মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

যশোরের ভবদহের স্লুইসগেট ও নদীগুলো পলি জমে ভরাট।। মরা খালে পরিণত

যশোরের ভবদহ স্লুইসগেট ও তৎসংলগ্ন শ্রী, টেকা ও হরিনদীসহ খালগুলোতে পলি জমে মরা খালে পরিণত হয়েছে।

চলতি বছরের বর্ষা মৌসুমে ভবদহ সংলগ্ন বিলবোকড়, বিল কেদারিয়া, দামোখালি, আড়পাতার বিল, বিলকপালিয়ায় জোয়ারের পানি ঢুকে পড়ার পর ভবদহ স্লুইসগেট দিয়ে সুষ্ঠুভাবে পানি নিস্কাশন না হওয়ায় চলতি বোরো মৌসুমে ধানের আবাদ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

অথচ ভবদহের জলাবদ্ধতা ঠেকাতে ২ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে শ্রী, হরি ও টেকা নদী খননের পাইলট প্রকল্পের কাজ শেষ হতেই তা আবার পলি জমে ভরাট হয়ে গেছে। তারপরও নদী খননে ৮০৭ কোটি ৯২ লাখ ১২ হাজার টাকার প্রকল্প ছাড়ের অপেক্ষায় রয়েছে।

ভবদহ পানি নিস্কাশন সংগ্রাম কমিটির আশংকা, বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতার কারণে এ অঞ্চলের ৬ লাখ মানুষ গৃহহীন হয়ে জীব-বৈচিত্র মারাত্বক হুমকির মধ্যে পড়বে।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, ভবদহ স্লুইসগেট সংলগ্ন নদীগুলোতে পলি জমে ভরাট হওয়ায় নদী থেকে বিলের গভীরতা ৬ থেকে ১০ ফুট নিচু হয়ে গেছে। গত কয়েক বছর ধরে বোরো মৌসুমে সেচ দিয়ে ধানের আবাদ করে আসছিল ভবদহ অঞ্চলের কৃষকেরা। পলি জমে নদী ভরাট হওয়ায় সেচ দিলেও কোনভাবেই পানি নিস্কাশন সম্ভব হচ্ছে না। ভবদহপাড়ের হাজারো কৃষক বোরো আবাদ নিয়ে হতাশ হয়ে পড়েছে।

মণিরামপুর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, ভবদহ সংলগ্ন উপজেলার মনোহরপুর, কপালিয়া, নেহালপুর, হরিদাসকাটি, কুলটিয়া, হাটগাছা, সুজাতপুর, বাজেকুলটিয়া, বালিদহ, পাঁচাকড়ি, বাগডাঙ্গা, ডাঙ্গামহিষদিয়াসহ কমপক্ষে অর্ধশত গ্রামের কৃষকের এবার বোরা আবাদ নিয়ে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। গেল বোরো মৌসুমে কপালিয়া এলাকায় ৩০০ হেক্টর, নেহালপুর এরাকায় ১৯৫ হেক্টর, কুলটিয়া ইউনিয়নে ২৪৮৫ হেক্টর, হরিদাসকাটি ইউনিয়নে ১৮৩২ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হলেও বিল কপালিয়া, বিল শায়লা, বিল আড়পাতা, বিল কেদারিয়ায় জলাবদ্ধতার কারণে গড়ে শতকরা ৭০ ভাগ জমিতে বোরো আবাদ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ভবদহ সংলগ্ন অভয়নগর উপজেলার পায়রা, সুন্দলী ও চলশিয়া ইউনিয়নে ৮০০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

ভবদহ পানি নিস্কাশন সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক রনজিৎ বাওয়ালী বলেন, যশোর-খুলনা জেলার ২৭ বিলের মধ্যে চলতি বোরো মৌসুমে অন্ততঃ ২০ বিলে এবার বোরো আবাদ হবে না।

যশোর পাউবো (পানি উন্নয়ন বোর্ড) সূত্র জানায়, গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে টিআরএম ছাড়াই ভবদহ অঞ্চলের জলাবদ্ধতা দূরীকরণে ৮০৭ কোটি ৯২ লাখ ১২ টাকা ব্যয়ে ‘ভববদহ ও তৎসংলগ্ন বিল এলাকার জলাবদ্ধতা দূরিকরণ প্রকল্পের (দ্বিতীয় পর্যায়)’ উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা (ডিডিপি) পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় পরিকল্পনা কমিশনে পাঠিয়েছে।

পাউবো’র যশোর জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী তাওহীদুল ইসলাম বলেন, স্থায়ী সমাধানের জন্য ইতোমধ্যে গৃহীত ৮০৭ কোটি ৯২ লাখ ১২ হাজার টাকার প্রকল্প একনেকে ছাড়ের অপেক্ষায় রয়েছে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

এনইউবিটি খুলনার ইংরেজি বিভাগের স্প্রিং ২০২০ ওরিয়েন্টশন অনুষ্ঠিত

এনইউবিটি খুলনার ইংরেজি বিভাগের স্প্রিং ২০২০ ওরিয়েন্টশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নর্দানবিস্তারিত পড়ুন

সাতক্ষীরায় কৃষি মেলার উদ্বোধন

গোপালগঞ্জ, খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা ও পিরোজপুর কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায়বিস্তারিত পড়ুন

এনইউবিটি খুলনাতে স্প্রিং সেমিস্টার ২০২০- এর এ্যাডমিশন ফেয়ার

নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেজ এন্ড টেকনোলজি খুলনাতে স্প্রিং সেমিস্টারের এ্যাডমিশনবিস্তারিত পড়ুন

  • পাটকেলঘাটায় ব্যাডমিন্টন টূর্ণামেন্টে কলারোয়া চ্যাম্পিয়ন, পাইকগাছা রানার্সআপ
  • কলারোয়ায় ৭৫ বছরের দাম্পত্যে তরতাজা তাদের ভালোবাসা
  • কেশবপুরে শাহীন চাকলাদারকে মনোনয়ন দাবিতে মহিলাদের মিছিল
  • বেনাপোলে সাংবাদিকদের সাথে ৪৯ বিজিবি’র মতবিনিময় সভা
  • জনসংখ্যাকে জনসম্পদে পরিণত করতে শিক্ষার মানোন্নয়নে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার: ডা. দীপু মনি
  • কলারোয়ায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ও সাতক্ষীরা সিভিল সার্জনকে সংবর্ধনা
  • ঢাকার বইমেলায় সাড়া ফেলেছে কলারোয়ার ছেলে তৈমুরের বই
  • এনইউবিটি খুলনার ইংরেজি বিভাগের আয়োজনে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট
  • তালায় মধ্যরাতে টহলকালে শিশুর চিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন দুই পুলিশ অফিসার
  • বাংলাদেশ দলিত পরিষদ খুলনা বিভাগীয় কমিটি পুনঃগঠন
  • সাংবাদিক মিথুন মাহফুজের মৃত্যুতে সাতক্ষীরা জেলা সাংবাদিক ফোরামের শোক
  • সুন্দরবনে হরিণের মাংস ও চামড়া উদ্ধার