মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

মৃত্যুর কোলেই ঢোলে পড়লো কলারোয়ায় দূর্ঘটনায় আহত সেই ভ্যানচালক

মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে কলারোয়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় আহত ভ্যান চালক মনিরুল ইসলাম মারা গেছে।

রবিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। সোমবার দুপুরে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

নিহত মনিরুল উপজেলা কুশোডাঙ্গার গ্রামের মৃত নওশের আলীর পুত্র পুত্র।

গত ১০ অক্টোবর বেলা ১০টার দিকে কাজিরহাটের দিগং-এ কাজিরহাট-কুশোডাঙ্গা সড়কে পানির বোতল বাহী নছিমনের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে- ওইদিন ভ্যানচালক মনিরুল কাজিরহাট থেকে ভ্যান নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে দিগং চৌরাস্তার নিকট পৌছুলে পিছন দিক থেকে পানির বোতল ভর্তি একটি নছিমন সজোরে ধাক্কা দেয় মনিরুলের ভ্যানে। এতে সে রাস্তার পাশে গাছের সাথে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে তার মেরুদন্ডের হাড় ভেঙ্গে যায়। দূর্ঘটনাকবলিত পানির বোতলবাহী নছিমনের মালিক কাজিরহাটের নিউ গাজী পানির সত্বাধিকারী জাহাঙ্গীর আলম লিটন আহত মনিরুলকে কলারোয়া হাসপাতালে পৌছে দেন। সেখানে ৩দিন চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি হলে মনিরুলকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন থাকার পর অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লো আহত ভ্যানচালক মনিরুল।

এদিকে, টাকার অভাবে মনিরুলের সুচিকিৎসা হয়নি বলে জানিয়েছেন নিহতের মা ও স্ত্রী জয়তুন বেগম। নিহতের মা জানান- ছেলের চিকিৎসার জন্য গাজী পানির মালিক লিটনের গ্রামের বাড়িতে গেলে তারা কোন টাকা দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দেন। এমনকি ছেলের মৃত্যুর পরে তার জানাজা নামাজেও আসেনি তারা।

সোমবার (২১অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১০টার দিকে মনিরুলের লাশ খুলনা থেকে গ্রামের বাড়ি কুশোডাঙ্গায় আনা হয়। বেলা ১১টার দিকে নামাজে জানাজা শেষে তার দাফন সম্পন্ন হয় বলে জানা গেছে।

এদিকে, আহত ভ্যানচালকের মৃত্যুর খবরে কলারোয়া থানার ওসি শেখ মুনীর-উল-গীয়াস দুইজন পুলিশ অফিসারকে নিহতের বাড়িতে পাঠিয়ে সার্বিক অবস্থার খোজ খবর নেন ও সমবেদনা জানিয়েছেন। তিনি জানান- অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

নিহত মনিরুলের স্ত্রী কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন- ৩টি মেয়ে সন্তান নিয়ে আমি কোথায় দাঁড়াবো? আমার স্বামী ভ্যান চালিয়ে ৬জন সদস্যের এই সংসার চালাতো। দু’বছর আগে আমার শ্বশুর বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা গেছেন। আমার শ্বাশুড়ীর ভরণপোষনের দায়িত্ব ছিল আমার স্বামীর উপর। তার পরিবারে শোকের মাতম চলছে।

নিহত মনিরুলের পরিবার আরো জানান- যারা অন্যায়ভাবে আমার স্বামীকে মেরে ফেলেছে তারা যেন আমার ৩টা এতিম সন্তানের মুখে দু’বেলা ভাত তুলে দেয়ার একটা ব্যবস্থা করে দেয়। আমরা তাদের নামে এখন পর্যন্ত কোন মামলা দায়েরও করিনি।

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়ার চন্দনপুরে র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ যুবক গ্রেপ্তার

কলারোয়ায় র‌্যাবের অভিযানে ২৮৪ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ এক ব্যক্তি গ্রেপ্তারবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ার সোনাবাড়িয়ার সোনারবাংলা কলেজে নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

কলারোয়ার সোনাবাড়িয়ার সোনারবাংলা ডিগ্রি কলেজে বিভিন্ন পদে নিয়োগ পরীক্ষায় অনিয়মেরবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়া সীমান্তে ভারতীয় জালনোটসহ ভারতীয় নাগরিক আটক

সাতক্ষীরা কলারোয়া উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ইব্রাহিম গাজী ছোট (২৯)বিস্তারিত পড়ুন

  • সাতক্ষীরায় ‘মাসিক আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক সভা’ অনুষ্ঠিত
  • কলারোয়ায় ঈদে মিলাদ-উন-নবী (সাঃ) পালিত
  • বড়ধরণের ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াই কলারোয়ায় ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’…
  • ঘূণিঝড় বুলবুল: লন্ডভন্ড সাতক্ষীরায় এক ব্যক্তির মৃত্যু ।। ফসল নষ্ট, কাঁচা ঘরবাড়ি ও রাস্তাঘাটের ক্ষতি
  • সাতক্ষীরা জেলায় সেরা করদাতা বিশ্বজিৎ সাধু, আক্কাজ, হাসান, আশিক, দিপঙ্কর, গোলাম আকবর ও নিলুফা ইয়াসমিন
  • কলারোয়ায় পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষ্যে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল
  • ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় কলারোয়ায় দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা
  • কলারোয়ায় প্রাকৃতিক দূর্যোগ ব্যবস্থাপনায় আ.লীগের জরুরি সভা
  • ১০নং মহাবিপদ সংকেতে সাতক্ষীরায় ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র প্রভাব, প্রস্তুতি সম্পন্ন
  • ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ : ১০ নম্বর মহাবিপদ সঙ্কেত জারি
  • ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় সাতক্ষীরা জেলায় ২৭০ আশ্রয় কেন্দ্র ।। ছুটি বাতিল
  • ‘ভিক্ষুকমুক্ত কলারোয়া উপজেলা’ শুক্রবারে ‘ফকিরবার’