রবিবার, মে ৩১, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

ডুমুরিয়ায় করোনা আক্রান্ত রোগির জন্যে ইউএনও’র উপহার

সম্প্রতি ডুমুরিয়া উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হওয়া রোগীর জন্য ভালোবাসার উপহার হিসেবে বিভিন্ন ফল ও ঈদ সামগ্রী পাঠালেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা: শাহনাজ বেগম।

শুক্রবার সকালে উপজেলার আন্দুলিয়া গ্রামের করোনা যোদ্ধা এক সেবিকার বাড়িতে প্রতিনিধির মাধ্যম এ উপহার সামগ্রী পাঠিয়ে দেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত এপ্রিল মাস পর্যন্ত সারাদেশে করোনা রোগী সনাক্ত হলেও ডুমুরিয়া উপজেলাতে কোন করোনা রোগী শনাক্ত ছিল না। কিন্তু গত ১৮মে তারিখে উপজেলার আন্দুলিয়া এলাকার বাসিন্দা একজন সেবিকার প্রথম করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসে এবং এর পরবর্তীতে গত ২১মে তারিখে উপজেলার হাসানপুর এলাকার আরেকজন ছাত্রের করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। এ পর্যন্ত উপজেলার মোট ৫৩ জন লোকের নমুনা পরীক্ষা করানো হয়েছে। তার মধ্য থেকে ২জনের পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

তবে দেশে কোরোনা ভাইরাসের প্রভাব দেখা দেয়ার পর থেকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে কর্মহীন অসহায় মানুষের জন্যে মানবিক সহায়তা হিসেবে সারকারিভাবে খাদ্য সহয়াতা, শিশু খাদ্য বিতরণের পাশাপাশি উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় গঠন করা হয়েছে ‘বেসরকারি মানবিক সহায়তা সেল। যার মাধ্যমে সমাজের সামর্থবানদের কাছ থেকে খাদ্য সামগ্রী সংগ্রহ করে পৌঁছানো হচ্ছে অসহায় মানুষের কাছে।

সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা, জনসাধারণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি, ঘরে খাবার না থাকা লোকদের বাড়িতে বাড়িতে খাবার পৌঁছানো এবং যারা দেশের বাহিরে থেকে বা অন্য জেলা থেকে আসছে তাদের হোমকোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করার পাশাপাশি খাবারের ব্যবস্থাও করা হচ্ছে।

সরকারি নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে আইনের আওতায় এনে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করাসহ আক্রান্ত রোগীদের ব্যাপারে কেউ যেন তাদের সাথে অমানবিক আচরণ না করে সেদিকে খেয়াল রাখা, চিকিৎসার ব্যাপারে সার্বিক খোঁজ খবর নেয়া ও খাবার পৌঁছানো হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় এবার ঈদকে সামনে রেখে ভালোবাসার উপহার হিসেবে বিভিন্ন ফল এবং ঈদের জন্যে সিমাই, চিনি, গুঁড়াদুধসহ নানা রকমের খাদ্যদ্রব্য।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. শাহানাজ বেগম বলেন, মরণব্যাধি করোনা ভাইরাসের আক্রমণ শুধু আমাদের দেশেই নয় এটা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। আর আক্রান্ত রোগীর পাশে দাঁড়ানো আমাদের মানবিক দায়িত্ব। কেউ যেন এই রোগে আক্রান্ত হয়ে তার মনোবল হারিয়ে না ফেলে সেদিকটা বিবেচনা করেই আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি এবং সব সময় খোঁজখবর রাখছি। আক্ররান্তরা যেন মনোবল উঁচু রেখে সুস্থ হয়ে উঠতে পারে তার সার্বিক সহযোগিতা আমরা করে যাচ্ছি।

একই রকম সংবাদ সমূহ

করোনা ও ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে যশোর সেনানিবাস

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রতিটি জেলা-উপজেলা এমনকি গ্রামপর্যায়েও সাধারণবিস্তারিত পড়ুন

করোনা ও আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের পাশে সেনাবাহিনী

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তায় উপকূলবর্তী এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় নিরলসভাবেবিস্তারিত পড়ুন

করোনা ও আম্পান মোকাবেলায় যশোর সেনানিবাসের জনসেবামূলক কার্যক্রম অব্যাহত

করোনার প্রকোপে যখন সমগ্র বাংলাদেশ বিপর্যস্ত ঠিক তখনই দেশের উপরবিস্তারিত পড়ুন

  • করোনা আর আম্পানের তান্ডবে জামাইষষ্ঠীর দফারফা!
  • করোনা ও আম্পান মোকাবেলায় ভাগ্যবিড়ম্বিত মানুষের পাশে সেনাবাহিনী
  • অসহায় এবং দুস্থ মানুষের পাশে থেকে ঈদ উদযাপন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর
  • নড়াইলে বিপন্ন মানুষের পাশে সিটি ব্যাংক
  • নড়াইলে বিভিন্ন মসজিদে সামাজিক দূরত্ব মেনে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত
  • খুলনার কয়রায় হাটু পানিতে ঈদের নামাজ আদায়
  • ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের পাশে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
  • কলারোয়ায় ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে খুলনা বিভাগীয় কমিশনার
  • ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাধ মেরামত করবে সেনাবাহিনী: খুলনার বিভাগীয় কমিশনার
  • ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের তান্ডবে কলারোয়া লন্ডভন্ড
  • আম্পান পরবর্তী জরুরি উদ্ধার, ত্রাণ ও চিকিৎসা সহায়তায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী