বৃহস্পতিবার, জুলাই ৯, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

দিনাজপুরের মাটি ও বাঁশের তৈরি স্কুলের বিশ্বজয়

একেবারে অজপাড়াগাঁয়ের স্কুল। মাটি ও বাঁশের তৈরি। কিন্তু এটির নাম ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে। কারণ স্কুলটির ভিন্নধর্মী নির্মাণশৈলী। এই নান্দনিক শিল্পের জন্য আগা খান আর্কিটেকচার অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে। তবে শুধু স্থাপত্যেই স্বাক্ষর রাখেনি স্কুলটি, শিক্ষাতেও ছাপ রেখে চলেছে।দিনাজপুরের বিরল উপজেলার মোঙ্গলপুর ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামে স্কুলটির অবস্থান। ‘দীপশিখা’ নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করে। এটির নাম দেয়া হয় ‘দীপশিখা মেটি স্কুল’।

আনন্দের মাধ্যমে শিক্ষাদান, শিক্ষার প্রতি স্থায়ী ও ইতিবাচক মনোভাব সৃষ্টি, যুক্তিযুক্ত চিন্তার বিকাশ ও দলীয়ভাবে শিক্ষাগ্রহণ—এসবই স্কুলটির প্রধান উদ্দেশ্য।দ্বিতল এ স্কুলের বৈশিষ্ট্য হলো- কক্ষে শিক্ষার্থীরা গরম-শীতের অনুভূতি তীব্রভাবে অনুভব করে না। আলো-বাতাসের আগমনে স্বাস্থ্যও ভালো থাকে। কক্ষগুলোও পরিবেশবান্ধব।১৯৯৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর রুদ্রাপুর গ্রামের ছোট্ট পরিসরে ‘মেটি স্কুল’ গড়ে তোলে। তবে আলোচিত এই স্থাপনাটির নির্মাণ শুরু হয় ২০০৫ সালের সেপ্টেম্বরে। এই স্কুলটি নির্মাণে ব্যবহার করা হয়েছে মাটি, খড়, বালু ও বাঁশ, দড়ি, খড়, কাঠ, টিন, রড, ইট ও সিমেন্ট। মাটি ও খড় মেশানো কাদা দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এর দেয়াল।দেয়ালের ভিতের ওপর দেয়া হয়েছে আর্দ্রতারোধক। দেয়ালের প্লাস্টারে ব্যবহার করা হয়েছে মাটি ও বালু। মেঝের প্লাস্টারে পামওয়েল ও সাবানের পেস্ট ব্যবহার করা হয়েছে, যা সাধারণভাবে ওয়াটারপ্রুফ। ৯ ফুট উচ্চতার ওপরে প্রথম তলায় ছাদ হিসেবে বাঁশ বিছিয়ে ও বাঁশের চাটাই দিয়ে মাটির আবরণ দেয়া হয়েছে। ওপরে বৃষ্টির পানির জন্য দেয়া হয়েছে টিন।মেটি স্কুল ছয় কক্ষ বিশিষ্ট মাটির তৈরি একটি দোতলা ভবন।

এর আয়তন ৮ হাজার বর্গফুট। ভবনটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১৭ লাখ টাকা। অথচ ইট-সিমেন্টের এমন একটি বিল্ডিং তৈরিতে ব্যয় হবে ৯০ লাখ থেকে ১ কোটি টাকা।জার্মানির ‘শান্তি’ দাতা-সংস্থার অনুদানে এই স্কুল নির্মিত হয়। অস্ট্রিয়ার লিজ ইউনিভার্সিটির ছাত্ররা এ স্কুল নির্মাণে অবদান রাখেন। সহযোগিতা করেন দীপশিখা প্রকল্পের কর্মীরা। জার্মান আর্কিটেক্ট আন্না হিয়ারিংগার ও আইকে রোওয়ার্গ এর তত্ত্বাবধান করেন।২০০৭ সালে বিশ্বের ১৩টি স্থাপত্যের সঙ্গে মেটি স্কুলকে আগা খান অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করা হয়। পুরস্কার হিসেবে দীপশিখাকে ১৩ হাজার ৭০০ মার্কিন ডলার। এছাড়া আর্কিটেক্ট আন্না হিয়ারিংগারকে ১৬ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার ও আর্কিটেক্ট আইকে রোজওয়ার্গকে ৮ হাজার ২০০ ডলার দেয়া হয়।

একই রকম সংবাদ সমূহ

হাফিজিয়া মাদরাসা খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার

স্বাস্থ্যবিধি মেনে দেশের হিফজ মাদ্রাসাগুলো খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।বিস্তারিত পড়ুন

এইচএসসি-২০২০ নিয়ে পরীক্ষার্থীদের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা

বিশ্বব্যাপী এক ভয়াবহ আতঙ্ক “করোনা ভাইরাস”। ধীরে ধীরে এক দানববিস্তারিত পড়ুন

শার্শায় ৫০টি কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষকদের অবস্থান ধর্মঘট

যশোরের শার্শা উপজেলায় করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্থ কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলোর জন্য প্রধানমন্ত্রীরবিস্তারিত পড়ুন

  • কলারোয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রী শিশু তামান্নার মৃত্যু বার্ষিকী
  • যবিপ্রবির সহকারী হিসাব রক্ষক করোনায় আক্রান্ত
  • কবিতা: “অনুভবের দরজায়”
  • ‘শর্ত শিথিল করে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিও দেয়া হবে’
  • করোনায় সংকুচিত হচ্ছে চাকরির বাজার, বাড়ছে বেকারত্ব
  • ‘অনলাইন ক্লাস নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ভাবনা’ (শেষ পর্ব)
  • কবিতা : “বাদল ধারা”
  • ১০ হাজার স্কুলে হবে ছোট বাগান
  • শিক্ষার্থীদের স্বার্থে বিনামূল্যে ইন্টারনেট প্যাকেজ প্রদানের আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর
  • নিয়োগ নিয়ে প্রাথমিকে বিশাল সুখবর
  • প্রণব ঘোষ বাবলু আবারো তালার খলিলনগর হাইস্কুলের সভাপতি
  • ‘অনলাইন ক্লাস নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ভাবনা’ (পর্ব-১)