মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

বেনাপোল বন্দরে পাসপোর্ট যাত্রীদের লম্বা লাইন, ৫’শ টাকা দিলে আগে!

শোরের বেনাপোল দেশের বৃহত্তম স্থল বন্দর।
এ বন্দর দিয়ে ভারতে যাতায়াতের সুবিধা হওয়ায়, দেশের সিংহ ভাগ পাসপোর্ট যাত্রী বেনাপোল দিয়েই ভারতে ভ্রমন বা চিকিৎসা সেবা সহ, যে কোন প্রয়োজনীয় কাজে যাতায়াত করে থাকে। এখন পূজার আনন্দে বেনাপোল ইমিগ্রেশন থেকে আন্তর্জাতিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনাল গন্ডি পেরিয়ে মেইন রোড ও লোকাল রোডে দীর্ঘ লাইনে অবস্থান করছে ভারতমুখি পাসপোর্ট যাত্রীরা। আর লাইনে আগে পার করে দেওয়ার জন্য হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বন্দরের কিছু অসাধু কর্মকর্তা।
গত শুক্রবার দুপুর ৩টার দিকে প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের সামনে গিয়ে দেখা যায়- শত শত লোক লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে আছে, আর একজন বন্দর কর্তা ৫/৬ জনের একটি করে দল নিয়ে লাইনের আগে ঢুকিয়ে দিচ্ছেন। এর বিনিময়ে প্রতি পাসপোর্ট যাত্রীদের নিকট থেকে ৫০০ টাকা করে হাতিয়ে নিচ্ছেন তিনি।

লাইনে আগে পার করে দিয়ে টাকার নেয়ার সময় বন্দরের টয়লেট এর ভিতরে গিয়ে টাকা নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, যে সমস্ত যাত্রীরা মেডিকেল ভিসা নিয়ে দ্রুততার জন্য ভারত গমন করবে, সেই সমস্ত যাত্রীদেরকে দীর্ঘ লাইনে দেখা যায়।

এক মেডিকেল যাত্রী বলেন, আমার হাতের সমস্যার জন্য অপারেশ করতে যেতে হবে কিন্তু এখানে যে দীর্ঘ লাইন ধরে যেতে হলে ভারতে গিয়ে আজ আমার অপারেশ করা সম্ভব নয়।

তদারকির দায়িত্বে থাকা বন্দরের এক কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখানে মেডিকাল ভিসা বলে কিছু নাই, যারা হাটতে পারে তাদের কে লাইনে যেতে হবে। যারা শুধু অচল, হাটতে পারে না তাদের কে লাইনে দেয়া হচ্ছে না।

আর এক পাসপোর্ট যাত্রী রমেশ কুমার বলেন- প্রায় দুই ঘন্টা একটানা দাড়িয়ে আছি জানিনা আর কত সময় এভাবে দাড়িয়ে থাকতে হবে। অনেকে লাইন বাদে চলে যাচ্ছে। সাদা পোষাকে একজন ৫০০ টাকা করে নিয়ে আগে পার করে দিচ্ছে, তিনি নাকি বন্দরের বড় অফিসার।

স্থানীয়রা জানায়, দুর দুরান্ত থেকে আসা পাসপোর্ট যাত্রীদের সুবিধার্থে ২০১৭ সালের জুন মাসে আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক প্যাসেঞ্জার টার্মিনার চালু করে বেনাপোল বন্দর কর্তৃপক্ষ। তখন থেকে এই টার্মিনাল এর অজুহাত দেখিয়ে পাসপোর্ট যাত্রীর নিকট থেকে এট্রি ফি, ওয়েটিং র্ফি, সার্ভিস চার্জ ও টার্মিনাল চার্জ বাবদ ৩৮টাকা ৭৬ পয়সা নিত বন্দর কর্তুপক্ষ। এর ৬মাস যেতে না যেতে কোন সুযোগ সুবিধা না বাড়িয়ে যাত্রীদের নিকট থেকে আদায় করছে কাগজে কলমে ৪২.৭৫ টাকা। তবে বাস্তবে নিচ্ছে তারা ৪৫ টাকা। পাসপোর্ট যাত্রীদের নিকট থেকে এই ৪৫ টাকা নিয়ে ২০ জন যাত্রীকে বসার কোন সুযোগ সুবিধা না দেওয়ায় জনমনে নানান প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। এছাড়া প্রথমে পুরো টার্মিনাল ভবনের নীচতলা যাত্রীদের জন্য রাখলেও এখন তার অর্ধেকের বেশী আটকিয়ে দিয়ে কাস্টমসের স্কানিং মেশিন বসানো হয়েছে। যার কারনে ঝড় বৃষ্টির মধ্যেও মেইন রোড বেয়ে দীর্ঘ লাইনে দাড়াতে বাধ্য হচ্ছে পাসপোর্ট যাত্রীরা।

এ ব্যাপারে বন্দর ডিডি মামুনুর রহমান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন- ঘুষ নিয়ে পাসপোর্ট যাত্রীকে আগে পার করে দেয়া দূঃখ জনক। তবে এ বিষয়ে কোন যাত্রী অভিযোগ দেয়নি। আর যে কর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তার সেখানে ডিউটি ছিলো না, কিন্তু কেন সেখানে তিনি গেলেন তা খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

ঝিকরগাছায় রেললাইনের উপর চাইল্ড একাডেমীর থ্রি-হুইলার বিকল, ট্রেনের ধাক্কায় আহত ৬

যশোরের ঝিকরগাছায় রেললাইনের উপর থ্রি-হুইলার বিকল হয়ে পড়ায় ট্রেনের ধাক্কায়বিস্তারিত পড়ুন

শার্শার ভুলোটে ১৬দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে বাঁগআচড়া

যশোরের শার্শার ভুলোটে ১৬দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টে শেষ কোয়ার্টার ফাইনালে ৪-০গোলেবিস্তারিত পড়ুন

শার্শা ও বেনাপোলে মদ, ইয়াবাসহ ৩ব্যক্তি আটক

যশোরের শার্শার রুদ্রপুর সীমান্ত থেকে ১০ বোতল বাংলা মদসহ একজনবিস্তারিত পড়ুন

  • মনিরামপুরের রাজগঞ্জে পটল ক্ষেতের ফলন্ত গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা
  • কেশবপুরের কলাগাছি বাজারে ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন
  • কেশবপুরে জাতীয় ইঁদুর নিধন অভিযান উদ্বোধন
  • কেশবপুরে জাতীয় স্যানিটেশন মাস উপলক্ষ্যে র‌্যালি ও আলোচনা সভা
  • শার্শায় অন্যদের অশ্লীল দৃশ্য ভিডিও করায় যুবক নিখোঁজ! পরস্পর বিরোধী বক্তব্য
  • শার্শার ধলদায় ১৬দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে বাঁগআচড়া
  • মনিরামপুরের রাজগঞ্জে ‘হেলাল স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের’ উদ্বোধন
  • কেশবপুরের সাগরদাঁড়ি সড়কটি চলাচলের অযোগ্য ॥ সংস্কার না হলে মধুমেলা ম্লানের শংকা
  • বেনাপোলে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আটক
  • কেশবপুরে মধুসূদন গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ২য় খেলায় প্রভাতী ক্লাবের জয়
  • কেশবপুরে জাতীয় কৃষক পার্টির মতবিনিময় সভা
  • নানা সমস্যায় জর্জরিত শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স