শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

আরো খবর....

কেশবপুরে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগির মৃত্যু

যশোরের কেশবপুরে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে আব্দুল কুদ্দুস(৬০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

সে উপজেলার বরণডালি গ্রামের মুক্তার আলীর ছেলে।

মৃতের পারিবারিক সুত্র জানায়, গত ৩০ আগষ্ট ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হলে আব্দুল কুদ্দুসকে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় ঐ দিনই তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধিন থাকাকালীন রোববার সকালে তার মৃত্যু হয়।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

যশোরের কেশবপুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে।
যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা সূত্রে জানা গেছে, কেশবপুর উপজেলার ৭২ নং আলতাপোল মৌজা, ৮৪ নং বসুন্দিয়া মৌজা ও ৮৫ নং মঙ্গলকোট মৌজায় পাশ দিয়ে প্রবাহিত বুড়িভদ্র নদী পুনঃখননের সময় সাভেয়ার দিয়ে পরিমাপ করে নদীর ৬৬ ফুট প্রস্থ বাদেও ঐ এলাকাবাসির রেকর্ড ভুক্ত সম্পত্তি ২০ ফুট গ্রহণ করে। জনগণ চাষাবাদের স্বার্থে স্বতঃস্ফুর্ত হয়ে তাদের আবাদকৃত জমি ২০ ফুট করে ছেড়ে দেয়। খনন কাজের সময় ঠিকাদার ও তাদের লোকজন গাড়ী চলাললের জন্য ২০ ফুট করে বকচর তৈরী করে এবং নদী খনন করে ৬০/৭০ ফুট জমিতে নদী খননের মাটি রাখে। যা পারে সরিয়ে নেওয়ার কথা রয়েছে। ৪ মাস অতিবাহিত হওয়ার পরও ঠিকাদার কর্তৃপক্ষ ব্যাক্তি মালিকাধীন সম্পত্তি হতে মাটি না সরিয়ে নেওয়ায় সম্পত্তির মালিকরা মাটি সমান করে উক্ত সম্পত্তিতে শিম, কপি, বেগুন, পানের বরজ-সহ বিভিন্ন প্রকার সব্জির চাষ করে জিবিকা নির্বাহ করছে। কিন্তু গত ২১ আগস্ট পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী-সহ ৪০/৫০ জন লোক স্কেভেটর নিয়ে বিনা নোটিশে কৃষকদের আবাদকৃত জমির ফসলাদি নষ্ট করে গাছ লাগানোর চেষ্টা করে। যার ফলে কৃষকদের আবাদকৃত ফসলের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়। এব্যাপারে ভুক্তোভেগি এলাকাবাসি পানি উন্নয়ন বোর্ডে দরখাস্ত করেও কোন প্রতিকার পায়নি। পুনরায় পানি উন্নয়ন বোর্ড আরও লোকজন নিয়ে কৃষকদের আবাদকৃত ফসলের ক্ষতি করে গাছ লাগানোর পায়তারা চালাচ্ছে। যার ফলে ঐ এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে এবং রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে। এব্যাপারে এলাকাবাসির পক্ষে আলতাপোল গ্রামের মৃত দিলীপ কুমার ঘোষের পূত্র মিহির চন্দ্র ঘোষ বাদী হয়ে গত ২৮ আগস্ট পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। যার নং পি-৯০১/১৯। বিজ্ঞ আদালত উক্ত সম্পত্তিতে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহিন-কে দায়িত্ব প্রদান করেছেন।

একই রকম সংবাদ সমূহ

যুব ক্রিকেট বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলের অলরাউন্ডার মৃত্যুঞ্জয়কে কলারোয়ায় পথে পথে সংবর্ধনা

২০২০ আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতমবিস্তারিত পড়ুন

ঝিকরগাছার গদখালিতে ৪র্থ বারের মতো ফুলের মেলা অনুষ্ঠিত

যশোরের ঝিকরগাছায় ফুলের মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৪র্থ বারের মতো বাংলাদেশেরবিস্তারিত পড়ুন

শার্শায় দূর্ঘটনায় কলারোয়ার শ্রীরামপুর হাইস্কুলের পিকনিক বাস।। নিহত ১, আহত ২০

কলারোয়ার শ্রীরামপুর হাইস্কুলের পিকনিক বাসের সাথে আরেক বাসের সংঘর্ষে চালকবিস্তারিত পড়ুন

  • কেশবপুরে আ.লীগের প্রার্থী শাহীন চাকলাদারের বিশাল কর্মী সমাবেশ
  • কেশবপুরে দখলমুক্ত করে দুধ দিয়ে ধোয়া হলো কৃষকলীগের কার্যালয়
  • কেশবপুরের গৌরীঘোনায় অষ্ট প্রহরবাপী মহানাম সংকীর্ত্তন অনুষ্ঠিত
  • বেনাপোলে আনসার সদস্য ও হ্যান্ডলিং শ্রমিকদের দফায় দফায় সংঘর্ষ
  • রাজগঞ্জের ভাসমান সেতু সংলগ্ন দোকানে চুরি
  • ঝিকরগাছায় মুজিববর্ষের আয়োজন ও শহীদ মিনার পরিদর্শনে নবাগত ইউএনও
  • সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ: রাজগঞ্জে ক্রয়কৃত জমি দখল নিতে বাধা ও হুমকি
  • কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতির রাজগঞ্জে পথসভা ও সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়
  • শাহীন চাকলাদরকে আ.লীগের মনোনয়নে কেশবপুরে মিষ্টি বিতরণ
  • কেশবপুরে ধর্ষিতার পাশে দাঁড়ালেন নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম
  • মনিরামপুরের রাজগঞ্জে ওয়াজ মাহফিল থেকে প্রধান বক্তা আটক
  • বেনাপোলে পুলিশের পৃথক অভিযান গাজা ও হিরোইনসহ গ্রেফতার-২