শনিবার, জুন ৬, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা প্রশাসনের সংবাদ বর্জনের ঘোষণা সাংবাদিকদের

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় উপজেলা প্রশাসনের সকল সংবাদ বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন সাংবাদিকদের তিনটি সংগঠন।

এ সংগঠন তিনটি হলো,উপজেলা প্রেস ক্লাব,রিপোর্টাস ক্লাব ও সাংবাদিক সমিতি।

মঠবাড়িয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার জিএম সরফরাজ এর বিরুদ্ধে অসৌজন্যমূলক আচরণ ও নিরপেক্ষ ভুমিকা পালন না করার অভিযোগ এনে সাংবাদিকরা এ সংবাদ বর্জন করেন।

মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় হাতেম কালী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার ৮০জন লোক নিয়ে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী এসডিজি বাস্তবায়ন শীর্ষক একটি প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করলেও দেশের প্রথম সারির ইলেকট্রনিক ও প্রিন্টিং মিডিয়ার সাংবাদিকদের আমন্ত্রণ না করে গুটিকয়েক মুখ চেনা সাংবাদিকে ওই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রনপত্র দেন ইউএনও।

অনুষ্ঠানে পিরোজপুর জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

এ ঘটনায় সাংবাদিকদের বৃহৎ অংশ ক্ষুব্ধ হয়ে সোমবার রাতে রিপোটার্স ক্লাবে জরুরী বৈঠকে করে উপজেলা প্রশাসনের সকল সংবাদ বর্জনের সিদ্ধান্ত নেন।

সভায় রিপোটার্স ক্লাবের সভাপতি নাজমুল আহসান কবিরের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. মজিবর রহমান, রিপোটার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুল আকন, সাংবাদিক সমিতির সভাপতি ইসমাইল হোসেন হাওলাদার, রিপোটার্স ক্লাবের সহ-সভাপতি জুলফিকার আমীন সোহেল, যুগ্ম সম্পাদক মো. ফারুক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তফা কামাল বুলেট প্রমুখ।

রিপোটার্স ক্লাবের সভাপতি নাজমুল আহসান কবির বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বক্তব্যে মনে হচ্ছে বাংলাদেশ টুডে দৈনিক সংবাদ, মানবজমিন, যায়যায়দিন, মানবকন্ঠ, আমাদের নতুন সময়, দৈনিক বর্তমান, আলোকিত বাংলাদেশ, ইনকিলাব, নয়া দিগন্ত, বাংলাদেশের খবর, আমার সংবাদ, আমাদের কন্ঠ জাতীয় পত্রিকাগুলো তার কাছে গুরুত্বহীন। এসকল পত্রিকার প্রতিনিধিদের তিনি সাংবাদিক মনে করেন না।

উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. মজিবর রহমান বলেন, মঠবাড়িয়ায় সাংবাদিকদের চারটি সংগঠন থাকলেও ইউএনও একটি সংগঠনকে গুরুত্ব দেয়ায় তার নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেখা দিয়েছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিএম সরফরাজ বলেন, আমি সাংবাদিক হিসেবে যাদের মনে করেছি তাদেরকেই আমন্ত্রণ করেছি।

জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, দাওয়াতে সমন্বয় থাকা উচিৎ ছিলো।

একই রকম সংবাদ সমূহ

দেশে উচ্চশিক্ষায় পড়ুয়া ৮৬ শতাংশের হাতে স্মার্টফোন

দেশের উচ্চশিক্ষায় পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৮৬ দশমিক ৬২ শতাংশের স্মার্টফোনবিস্তারিত পড়ুন

করোনা ও আম্পান: বিপন্ন মানুষের পাশে সেনাবাহিনী

করোনা এবং ঘূর্ণিঝড় আম্পান মোকাবেলায় চিকিৎসা বঞ্চিত বিপন্ন মানুষের পাশেবিস্তারিত পড়ুন

করোনা কনট্যাক্ট ট্রেসিং অ্যাপস জানিয়ে দেবে আক্রান্তের কাছাকাছি ছিলেন কিনা

দেশে করোনা ঝুঁকি নির্ণয়ের জন্য কনট্যাক্ট ট্রেসিং অ্যাপের উদ্বোধন করলেনবিস্তারিত পড়ুন

  • লকডাউনের মাঝেও মে মাসে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২৯২ জন
  • ৫জুন বছরের দ্বিতীয় চন্দ্রগ্রহণ
  • দেড় মাসে কৃষকের লোকসান ৫৬ হাজার কোটি টাকা : ব্র্যাক
  • কলারোয়ায় ওয়ার্কার্স পার্টির (মার্কসবাদ) উদ্যোগে সহায়তা প্রদান
  • করোনা এবং আম্পান মোকাবেলায় মানবতার কল্যাণে যশোর সেনানিবাস
  • করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৪২৩
  • ঢাকাস্থ ইন্দোনেশিয়ার দূতাবাস কর্মকর্তার মৃত্যু, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক
  • করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির কাছাকাছি এলেই সতর্ক করবে স্মার্টফোন!
  • করোনোয় আক্রান্ত সন্দেহে লাশ নিল না পরিবার, হিমঘরে ৪৩ দিন মরদেহ!
  • ঢাকার কুয়েত মৈত্রীতে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছেন সাতক্ষীরার ডা. শেখর
  • করোনা ও আম্পান মোকাবেলায় সাহসিকতায় মানবিক পরিচয়ে যশোর সেনানিবাস
  • ‘ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অফিসে আসতে হবে না’