সোমবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

নতুন ভিডিও প্রকাশ

রিফাতকে একাই হাসপাতালে নিয়েছিলো স্ত্রী মিন্নি (ভিডিও)

বরগুনায় নিহত হওয়া রিফাত শরীফকে তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিই হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিলো। প্রকাশ হওয়া নতুন একটি ভিডিওতে এমনই দৃশ্য দেখা যাচ্ছে।
ভিডিওটি বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের সিসিটিভিতে ধারণ করা।

রিফাতকে রক্তাক্ত অবস্থায় রিকশায় করে মিন্নি একাই হাসপাতালে নিয়ে যান। বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের কয়েকটি সূত্র এ ভিডিও’র সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

রিফাত হত্যার আড়াই মাস পর প্রকাশিত নতুন ওই ভিডিওতে দেখা যায়- গত ২৬ জুন সকাল ১০টা ২১ মিনিটে আয়শা একাই একটি ব্যাটারিচালিত রিকশায় করে রক্তাক্ত ও অচেতন রিফাতকে হাসপাতালের সামনে নিয়ে আসেন। সেখানে দাঁড়ানো এক যুবক রিফাত শরীফকে বহন করা রিকশার দিকে দৌড়ে আসেন। রিফাতের অবস্থা দেখে তিনি হাসপাতালের ভেতরে থেকে একটি স্ট্রেচার নিয়ে রিকশার পাশে আসেন।
এ সময় সেখানে উপস্থিত অনেকেই এগিয়ে আসেন। এরপর রিকশা থেকে নামিয়ে অচেতন রিফাত শরীফকে স্ট্রেচারে করে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়। এরপর মিন্নি হাসপাতালের সামনে উপস্থিত একজনের ফোন নিয়ে কল দিয়ে কারও সঙ্গে কথা বলেন। এরপর তিনি হাসপাতালের ভিতরে যান।
এর কিছু সময় পর মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন ও চাচা আবু সালেহ হাসপাতালে যান।

এতে আরও দেখা গেছে, সকাল ১০টা ৩৮ মিনিটে হাসপাতালের সামনে একটি অ্যাম্বুলেন্স আসে। এ সময় সেখানে রিফাত শরীফের বন্ধু মঞ্জুরুল আলম ওরফে জন ও তার কয়েকজন বন্ধু হাসপাতালের সামনে আসেন। মঞ্জুরুল বেশকিছু সময় ফোনে কথা বলেন। ১০টা ৪৪ মিনিটে অক্সিজেন ও দুটি স্যালাইন লাগানো অবস্থায় রিফাত শরীফকে স্ট্রেচারে করে ওই অ্যাম্বুলেন্সে তোলা হয়। ১০টা ৪৯ মিনিটে বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল প্রাঙ্গণ ত্যাগ করে অ্যাম্বুলেন্সটি।

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের একটি সূত্র জানায়, বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের সামনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ও বরগুনা জেলা পুলিশের পৃথক দুটি সিসিটিভি ক্যামেরা আছে। তবে এই ভিডিও কোন ক্যামেরায় ধারণ করা, তা নিশ্চিত করতে পারেনি ওই সূত্র।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বরগুনা থানার পরিদর্শক মো. হুমায়ুন কবির বলেন, ‘আমরা তার (মিন্নি) বিরুদ্ধে যতটুকু অভিযোগ পেয়েছি, তা আদালতে দাখিল করেছি। এখন নতুন করে কোনো ভিডিও বের হয়েছে কি না, তা আমাদের জানা নেই।’

উল্লেখ্য, রিফাত শরীফকে ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে কোপানোর ঘটনায় ধারণ করা প্রথম ভিডিওটিতে দেখা গেছে, রিফাতকে সন্ত্রাসীরা যখন কোপাচ্ছিল, তখন তার স্ত্রী মিন্নি প্রাণপণ চেষ্টা করছিলেন স্বামীকে রক্ষার। এরপর ওই ঘটনায় দ্বিতীয় যে ভিডিওটি প্রকাশিত হয়, সেখানে রিফাতকে কলেজ গেট থেকে ধরে পূর্বদিকে নিয়ে যাওয়ার সময় মিন্নির সন্ত্রাসীদের পেছনে কিছুটা ধীরলয়ে হেঁটে যাওয়ার ঘটনা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে একটি মহল।

এই সন্দেহের জের ধরেই মিন্নির শ্বশুর ঘটনার ১৮ দিন পর গত ১৩ জুলাই সংবাদ সম্মেলন করে রিফাত হত্যায় মিন্নি জড়িত বলে অভিযোগ তোলেন এবং ওই ভিডিওর উদ্ধৃতি দেন।

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন: https://web.facebook.com/451499495682222/videos/2705263979700132/

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়াসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় লক্ষ্মীপূজা অনুষ্ঠিত

কলারোয়াসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় লক্ষ্মীপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী’রবিস্তারিত পড়ুন

নড়াইলে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসে বিশেষ মহড়া

‘নিয়ম মেনে অবকাঠামো গড়ি, জীবন ও সম্পদের ঝুঁকি হ্রাস করি’বিস্তারিত পড়ুন

বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ, ১৯ আসামি-শিক্ষার্থী বহিষ্কার

আবরার ফাহাদ হত্যায় বুয়েটের অভিযুক্ত ১৯ জনকে অস্থায়ী বহিষ্কারের ঘোষণাবিস্তারিত পড়ুন

  • আবরার হত্যার সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে বুয়েটের আরেক ছাত্র শ্যামনগর থেকে গ্রেপ্তার
  • কলারোয়ায় প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি হলো দূর্গা-পূজা
  • দুর্নীতি বন্ধ করতেই হবে : রাষ্ট্রপতি
  • আওয়ামী লীগ সরকার সব সময়েই দেশের স্বার্থ রক্ষা করে : প্রধানমন্ত্রী
  • সরকার আবরারের খুনীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর: হাছান মাহমুদ
  • চলমান দুর্নীতি বিরোধী অভিযান সফল করতে সকলের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির
  • ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ ক্রয়-বিক্রয়, সংরক্ষণ ও পরিবহনও নিষিদ্ধ
  • নড়াইলে দূর্গোৎসব পরিদশর্নে খুলনা রেঞ্জের অতি. ডিআইজি
  • সম্মিলিত উৎসব উদযাপন বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অর্জন : প্রধানমন্ত্রী
  • অভিযুক্ত কাউকে ছাড় দেয়া হবে না : ওবায়দুল কাদের
  • ঢাকায় আনা হয়েছে সম্রাটকে
  • যুবলীগের সম্রাট ও আরমান কুমিল্লায় গ্রেপ্তার