শুক্রবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২৩

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

ট্রাকের চাপায় যবিপ্রবির শিক্ষার্থী জাহিদ হাসান গুরুতর আহত

চুয়াডাঙ্গা থেকে যশোর আসার পথে ট্রাক চাপায় পড়ে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ জাহিদ হাসান গুরুতর আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক সাড়ে ৯ টার দিকে মহেশপুর-খালিশপুর রোডে বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ব্যক্তিগত কাজে মোটরসাইকেলযোগে জাহিদ এবং তার দুই ছোট ভাই মোঃ ফয়সাল আহমেদ ও মোঃ আবু সাঈদ চুয়াডাঙ্গা থেকে যশোরে আসছিলেন। আসার পথে একই দিক থেকে আসা চলমান বালির ট্রাক পেছন থেকে এসে চাপা দিয়ে চলে যায়। এর ফলে জাহিদ মোটরসাইকেলসহ রাস্তায় বেশ কিছুটা ঘষা খায়। এর ফলে তার মাথায় চোট, হাত ছুলে যাওয়া এবং বাম পায়ের হাঁটুর কাছাকাছি অংশে মাংস কেটে পড়ে যায়, পায়ের লিগামেন্ট অনেকগুলো ছিড়ে যায় এবং প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। জাহিদ গুরুতর আহত হলেও বাকি দুজন হাতে মাথায় পায়ে সামান্য চোট পেয়েছেন এবং সুস্থ আছেন তারা।

দুর্ঘটনা ঘটার সাথে সাথে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় অ্যাম্বুলেন্সে করে যশোর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় জাহিদকে চিকিৎসার জন্য। যশোর সদর হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায় তার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন এবং সেটা যশোরের সম্ভব নয়। এ কারণে উন্নত চিকিৎসার লক্ষ্যে জাহিদকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে আরো জানা যায়, খুব সম্ভবত জাহিদের বাম পায়ের নিচের অংশ কেটে ফেলা লাগতে পারে। তবে ঢাকাতে পৌঁছে অপারেশন হলে আরো সঠিকভাবে জানা যাবে।

বন্ধু সূত্রে জানা যায়, সদর চুয়াডাঙ্গা জেলার পদ্মবিলা ইউনিয়নের ধুতুরহাট গ্রামের ছেলে মোঃ জাহিদ হাসান যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পেট্রোলিয়াম ও মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী এবং শহিদ মসিয়ূর রহমান হলের আবাসিক ছাত্র। বর্তমান পরিস্থিতির কারণে সে তার গ্রামের বাসায় অবস্থানকরছে।তার বাবা মোঃ কামাল উদ্দিন একজন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা এবং বর্তমানে ওয়ার্ড মেম্বারের দায়িত্ব পালন করছেন।

দুর্ঘটনার প্রত্যক্ষ সাক্ষী, যারা জাহিদের সাথে মোটরসাইকেলেই ছিলেন তারা দুজন ও সদর চুয়াডাঙ্গা জেলার পদ্মবিলা ইউনিয়নের ধুতুরহাট গ্রামের মোঃ মশিউর রহমানের ছেলে মোঃ ফয়সাল আহমেদ এবং আনিস উদ্দিনের ছেলে মোঃ আবু সাঈদ। তারা দুজন এখন মোটামুটিভাবে সুস্থ আছেন।

একই রকম সংবাদ সমূহ

আগুনে পুড়ে ছাই নলতার মুক্তিযোদ্ধা ফার্নিচার

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা চৌমুহনী বাজারে আগুন লেগে ১টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়েবিস্তারিত পড়ুন

চট্টগ্রামে ইচ্ছা মানব উন্নয়ন সংস্থার আলোচনা সভা

চট্টগ্রামে ইচ্ছা মানব উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মান, জলবায়ু পরিবর্তন ওবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় সনাতনীদের বাড়িতে ও মন্দিরে সরস্বতী পুজা অনুষ্ঠিত

কলারোয়ায় সনাতনীদের বাড়িতে ও মন্দিরে চলছে সরস্বতী দেবীর পুজার প্রস্তুতি। ভক্ত ওবিস্তারিত পড়ুন

  • কালিগঞ্জে সরস্বতী পূজায় দু’টি মন্ডপে ৭ দিনব্যাপী আয়োজন
  • যশোরের শার্শায় ৭০টি স্বর্ণের বারসহ ২ পাচারকারী আটক
  • সৌদিতে নির্যাতনের শিকার রোজিনার দেশে ফেরার আকুতি
  • শার্শায় এই প্রথম লাঠি মরিচ চাষে স্মার্ট কৃষক রাজার সফল্য
  • বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশের অভিযানে পরোয়ানাভুক্ত ১০ আসামী আটক
  • মহান জাতীয় সংসদে এমপিদের পেনশন চালুর দাবী জানালেন বীর মুক্তিযোদ্ধা এমপি রবি
  • কলারোয়ার দক্ষিণ জয়নগরে একটি ল্যাম্পপোষ্টের অভাবে পুজামন্দিরটি অরক্ষিত
  • কলারোয়ায় ‘ভুয়া’ এনএসআই কর্মকর্তা আটক
  • কলারোয়ায় বাল্যবিবাহ, মাদক ও পাচার রোধে কর্মশালা
  • বেনাপোলে বিজিবি-বিএসএফ সীমান্ত সম্মেলন
  • কলারোয়ার সাইদুর নির্বাচন কমিশন বিটের সাংবাদিকদের সভাপতি নির্বাচিত, শুভেচ্ছা জ্ঞাপন
  • নড়াইলের প্রবীন সাংবাদিক প্রদ্যোৎ মুখার্জীর আউড়িয়া মহাশশ্মানে সৎকাজ সম্পন্ন
  • error: Content is protected !!