শনিবার, জানুয়ারি ২৩, ২০২১

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

আরসিসি ব্লক স্থাপনের দাবি

ইছামতি নদী গর্ভে দেবহাটার ভাতশালা মহাশ্মাশান কালী মন্দির

ভাতশালা বাজার তৎসংলগ্ন মহাশ্মাশান নদীর গর্ভে বিলীন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। বছর বছর নদী ভাঙ্গনে শ্মশানের জমি নদীতে মিশে যেতে শুরু করেছে। নদী ভাঙ্গন রোধে স্থায়ী ব্যবস্থা নেওয়া না হলে একসময় মহাশ্মশান মন্দিরের পুরোটাই নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা বিরাজ করছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ভাতশালা বাজার ও বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন অবস্থিত মহাশ্মশানটি নদী পাড়ে অবস্থিত হওয়ায় ধীরে ধীরে তা ধ্বসে নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া ঐ শ্মশান মন্দিরের পাশ্ববর্তী এলাকা থেকে ড্রেজারের মাধ্যমে বালু উত্তোলনের ফলে নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে ভাঙ্গন লেগে থাকে। প্রতিবছর এসব ভাঙ্গন রোধে সরকারের বহু টাকা ব্যায় হলেও স্থায়ী কোন সমাধান হয় না। যে কারণে নদীর গর্ভে বিলীন হওয়ার আতংকে নিয়ে জীবন যাপন করেন সীমান্ত পাড়ের মানুষেরা। একদিকে সরকার নদী ভাঙ্গন রোধে কোটি কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিচ্ছেন। অন্যদিকে অস্বাধু ব্যবসায়ীরা অধিক মুনফার আশায় তাদের খেয়াল খুঁশি মত নদী থেকে বালু উত্তোলন করে সরকারের মহৎ উদ্যোগকে ¯øান করে চলেছে। সাম্প্রতিক এর ফলে ইছামতি নদীর বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়ে ফলজ-বনজ বৃক্ষের বাগান, ফসলী জমি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শতশত ঘর-বাড়ীর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্মূখিন হতে হয়।

ভাতশালা গ্রামের গোপাল বিশ্বাস জানান, তাদের শত বছরের ঐতিহ্য শ্মশান কালী মন্দিরে সন্ধ্যা আরতি, সাপ্তাহিক আরাধনা, বার্ষিক কালী পুজা, মৃত মানুষের সৎকার করা হয়। যুগযুগ ধরে তাদের এই কর্মকান্ড চলে আসছে। এখানে ভাতশালা, রহিমপুর, ঘলঘলিয়া, রতেœশ্বরপুর, পাঁচপোতা সহ আশে পাশের এলাকার মানুষ পুজা দিতে এবং তাদের শেষ কার্য সম্পন্ন করতে আসেন এই শ্মশান মন্দিরে। কিন্তু নদী ভাঙ্গনে তাদের এই কর্মকান্ড হুমকিতে ফেলেছে। দ্রæত স্থায়ী ব্যবস্থা না নেওয়া হলে তাদের ধর্মীয় এই প্রতিষ্ঠান রক্ষা করা সম্ভব হবে না।

ভাতশালা মহাশ্মাশন কালী মন্দিরের সভাপতি রমেশ দত্ত জানান, তাদের পূর্ব পুরুষের সুত্র ধরে তারা এই স্থানটিতে ধর্মীয় কাজ সম্পন্ন করে আসছেন। পূর্বে প্রায় ২ বিঘা জমি নিয়ে মন্দিরটি গড়ে তোলা হলেও নদী গর্ভে বিলিন হয়ে বর্তমানে ১০শতকের মত জমিতে দাড়িয়ে আছে মন্দিরটি। তাই নদীর বাধ রক্ষায় আরসিসি ব্লক স্থাপন করে তাদের এই ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানটি রক্ষার দাবি জানিয়েছেন তারা।

একই রকম সংবাদ সমূহ

দেবহাটায় সরিষা প্রদর্শনীর মাঠ দিবস

দেবহাটায় রাজস্ব খাতের অর্থায়নে বাস্তবায়িত সরিষা প্রদর্শনীর আওতায় মাঠ দিবসবিস্তারিত পড়ুন

পারুলিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে স্যানিটারি ন্যাপকিন বিতরণ

দেবহাটার পারুলিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের মাঝে স্যানিটারি ন্যাপকিন বিতরণবিস্তারিত পড়ুন

দেবহাটায় নারীদের আয়বৃদ্ধি মূলক কর্মসূচি প্রকল্পের সুবিধাভোগী বাছাই

সাতক্ষীরার দেবহাটায় মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের অধিনে নারীদের আয়বৃদ্ধি মূলক কর্মসূচিবিস্তারিত পড়ুন

  • দেবহাটায় হুফফাজুল কুরআন প্রতিযোগীতা ও পুরস্কার বিতরণ
  • দেবহাটায় সাবেক সেনাসদস্যের পরিবারকে আবারো হুমকির অভিযোগ
  • সাতক্ষীরা-কালীগঞ্জ সড়ক আঞ্চলিক মহাসড়কে উন্নীত হবে: সচিব সফিকুল আহম্মদ
  • দেবহাটায় বাসগৃহের চাবি হস্তান্তর ও শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ
  • জমিজমার বিরোধে সাতক্ষীরায় এক পরিবারের উপর হামলা
  • দেবহাটায় সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলায় সাবেক সেনা সদস্য সহ একই পরিবারে পাঁচজন আহত
  • সাতক্ষীরার দেবহাটায় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবকে সংবর্ধনা
  • সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা
  • এমজেএফ বিশেষ প্রতিবন্ধি স্কুলের দুর্নীতির অভিযোগে তদন্ত
  • দেবহাটা উপজেলা চেয়ারম্যান মুজিবর রহমানের শপথ গ্রহন
  • দেবহাটার শাঁখরা-কোমরপুর ব্রেইলী ব্রিজ পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক
  • দেবহাটায় ওয়ারেন্টভুক্ত এক আসামী গ্রেপ্তার
  • error: Content is protected !!