শুক্রবার, জানুয়ারি ২৪, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

‘মুজিববর্ষে’ আসছে ২০০ টাকার নোট

আসছে ২০০ টাকার নোট, ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে আগামী মার্চে এই নোট বাজারে ছাড়বে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী স্মরণীয় করে রাখতে ২০০ টাকার নোট ছাড়ছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে দেশে প্রথমবারের মতো ২০০ টাকা মূল্যমানের নোট বাজারে ছাড়া হবে বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম জানিয়েছেন।

তিনি রোববার রাতে বলেন, বাজারে প্রচলিত ১০, ২০, ৫০, ১০০, ৫০০ ও ১০০০ টাকার মতোই ২০০ টাকার নোট ছাড়া হবে।

“প্রথম বছরে স্মারক ও প্রচলিত- দুই ধরনের ২০০ টাকার নোট থাকবে। দ্বিতীয় বছর থেকে বাজারে স্মারক নোট ছাড়া হবে না, নিয়মিত নোট থাকবে।”

‘মুজিব বর্ষকে’ স্মরণীয় করে রাখতেই ২০০ টাকার নোট ছাড়া হবে বলে জানান সিরাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে ২০০ টাকার নোটের উপর ‘মুজিব বর্ষ উপলক্ষে বিশেষ নোট’ কথাটি লেখা থাকবে। তবে ২০২১ সালের পর যে নোটগুলো ছাড়া হবে তাতে আর তা আর লেখা থাকবে না।

২০২০-২১ ‘মুজিব বর্ষ’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উদযাপনে ২০২০-২০২১ সালকে ‘মুজিব বর্ষ’ ঘোষণা করেছে সরকার।

১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় জন্ম নেন শেখ মুজিবুর রহমান। কালক্রমে তার হাত ধরেই ১৯৭১ সালে বিশ্ব মানচিত্রে নতুন দেশ হিসেবে স্থান করে নেয় বাংলাদেশ।

আসছে ২০২০ সালে বঙ্গবন্ধুর জন্মের শত বছর পূর্ণ হবে। আর ঠিক পরের বছর ২৬ মার্চ বাংলাদেশ উদযাপন করবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী।

‘মুজিব বর্ষ’ পালনের প্রস্তুতি ইতোমধ্যে শুরু করে দিয়েছে সরকার। ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত বছরব্যাপী থাকবে নানা আয়োজন।

বিশেষ বিশেষ ঘটনাকে স্মরণীয় রাখতে এর আগে ৬ ধরনের স্মারক নোট তৈরি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এই বহরে যুক্ত হচ্ছে ২০০ টাকার নোট। এছাড়া এই পর্যন্ত স্মারক মুদ্রা তৈরি করেছে ১২ ধরনের।

অন্যদিকে লেনদেনের জন্য বিভিন্ন মানের প্রচলিত নোট ও মুদ্রা বাজারে আছে।

স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালে বাংলাদেশের প্রথম নোট ছাপা হয়। ১৯৭২ সালের ২ জুন প্রথম বাজারে ছাড়া হয় ১০ টাকার নোট। এরপর ধীরে ধীরে বাজারে আসে ১, ৫, ১০, ২০, ৫০, ১০০ ও ৫০০ টাকার নোট। এর প্রায় সবই বাজারে আসে ১৯৭২-৭৬ সালের মধ্যে।

পরে ১৯৭৯ সালে ২০ টাকার নোট ও ১৯৮৮ সালে ২ টাকার নোট ছাড়া হয়। ২০০৮ সালে প্রথম বাজারে আসে ১০০০ টাকার নোট।

এছাড়া স্বাধীনতার পর থেকে ধীরে ধীরে বাজারে ছাড়া হয় ১, ৫, ১০, ২৫, ৫০ পয়সা ও ১, ২, ৫ টাকার কয়েন।

সূত্র : বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

একই রকম সংবাদ সমূহ

গ্রামে তহসিলদারের মতো চুনোপুটিরাও পাওয়ারফুল : সাতক্ষীরায় দুদক চেয়ারম্যান

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ সাতক্ষীরায় সরকারি কর্মকর্তাদেরবিস্তারিত পড়ুন

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে চালু হচ্ছে ৩টি সীমান্ত হাট

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে খুব শিগগিরই উদ্বোধন হতে যাচ্ছে তিনটিবিস্তারিত পড়ুন

পদ্মা সেতুর ২২তম স্প্যান বসছে আজ

অনুকূল আবহাওয়া ও কারিগরি কোনো জটিলতা দেখা না দিলে আজবিস্তারিত পড়ুন

  • ‘মুজিববর্ষে বিনা টাকায় টেলিফোন সংযোগ দিচ্ছে বিটিসিএল’
  • ফুলেল শ্রদ্ধা আর কাঁদিয়ে নিজেদের এমপি’কে চিরবিদায় দিলো কেশবপুরবাসী
  • মায়ের পা ধুয়ে মাকে সম্মান জানালো পিরোজপুরের শিক্ষার্থীরা
  • দক্ষিণ এশিয়ায় আমরাই প্রথম ই-পাসপোর্ট শুরু করলাম: প্রধানমন্ত্রী
  • কেশবপুরে সাবেক প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক এমপির জানাজা সম্পন্ন
  • রাতে নয়, লাহোরে বাংলাদেশ খেলবে দিনে
  • ফেব্রুয়ারিতেই চালু হচ্ছে কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিনের জাহাজ
  • মুজিববর্ষে ৬৮ হাজার দরিদ্র পরিবার পাবে পাকা বাড়ি
  • কেশবপুরের এমপি ইসমাত আরা সাদেক আর নেই
  • ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় যান চলাচল বন্ধ
  • এনআইডি পাবে ১৬ বছর বয়সীরা
  • মুজিববর্ষের লোগো ব্যবহারের নির্দেশিকা