শনিবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

ন্যায্য মূল্য নেই, হতাশ পাটকেলঘাটার কৃষকরা

‘ধান লাগায়ি কি হবে, এর চায়ি কিনি খাব’

‘ধান লাগায়ি কি হবে, এর চায়ি কিনি খাব তবুও লোকসান গুণতি হবে না আমাগি মতোন কৃষকের’ -কথাগুলো বলছিলেন পাটকেলঘাটার থানার কুমিরা গ্রামের আব্দুস সালামের পুত্র ধানচাষি শহিদুল ইসলাম।
অনেকটা অভিমানের সুরে নিজের অজান্তে কথা গুলো অকপটে বলেই চলেছিলেন একান্ত স্বাক্ষাৎকারে।

তিনি আরো বলেন- ‘ধান যদি আমরা না লাগাই তাহলি সরকারের তো বাইর দেশেত্তে আনতি হবে। আমাগির সরকার কি বোঝে না খরচের চায়ি যদি দাম কম পাই তালি ও লাগাবো কি করতি।’

সরেজমিনে পাটকেলঘাটার কয়েকজন ধান ব্যবসায়ীর নিকট খোজ নিয়ে এমন কথার সত্যতা পাওয়া যায়।

দেখা যায়- এসকল ব্যবসায়ীগণ অনেককটা অনাগ্রহের সহিত ধান কিনছেন। বিশেষত মুদি, কাপড় সহ সমস্থ দোকানগুলোতে বৈশাখের শুরু হতে এক যোগে হালখাতার লগ্ন চলছে। সারাবছর বাকি করে কিনলে এখন সেগুলো পরিশোধ করা বাধ্যতা মুলক হয়ে দাড়িয়েছে সকলের। তাই যার যা সম্বল গরু, ছাগল বিক্রি করেও অনেকে দেনা পরিশোধ করছেন বলে জানা যায়।

অপরদিকে অধিকাংশ ধানচাষী কৃষকরা চেয়ে আছেন কষ্ট করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে অর্জিত ধান ক্ষেতের দিকে।

বছরের ভাত ঘরে তুলে বাকি ধানগুলো বিক্রি করে সকল দেনা পরিশোধ করে দেবেন। কার্যত দেখছেন ঝুকি নিয়ে ধানগাছ লাগানোর চেয়ে ধান কেনাই লাভবান বেশি।

বুধবার উপজেলার বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পাটকেলঘাটা বাজারে বেশিরভাগ কৃষকের ধান বিক্রি করতে এসে কপাল ভাজ হতে দেখা যায়। তাদের এমন দশা লোকসান হলেও করার কিছুই নেই। ধান বিক্রি করে হালখাতার টাকা শোধ না করলে বাড়ি গিয়ে মান অপমান হতে পারেন।

কয়েকজন ধান ব্যবসায়ীর সাথে কথা বলে জানা যায়- বর্তমানে সর্বোচ্চ সাড়ে ৭’শ দামে মণ দিচ্ছি। বাজার যদি চড়া না হয় সরকার যদি মাঠপর্যায়ে কৃষকের খোজ খবর না নেয় আমরা কি বা করতে পারি। অথচ মণ প্রতি ধান উৎপাদন করতে হাজারেরও বেশি অলিখিত খরচ হয়ে দাড়িয়েছে এতদাঞ্চলের কৃষকের। চড়া দামে ধান বীজ কেনা, অনেকের চড়া দামে পাতা (ধানের চারা) কেনা অতপর শ্রমিক দিয়ে চারা লাগানো, পরিষ্কার করা, পানি খরচ, সার দেয়া, গাছগুলো কাটা, ঝাড়া পরিষ্কার শেষে ঘরে তোলা নেহায়েত কম শ্রম নয়। অথচ যা খেয়ে আমাদের জীবন বাচে, যা এদেশের কৃষকরা উৎপাদন না করলে সরকার সহ জনগণের মাথায় হাত উঠে যাবে তার দাম দর নিয়ে কারও কোনো মাথা ব্যথা নেই।

অনেকের ধানের দাম না পাওয়ায় ধানগাছে আগুন ধরিয়ে দিয়ে প্রতিবাদ জানানোর খবরও কানে আসছে। তাই সরকারের উচিত এদেশের কৃষকদের দিকে সুনজর দেয়া।

আবারও যাতে কৃষকরা লাভের আশায় নতুন উজ্জীবিত হয়ে ধান পাট চাষে আগ্রহ তৈরী করতে পারে তার সুব্যবস্থার জন্য আহবান জানান এ অঞ্চলের সাধারণ কৃষককুল।

একই রকম সংবাদ সমূহ

বিদ্রোহী দমনের নামে বলি দেওয়া হচ্ছে সাতক্ষীরা আ.লীগের জনপ্রিয় নেতাদের

আওয়ামী লীগের শোকজ নোটিশকে কেন্দ্র করে দলীয় প্রতিপক্ষরা হয়ে উঠেছেনবিস্তারিত পড়ুন

সেভ ওয়াইল্ড লাইফের অভিযানে পাখি ধরার ফাঁদ ও পাখিসহ সরকার নিষিদ্ধ জাল উদ্ধার

চলো যায় যুদ্ধে, প্রকৃতি-পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য ধ্বংসের বিরুদ্ধে স্লোগান কেবিস্তারিত পড়ুন

তালায় জাল দলিলের জমি রেজেষ্ট্রির সময় ২ প্রতারক আটক

সাতক্ষীরা তালায় জাল দলিলের জমি রেজেষ্ট্রি করার চেষ্টা করায় ইসলাকাটিবিস্তারিত পড়ুন

  • তালায় অভিনব কায়দায় ঘেরের মাছ লুটের অভিযোগ
  • তালায় পরিবার কল্যাণ সহকারীদের মানববন্ধন
  • তালায় শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ
  • শুরু হচ্ছে ‘ক্লিন সাতক্ষীরা গ্রীন সাতক্ষীরা’ বাস্তবায়নে স্কুল বিতর্ক
  • সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী গ্রেফতার ২৪ ।। ফেন্সিডিল, গাঁজা উদ্ধার
  • কাপড় বিক্রি করে বাড়ি ফেরা হলো না রাজ্জাকের ।। পাটকেলঘাটায় সড়ক দূর্ঘটনা
  • ‘ক্লিন সাতক্ষীরা গ্রীন সাতক্ষীরা’ বাস্তবায়নে তালায় হাডুডু টুর্নামেন্ট
  • তালায় জাতীয় ইঁদুর নিধন অভিযান ও বিশ্ব খাদ্য দিবস উদযাপন
  • কলারোয়ায় অনুর্ধ ১৮বয়স ভিত্তিক ফুটবল প্রশিক্ষনের উদ্বোধন
  • তালায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও মুক্ত মঞ্চ’র ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন
  • সাতক্ষীরায় জাতীয় স্যানিটেশন মাস ও বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস উদযাপন
  • তালায় কিশোর রিফাত ৪দিন ধরে নিখোঁজ!