রবিবার, জুন ৭, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী কাপড়ের দোকান বন্ধ ঘোষনা, চলাফেরায় বিধিনিষেধ

পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সাতক্ষীরা জেলার প্রতিটি বাজারে কাপড়ের দোকান সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। একই সাথে আন্ত:জেলা এবং আন্ত:উপজেলায় জনগণের চলাফেরা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণসহ সভায় আরো বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত ও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

সাতক্ষীরা জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে ওই সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

বৃহষ্পতিবার (১৪মে) সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি, জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এসএম মোস্তফা কামাল।
সভায় সংশ্লিষ্ট অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসন থেকে দেয়া এক প্রেসনোটে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রেসনোটে বলা হয়েছে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির আজকের সভায় সর্বসম্মতিক্রমে নিম্নলিখিত সিদ্ধান্তসমূহ গৃহিত হয়ঃ

১। আন্তজেলা এবং আন্তউপজেলায় জনগণের চলাফেরা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। জেলার বাইরে থেকে কেউ ভেতরে প্রবেশ করতে পারবে না এবং জেলার ভেতর থেকে কেউ জেলার বাইরে যেতে পারবেনা। এক উপজেলা থেকে অন্য উপজেলায় এবং অন্যান্য উপজেলা থেকে জেলা সদরে কেউ আসতে পারবে না।

২। জেলার ভেরতে ঢোকার প্রতিটি পয়েন্টে কঠোরভাবে নজরদারি করা হবে। জেলা অভ্যন্তরে প্রবেশের চারটি পয়েন্টে চেকপোষ্ট স্থাপন করা হবে। চেকপোষ্ট এ পুলিশের পাশাপাশি এনজিও এবং স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী কাজ করবে।

৩। জেলা সীমান্ত দিয়ে কেউ প্রবেশ করতে পারবে না। কেউ প্রবেশের চেষ্টা করলে তাকে ফেরত পাঠানো হবে। যদি কেউ বাহিরে থেকে জেলার অভ্যন্তরে প্রবেশ করে তাহলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক আইনানুযায়ী শাস্তির প্রদান করা হবে।

৪। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত জেলার প্রতিটি বাজারে কাপড়ের দোকান সাময়িকভাবে বন্ধ থাকবে।

৫। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সকাল ১০ টার আগে এবং বিকাল ৪ টার পরে হাট-বাজার, ব্যবসা কেন্দ্র, দোকান-পাট ও শপিংমলগুলো খোলা রাখা যাবে না। এর ব্যত্যয় হলে দোকানদারের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং ঐ সব দোকান ও শপিংমল সিলগালা করা হবে।

৬। তথ্য গোপন করে করোনা রোগী জেলায় অবস্থান করলে বা প্রবেশ করলে এ তথ্য গোপনকারী এবং আশ্রয় প্রদানকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জনস্বার্থে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে এই আদেশ জারি করা হলো।

এস এম মোস্তফা কামাল
জেলা ম্যাজিস্ট্রেট
সাতক্ষীরা

করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভা সূত্রে জানা গেছে, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সাতক্ষীরা জেলার সব বাজারের কাপড়ের দোকান সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করেছেন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল।
বৃহস্পতিবার (১৪ মে) বিকালে জনস্বার্থে তিনি এই আদেশ জারি করেন।
একই সাথে তিনি তথ্য গোপন করে করোনা রোগী জেলায় অবস্থান করলে বা প্রবেশ করলে ও তথ্য গোপনকারী এবং আশ্রয় প্রদানকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের ঘোষণা দেন।
এর আগে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে করণীয় নির্ধারণে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন শাফায়েত, পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু প্রমূখ।

সভায় করোনা প্রতিরোধে আন্তঃজেলা এবং আন্তঃউপজেলায় জনগণের চলাফেরা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ, জেলার বাইরে থেকে কেউ ভেতরে প্রবেশ বা জেলার ভেতর থেকে বাইরে যাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ, অনুরূপভাবে এক উপজেলা থেকে অন্য উপজেলায় যাওয়া-আসায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ, জেলার ভেরতে ঢোকার প্রতিটি পয়েন্টে কঠোরভাবে নজরদারি, জেলা অভ্যন্তরে প্রবেশের চারটি পয়েন্টে চেকপোস্ট স্থাপন, চেকপোস্টে পুলিশের পাশাপাশি এনজিও এবং স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী নিয়োগ, জেলা সীমান্ত দিয়ে কেউ প্রবেশ করার চেষ্টা করলে তাকে ফেরত পাঠানো, যদি কেউ বাহিরে থেকে জেলার অভ্যন্তরে প্রবেশ করে তাহলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক আইনানুযায়ী শাস্তি প্রদান, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত জেলার প্রতিটি বাজারে কাপড়ের দোকান সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সকাল ১০টার আগে এবং বিকাল ৪ টার পরে হাট-বাজার, ব্যবসা কেন্দ্র, দোকান-পাট ও শপিংমলগুলো বন্ধ রাখা ও এর ব্যত্যয় হলে দোকানদারের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং ঐ সব দোকান ও শপিংমল সিলগালাকরণ এবং তথ্য গোপন করে করোনা রোগী জেলায় অবস্থান করলে বা প্রবেশ করলে ও তথ্য গোপনকারী এবং আশ্রয় প্রদানকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এদিকে, করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় আগ্রহী স্বেচ্ছাসেবকগণকে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের ফেসবুজ পেজে দেয়া একটি লিঙ্কে গিয়ে ফর্মটি পূরণ করার আহবান জানানো হয়েছে। লিংকটি হলো- https://forms.gle/39BMpeCSjZ5L3QNy9

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়ায় সাংবাদিকের মোটরসাইকেল চুরি

কলারোয়ায় দৈনিক যুগান্তর পত্রিকা’র সাংবাদিক মুজাহিদুল ইসলামের মোটরসাইকেল চুরি হয়েছে।বিস্তারিত পড়ুন

বদলি হয়ে চলে গেলেন কলারোয়ার নির্বাহী অফিসার সেলিম শাহনেওয়াজ

কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার, আলহাজ্ব আর এম সেলিম শাহনেওয়াজ। সৎ,বিস্তারিত পড়ুন

  • সাতক্ষীরায় প্রয়াত কমরেড মোস্তাফিজুর রহমান কাবুলের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত
  • কলারোয়ায় ফুফু’র জমি লিখে নেয়ার মামলায় ভাইপো গ্রেপ্তার
  • ভালো নেই কলারোয়ার মৃৎশিল্পীরা
  • কলারোয়ায় করোনা আক্রান্ত সকলেই দৃশ্যমান ভালো, ফলোআপ রিপোর্টের অপেক্ষা
  • কলারোয়ায় পানিতে ডুবে প্রতিবন্ধী শিশুর মৃত্যু
  • কলারোয়ায় ‘আমরা সেবক একতা সংঘ’র সূধী সমাবেশ ও কমিটি গঠন
  • বিশ্ব পরিবেশ দিবসে কলারোয়ায় ছাত্রলীগের বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি
  • কলারোয়ায় জগ্ননাথ দেবের স্ন্যানযাত্রা অনুষ্ঠিত
  • অভিজ্ঞতায় মহাপ্রলয়ংকারী আম্পান
  • সাতক্ষীরার গ্রাম ডাক্তার মিজানুরের মৃত্যুতে কলারোয়া গ্রাম ডাক্তার সমিতির শোক
  • করোনা আক্রান্তদের জন্য পাঠানো হলো সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের সুষম ফুড প্যাকেজ
  • কলারোয়ার দেয়াড়ায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু