মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬, ২০২৪

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

দাম বাড়লো বিদ্যুতের, কার খরচ কত বাড়বে

এক বছরের মাথায় গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে সরকার। এ দফায় গ্রাহক পর্যায়ে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম গড়ে সাড়ে ৮ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। নতুন দর অনুসারে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম গড়ে বেড়েছে ৭০ পয়সা। ফেব্রুয়ারি মাসের বিল থেকেই নতুন এ দাম কার্যকর করা হবে।

নতুন এ মূল্য নির্ধারণের পর কোন ব্যবহারকারীর কত বিদ্যুৎ বিল বাড়তে পারে, তা জানিয়েছেন বিদ্যুৎ বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

বিদ্যুতের দাম বিভিন্ন গ্রাহক শ্রেণিতে ভাগ করে নির্ধারণ করা হয়। এ দফায় বাসাবাড়িতে সবচেয়ে কম বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের জন্য বেড়েছে ইউনিটপ্রতি ২৮ পয়সা। এ গ্রাহকেরা মাসে সর্বোচ্চ ৫০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহার করেন। এটি লাইফলাইন শ্রেণি, সাধারণত দরিদ্র মানুষ এ শ্রেণির গ্রাহক। তারা মূলত বাসায় একটি ফ্যান ও দুটি বাতি চালান। সাড়ে ৬ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে তাদের জন্য। মাসে তাদের বিদ্যুৎ বিল বাড়তে পারে ২২ টাকা। প্রতি ইউনিট ৪ টাকা ৩৫ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪ টাকা ৬৩ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এরপর প্রথম ধাপ হিসেবে ৭৫ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের জন্য আরেকটি শ্রেণি আছে। বর্তমানে এ শ্রেণির প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম ৪ টাকা ৮৫ পয়সা। এখানে ৮ দশমিক ৪ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এতে প্রতি ইউনিটে বেড়েছে ৪১ পয়সা। এ গ্রাহকেরা দুটি বাতির সঙ্গে দুটি ফ্যান চালান। মাসে এ শ্রেণির গ্রাহকের বিল বাড়তে পারে ৪০ টাকা। এ শ্রেণির প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের নতুন দাম ৫ টাকা ২৬ পয়সা।

দ্বিতীয় ধাপে আছে ৭৬ থেকে ২০০ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীরা। তাদের বাসায় একাধিক বাতি, ফ্যান, ফ্রিজ ব্যবহৃত হয়। এর মধ্যে ছোট পরিবারের কেউ কেউ একটি শীতাতপনিয়ন্ত্রণ যন্ত্রও (এসি) ব্যবহার করতে পারেন। এ শ্রেণিতে বেড়েছে ৫৭ পয়সা। এতে মাসে ১২২ টাকা বিল বাড়তে পারে। ৬ টাকা ৬৩ পয়সা থেকে বাড়িয়ে প্রতি ইউনিটের নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৭ টাকা ২০ পয়সা।

তবে সবচেয়ে বেশি বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের জন্য ইউনিটপ্রতি বেড়েছে ১ টাকা ৩৫ পয়সা। তারা বাসায় একাধিক এসিসহ বিদ্যুৎ–চালিত অনেক যন্ত্র ব্যবহার করেন। মাসে তাদের ব্যবহার ৬০০ ইউনিটের বেশি। মূলত বিত্তবানেরা এ শ্রেণির গ্রাহক। তাদের জন্য সরকারের কোনো ভর্তুকি নেই। উৎপাদন খরচের চেয়ে বেশি দামে বিদ্যুৎ কেনেন তারা। বর্তমানে তাদের প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম ১৩ টাকা ২৬ পয়সা। ১০ শতাংশের বেশি বাড়িয়ে এ শ্রেণিতে নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ টাকা ৬১ পয়সা। এতে তাদের মাসের বিল ১ হাজার ৪৪৩ টাকা বাড়তে পারে।

এর বাইরে কৃষিকাজের সেচে ব্যবহৃত বিদ্যুতের দাম বেড়েছে ৪৩ পয়সা। এ ক্ষেত্রে সাড়ে ৮ দশমিক ৯ শতাংশ দাম বাড়ানো হয়েছে। ফলে ৫০০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহারকারী একজন সেচ গ্রাহকের মাসে বিল বাড়তে পারে ২৬২ টাকা। প্রতি ইউনিটের দাম ৪ টাকা ৮২ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৫ টাকা ২৫ পয়সা করা হয়েছে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

মুক্তিপণ নয়, আন্তর্জাতিক চাপেই নাবিকরা মুক্ত : নৌপ্রতিমন্ত্রী

সোমালিয়ান জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্তিপণ দিয়ে ২৩ নাবিকের মুক্তির কথা জানা গেলেওবিস্তারিত পড়ুন

হাসপাতালের প্রিজন সেলে আসামির হাতে আসামি খুন

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের প্রিজন সেলে হত্যা মামলার এক আসামিকেবিস্তারিত পড়ুন

‘৫০ লাখ ডলার দিয়ে’ ছাড়া পেল এমভি আবদুল্লাহ

৫০ লাখ ডলার মুক্তিপণ নিয়ে ২৩ নাবিকসহ সোমালিয়ার জলদস্যুদের হাতে জিম্মি বাংলাদেশিবিস্তারিত পড়ুন

  • ‘একটা মাস কীভাবে কেটেছে, তা বলতে পারব না’
  • আজ পহেলা বৈশাখ ১৪৩১
  • বাংলা নববর্ষ অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে: প্রধানমন্ত্রী
  • চলতি বছর ছাড়াতে পারে তাপমাত্রার রেকর্ড
  • ডেঙ্গু চিকিৎসায় যেসব পদক্ষেপ নিতে বললেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী
  • ইসরায়েল থেকে ফ্লাইট ঢাকায় নামল যে কারণে
  • পহেলা বৈশাখে হামলার শঙ্কা নেই: ডিএমপি কমিশনার
  • ঈদের ছুটিতেও স্বাস্থ্যসেবায় ব্যাঘাত ঘটেনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
  • ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে মোদির চিঠি
  • আ. লীগ খেতে নয়, জনগণকে দিতে আসে : প্রধানমন্ত্রী
  • মালয়েশিয়ায় ঈদের দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি নিহত
  • ও মন রমজানের ঐ রোজার শেষে এলো খুশির ঈদ