসত বাড়ি ভাংচুর করা হয়েছে। এ বিষয়ে কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, পৌর শহরের আলতাপোল এলাকার মৃত রওশন আলী বিশ্বাসের ছেলে আলমগীর কবীর দীর্ঘদিন ধরে মাছের আড়তের ব্যবসা করে আসছেন। তার ছোট ভাই আবুল কালাম আজাদ চোরাই পথে মালয়েশিয়া যেয়ে কম বেতন পাওয়ায় দেশে বসবাসকারী স্ত্রী ও সন্তান সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছিলেন। ওই সময় তার মাতা রাশিদা বেগম ও বোন জেসমিন বেগমের অনুরোধে বড় ভাই আলমগীর কবীর তার ছোট ভাইকে দেশে ফিরিয়ে এনে তার মাছের আড়ৎে একত্রে ব্যবসা করতে থাকেন। এসময় ছোট ভাই ২৬ হাজার টাকা ও বাড়ির তৈরিতে খরচ বাবদ ৩ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা এবং ভাগ্নে আল আমিনের নিকট থেকে ১ লক্ষ টাকা ধার নিয়ে মোট ৪ লক্ষ ৬৩ হাজার টাকা প্রদান করে ব্যবসায়িক পার্টনার হিসেবে ব্যবসা শুরু করেন। দীর্ঘদিন একসাথে ব্যবসা করার পর দুই ভাইয়ের মধ্যে মনোমালিন্য শুরু হলে ব্যবসায়িক হিসাবে ছোট ভাই আবুল কালাম আজাদ ৯ লক্ষ ২৬ হাজার টাকা পেতে যায়। ওই টাকার মধ্যে একটি চেকের মাধ্যমে ৩ লক্ষ টাকা নিয়ে বাকি টাকার জন্য প্রতি মাসে ৯ হাজার টাকা লভ্যাংশ ও মাছের কয়েলদারী অংশের টাকা নিতে থাকে। কয়েকমাস এভাবে টাকা নেয়ার পর গত ০৫ মে আবুল কালাম আজাদ তার বড় ভাইয়ের মাছের আড়তে (জননী ফিস) এসে পুনরায় ব্যবসায়িক হিসাব করতে বলে উত্তেজিত হয়ে আড়তের টেবিল চেয়ার ভাংচুর এবং বড় ভাই আলমগীর কবীরকে মারপিট করে আহত করে। খবর পেয়ে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে আবুল কালাম আজাদ পালিয়ে যায়। ওইদিন বিকেলে আবুল কালাম আজাদ স্থানীয় কিছু কুচক্রি মহলের সহায়তায় বড় ভাই আলমগীর কবীরের বাসার নিচতলার একটি ঘর দখলের চেষ্টা করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। পরবর্তীতের থানা পুলিশের নির্দেশে স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মিমাংমার জন্য উভয়পক্ষের উপস্থিতিতে বসাবসি করা হয়। এসময় সেখানে উপস্থিত রবিউল, হান্নান ও কামরুজ্জামানের ইন্ধনে আবুল কালাম আজাদ তার বড় ভাই আলমগীর কবীরকে আবারো মারপিট করে আহত করে। এসময় একদল সন্ত্রাসী আলমগীর কবিরের বসত ঘরের পাচিল ভেঙ্গে দেয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ উপস্থিত হলে তারা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।
কেশবপুর থানার অফিসা্র ইনচার্জ জসিম উদ্দীন বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

১১জুলাই: যবিপ্রবির ল্যাবে ৬০ জনের করোনা পজিটিভ, সাতক্ষীরার ১৫ জন

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টারে ১১ জুলাই,বিস্তারিত পড়ুন

দেশের সবচেয়ে বড় ষাঁড় মণিরামপুরের বাংলার বস ও বাংলার সম্রাট!

আসন্ন কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে হৃষ্টপুষ্ট হয়ে উঠেছে মণিরামপুরের ‘বাংলারবিস্তারিত পড়ুন

মনিরামপুরে চলন্ত ট্রাক থেকে কাঠেরগুঁড়ি পড়ে পথচারী নারীর মৃত্যু

মণিরামপুরে চলন্ত ট্রাকের উপর থেকে কাঠেরগুঁড়ি পড়ে কোহিনুর বেগম (৪৫)বিস্তারিত পড়ুন

  • মনিরামপুরে চিকিৎসকসহ একদিনে ১৩জন করোনা পজিটিভ
  • করোনা দূর্যোগে ভাল নেই শার্শার কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষকরা
  • মনিরামপুরে জনসাধারণের দূর্ভোগ কমাতে নিজ উদ্যোগে রাস্তা সংস্কার করলেন কৃষকলীগ নেতা হারুন
  • কেশবপুর উপনির্বাচনে শাহীন চাকলাদাকে বিজয়ী করতে গণসংযোগ
  • যবিপ্রবির ল্যাবে ১০ জুলাই ৫৯ জনের কোভিড-১৯ পজিটিভ
  • সাতক্ষীরা জেলায় আরো দুই চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী ও পুলিশসহ ২৪ জন করোনা শনাক্ত
  • খুলনা বিভাগে আরও ২৬১ জন কোভিড রোগী শনাক্ত
  • শার্শায় দীর্ঘদিনেও পাননি পেনশনের টাকা, মারাই গেলেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক
  • সেনাবাহিনীর উদ্যোগে গর্ভবতী মায়েদের চিকিৎসাসহ জনমুখী সেবা
  • ৯ জুলাই : যবিপ্রবির ল্যাবে ৭৯ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত
  • বেনাপোল সীমান্তে ফেন্সিডিলসহ যুবক আটক
  • কেশবপুর থানার বকসি সহ ৬ ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত