শুক্রবার, নভেম্বর ২২, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

দেশের মাটিতে খোকার মরদেহ, মানুষের ঢল

দেশের মাটিতে সদ্যপ্রয়াত বিএনপি নেতা ও অবিভক্ত ঢাকার শেষ মেয়র সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ। তাঁকে শেষবারের মতো দেখতে ও শ্রদ্ধা জানাতে মানুষের ঢল নামে।

বৃহস্পতিবার সকালে তাঁর মরদেহ ঢাকায় পৌছায়।

বেলা ১২টার দিকে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হয় বিএনপি নেতা ও অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ।
সেখানে তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে সর্বস্তরের মানুষের ঢল নামে।

এরআগে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় সাদেক হোসেন খোকার জানাযার নামায অনুষ্ঠিত হয়।

সংসদ চত্বরে খোকার প্রথম জানাজা

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের শেষ মেয়র সাদেক হোসেন খোকার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায়।

বেলা ১১টার দিকে অনুষ্ঠিত এই জানাজায় আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, বিএনপি, ওয়ার্কার্স পার্টি, এলডিপির জ্যেষ্ঠ নেতা-কর্মী, সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা-কর্মচারীরা অংশ নেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টায় এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায় মুক্তিযোদ্ধা খোকার কফিন।

নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যান্সার সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার মারা যান বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খোকা। তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।

সোমবার নিউ ইয়র্কে কুইন্সের জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে খোকার জানাজা হয়।

ঢাকায় প্রথম জানাজার পর খোকার মরদেহ নেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত তার মরদেহ রাখা হয় সর্স্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য।

এরপর বাদ জোহর নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে, বিকাল ৩টায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নগর ভবন এবং বাদ আসর ধুপখোলা মাঠে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

নগর ভবনের জানাজা শেষে দাফনের আগে গোপীবাগের বাসায় মরহুমের কফিন কিছুক্ষণ রাখা হবে।

চতুর্থ জানাজার পর সাদেক হোসেন খোকাকে জুরাইন কবরস্থানে বাবা-মায়ের কবরের পাশে দাফন করা হবে বলে জানান রিজভী।

সংসদ চত্বরে জানাজায় অংশ নিতে এসে আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা তোফায়েল আহমেদ মুক্তিযুদ্ধে খোকার অবদানের কথা স্মরণ করেন।

তিনি বলেন, “আমাদের মধ্যে রাজনৈতিক মত-পার্থক্য থাকলেও ব্যক্তিজীবনে তিনি চমৎকার মানুষ ছিলেন। বিনয়ী ও মার্জিত আচরণের ব্যক্তি ছিলেন। ব্যক্তিজীবনে আমাদের প্রত্যেক্যের ত্রুটি রয়েছে। সাদেক হোসেন খোকা মানুষ হিসেবে ছিলেন অমায়িক ও ভদ্র।”

পরিবারের পক্ষে খোকার ছেলে ইশরাক হোসেন জানাজার আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, “সব দলের নেতা-কর্মীরা আমার বাবার জানাজায় অংশ নিয়েছেন- এতে প্রমাণ হয় তিনি সার্বজনীন রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তিনি ট্রাভেল ডকুমেন্ট নিয়ে দেশে ফিরেছেন। বাংলাদেশের পাসপোট তিনি পাননি। এটা তার জীবনের আক্ষেপ ছিলে। তিনি বাংলাদেশে তার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করতে পারেননি।”

জানাজা শেষে বিরোধী দলীয় নেতার পক্ষে বিরোধী দলীয় প্রধান হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গাঁ খোকার কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

এছাড়া ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের পক্ষে মেয়র আতিকুল ইসলাম, এলডিপির চেয়ারম্যান অলি আহমেদ, বিএনপির সংসদ সদস্যরা এবং দলের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে কফিনে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

জানাজায় আরও অংশ নেন বিকল্পধারার চেয়ারম্যান একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, বিএনপি নেতা আব্দুল মঈন খান, মওদুদ আহমেদ, জয়নুল আবদীন ফারুক, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, ওয়ার্কার্স পার্টির রাশেদ খান মেনন, জাতীয় পার্টির কাজী ফিরোজ রশীদ, ফখরুল ইমাম, হাজি সেলিম, আসম ফিরোজ, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের কাদের সিদ্দিকী প্রমুখ।

সকালে দেশে পৌঁছায় খোকার মরদেহ

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টায় এমিরেটসের একটি ফ্লাইটে দুবাই হয়ে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায় এই মুক্তিযোদ্ধার কফিন।

বিমানবন্দরে সাদেক হোসেন খোকার কফিন বুঝে নেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।

খোকার স্ত্রী ইসমত হোসেন, ছেলে ইশরাক হোসেন ও ইশফাক হোসেন, মেয়ে সারিকা সাদেক এবং বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আব্দুস সালামসহ স্বজনরাও একই ফ্লাইটে দেশে এসেছেন।

বিএনপি নেতাদের মধ্যে ইকবাল মাহমুদ টুকু, আমীর খসুর মাহমুদ চৌধুরী, কামরুল ইসলাম, আতাউর রহমান ঢালী, খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সৈয়দ ইমরান সালেহ প্রিন্স, শামা ওবায়েদ, মীর সরাফত আলী সপু, শামীমুর রহমান, কামরুজ্জামান রতন, নবী উল্লাহ নবী, এসএম জাহাঙ্গীরসহ ঢাকা মহানগরের নেতৃবৃন্দ এ সময়ে বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন

নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের বিশেষায়িত হাসপাতাল মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যান্সার সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার রাতে মারা যান বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খোকা। তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।

সোমবার নিউ ইয়র্কে কুইন্সের জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে খোকার জানাজা হয়। যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতা-কর্মীরা ছাড়াও প্রবাসীদের অনেকেই সেখানে জানাজায় অংশ নেন।

বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে খোকার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায়।

একই রকম সংবাদ সমূহ

‘সরকারি সেবা জনগণের দোড়গোড়ায়’ : কলারোয়ায় ৩ অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিববিস্তারিত পড়ুন

সড়ক আইন প্রয়োগে বাড়াবাড়ি না করার নির্দেশ মন্ত্রীর

নতুন সড়ক পরিবহন আইন প্রয়োগে যেন কোনো প্রকার বাড়াবাড়ি নাবিস্তারিত পড়ুন

৩০ টাকায় পেঁয়াজ আমদানি করে ২৫০ টাকায় বিক্রি

বিভিন্ন দেশ থেকে মাত্র ৩০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ কিনেবিস্তারিত পড়ুন

  • ‘মুজিববর্ষ’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে থাকবেন মোদি
  • রোহিঙ্গা সমস্যা সৃষ্টির পেছনে জিয়াউর রহমানের একটি হাত রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী
  • আওয়ামী লীগে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই: সেতুমন্ত্রী
  • ট্রেন দুর্ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে সতর্ক থাকার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
  • মাত্র ৩০ সেকেন্ডের খেসারতে ঝরল এতগুলো প্রাণ
  • কসবা ট্রেন দুর্ঘটনা: রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকারের শোক
  • মঙ্গলবারের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষাও পেছাল
  • রোহিঙ্গারা গোটা অঞ্চলের জন্যই হুমকি: প্রধানমন্ত্রী
  • খালি হচ্ছে ঘূর্ণিঝড়ের নামের ভাণ্ডার, নতুন নাম তৈরিতে ব্যস্ত যে ৮ দেশ
  • বুলবুলকে ‘রুখে দিল’ প্রকৃতির ঢাল সুন্দরবন
  • ৮ জেলায় ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ কেড়ে নিল ১০ প্রাণ
  • জাতীয় প্রতিবন্দী ক্রিকেট দল বেনাপোল দিয়ে ভারত গেলেন খেলতে