মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৮, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

১৬ ডিসেম্বর থেকে রাষ্ট্রীয় সব অনুষ্ঠানে ‘জয়বাংলা’স্লোগান বলতে হবে: হাইকোর্ট

আগামী ১৬ ডিসেম্বর থেকে রাষ্ট্রীয় সকল অনুষ্ঠানের শুরুতে ও শেষে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ব্যক্তিদের ‘জয় বাংলা’স্লোগান বলতে হবে বলে মৌখিক নির্দেশনা দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এ সংক্রান্ত রিটের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচাপরপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশনা দেন।

একইসঙ্গে এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ১৪ জানুয়ারি দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত।

আদালতের রিটের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, আব্দুল মতিন খসরু প্রমুখ।

আদালত বলেন, জয় বাংলা স্লোগানই ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে জনগণকে একত্র করেছিল। যার ফলে আমরা পাকিস্তানের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভ করতে পেরেছি।

এর আগে, ২০১৭ সালে জয়বাংলাকে জাতীয় স্লোগান হিসেবে ঘোষণার নির্দেশনা চেয়ে আইনজীবী ড. বশির আহমেদ হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন।

ওই রিটের শুনানি নিয়ে ২০১৭ সালের ৪ ডিসেম্বর ‘জয় বাংলা’কে কেন জাতীয় স্লোগান হিসেবে ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। ওই রুলের ওপর বর্তমানে শুনানি চলছে।

মন্ত্রী পরিষদ সচিব, আইন মন্ত্রণালয় সচিব ও শিক্ষা মন্ত্রণালয় সচিবকে এ রুলের জবাব দিতে হলা হয়েছিল।

এ সংক্রান্ত রিটের শুনানি নিয়ে বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেছিলেন। সে রুলের শুনানি নিয়ে আদালত এই আদেশ দিলেন।

মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) এ-সংক্রান্ত রিটের শুনানিতে হাইকোর্টের বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালত জানায়, রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিরা তাদের ভাষণের শুরুতে ও শেষে জয় বাংলা স্লোগান দেবেন।

আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এসময় অন্যদের মধ্যে ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ, আব্দুল মতিন খসরু ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (বার) সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ৪ ডিসেম্বর মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত ‘জয়বাংলা’ কেন জাতীয় স্লোগান হিসেবে ঘোষণা করা হবে না- জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। এই রুলে মন্ত্রী পরিষদ সচিব, আইন সচিব ও শিক্ষা সচিবকে বিবাদী করা হয়েছে। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলেন হাইকোর্ট।

এ সংক্রান্ত এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ৪ ডিসেম্বর বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

একই রকম সংবাদ সমূহ

এস এম সুলতান পদক পেলেন ড.ফরিদা জামান

এবার সুলতান স্বর্ণ পদক পেলেন খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকবিস্তারিত পড়ুন

অবশেষে আবিষ্কৃত হলো করোনা ভাইরাসের ঔষুধ, সুস্থ হলেন ৪৯ জন

করোনা ভাইরাস মহামারি আকারে ধারন করলেও সম্প্রতি এই ভাইরাসে আক্রান্তরাবিস্তারিত পড়ুন

মুন্সীগঞ্জে জ্বরে চাচী- ভাতিজার মৃত্যু, পরিবারের শঙ্কা ‘করোনা ভাইরাস’

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের মাওয়া সংলগ্ন জসলদিয়া গ্রামের মাত্র ১৬ ঘণ্টার ব্যবধানেবিস্তারিত পড়ুন

  • দেবহাটার এক সংগ্রামী পরিবার: বাবা ছিলেন সিকিউরিটি গার্ড, ছেলে এখন সহকারী জজ
  • মেহেরপুরে বিভাগীয় ইনোভেশন শোকেসিং-এ ‘ক্লিন সাতক্ষীরা, গ্রিন সাতক্ষীরা’র প্রশংসা
  • প্রধানমন্ত্রীর হাতে রান্না করা খাবার সাকিবের বাসায়
  • বাঁশিতে ফু দিয়ে নতুন ট্রেন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • যেভাবে ভ্রমণ করবেন ঢাকা-কলকাতার রুটে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনে
  • ঢাবিছাত্রী ধর্ষণ: ডিএনএ পরীক্ষায়ও মজনুর সম্পৃক্ততার প্রমাণ
  • খেলাধুলার মধ্য দিয়ে এগিয়ে যাক ছেলে-মেয়েরা: প্রধানমন্ত্রী
  • ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে মৌসুমের শেষ শৈত্যপ্রবাহ
  • মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৬ তম জন্মদিন আজ
  • আকাশ থেকে পদ্মাসেতুর ছবি তুললেন প্রধানমন্ত্রী
  • নিজ জন্মভূমি আশাশুনির বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে জনপ্রশাসন সচিব শেখ ইউসুফ হারুন
  • জাতির জনকের সমাধীতে আওয়ামীলীগের নব নির্বাচিত কমিটির শ্রদ্ধা