শনিবার, এপ্রিল ১০, ২০২১

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

ইতিহাস সৃষ্টি করলেন শেখ হাসিনা

মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন প্রায় ৭০ হাজার পরিবারকে পাকা ঘরসহ বাড়ি উপহার দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এটিই বিশ্বে গৃহহীন মানুষকে বিনামূল্যে ঘর করে দেওয়ার সবচেয়ে বড় কর্মসূচি।শনিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কর্মসূচি উদ্বোধন করেছেন।

এ সময় লাইভে সংযুক্ত ছিল- খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলা, চাপাইনবাবগঞ্জ সদর, নীলফামারীর সৈয়দপুর ও হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা প্রশাসন। পাশাপাশি, দেশের সব উপজেলাই অনলাইনে এ অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়েছে।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় প্রায় ৯ লাখ মানুষকে পুনর্বাসন প্রক্রিয়া চলছে। এ মাসে ৭০ হাজারের পাশাপাশি আগামী মাসে আরও ১ লাখ পরিবার বাড়ি পাবে।

আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর পরিচালক মো. মাহবুব হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, পৃথিবীতে এটিই প্রথম এবং একমাত্র ঘটনা; একসঙ্গে এতো মানুষকে জমির মালিকানা দিয়ে পাকা ঘর করে দেয়া। এটি মূলত মুজিববর্ষে গরীব ও অসহায় মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার।

তথ্য মতে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে মুজিববর্ষ ঘোষণা করে সরকার। মুজিববর্ষে কেউ গৃহহীন থাকবে না- এ লক্ষ্য বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে আশ্রায়ন-২ প্রকল্পের অধীনে চলমান কর্মসূচির প্রথম পর্যায়ে সারাদেশে ঘর পেলো ৬৯ হাজার ৯০৪ ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবার। দেশের ভূমিহীন ও গৃহহীনদের ঘর করে দিতে এখন পর্যন্ত প্রায় ৯ লাখ পরিবারকে তালিকাভূক্ত করেছে শেখ হাসিনা সরকার।

৬৯ হাজার ৯০৪ পরিবারের মধ্যে ৬৬ হাজার ১৮৯টি ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে দুই শতাংশ খাস জমির মালিকানা দিয়ে বিনা পয়সায় ২ কক্ষবিশিষ্ট ঘর মুজিববর্ষের উপহার হিসেবে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একইসঙ্গে ব্যারাকের মাধ্যমে ২১টি জেলার ৩৬টি উপজেলায় ৪৪ প্রকল্পের মাধ্যমে ৩৭১৫টি পরিবারকে ব্যারাকে পুনর্বাসন করা হয়।

প্রতিটি ঘর দুই কক্ষ বিশিষ্ট। এতে দুটি রুম ছাড়াও সামনে একটি বারান্দা, একটি টয়লেট, একটি রান্নাঘর এবং একটি খোলা জায়গা থাকবে।

আশ্রয়ণ প্রকল্পের উদ্দেশ্য হলো- ভূমিহীন, গৃহহীন, ছিন্ন অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পুনর্বাসন, ঋণপ্রদান ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহে সক্ষম করে তোলা এবং আয় বাড়ে এমন কার্যক্রম সৃষ্টির মাধ্যমে দারিদ্র্য দূরীকরণ।

এর আগে গত ২৩ জুলাই কক্সবাজার জেলায় জলবায়ু উদ্বাস্তুদের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে বড় আশ্রয়কেন্দ্র খুরুশকুল আশ্রায়ণ প্রকল্পের প্রথম ধাপে নির্মিত ২০টি ভবনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সেখানে প্রথম ধাপে উদ্বোধন হওয়া ভবনগুলোতে ফ্ল্যাট পেয়েছেন ৬০০টি পরিবার। ১০০১ টাকা নামমাত্র মূল্যে এসব ফ্ল্যাট হস্তান্তর করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়ার গাছে গাছে উঁকি আমের গুটির, বাতাসে দুলছে স্বপ্ন আম চাষীর

‘সংসার সাগর তরঙ্গের মেলা, আশা তার একমাত্র ভেলা’, তাই আশায় বুক বেধেবিস্তারিত পড়ুন

ফরিদপুরে করোনা রোগী বহনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস

ফরিদপুরে করোনা রোগী বহনে ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের ব্যবস্থা করেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগ। শনিবারবিস্তারিত পড়ুন

মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে ১০০ মণ জাটকা ফেলে পালিয়ে গেলেন পাচারকারীরা

মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে একটি পিকআপ ভ্যান থেকে ১০০ মণ জাটকা ইলিশ জব্দ করেছেবিস্তারিত পড়ুন

  • মূল পদ্মা সেতুর সাড়ে ৪ কিমি’র বেশি সড়ক প্রস্তুত
  • রাজধানীর বাজারগুলোতে চাল-তেল-আদা-রসুনের দাম বেড়েছে
  • জনপ্রিয় অভিনেতা রিয়াজ দ্বিতীয় টেস্টেও করোনা পজিটিভ
  • প্রেমিকের বিশেষ অঙ্গ কেটে দিলেন প্রেমিকা
  • মামুনুলকে আসামি করে আরো ৩ মামলা
  • দায়িত্বের আড়াই বছর পূর্তিতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের খোলা চিঠি
  • শ্যামনগরে খেলার সময় বিদ্যুতের তার গায়ে পড়ে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু
  • সরকারি-বেসরকারি সকল অফিস ও গণপরিবহন বন্ধ ঘোষণা ১৪ এপ্রিল থেকে
  • অপহরণ করে টাকা আদায়, পুলিশের হাতে র‌্যাবের ৪ সদস্য আটক
  • শিশুবক্তা’ মাওলানা রফিকুলের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৩০ মে
  • শ্যামনগরে সরকারি গাছ মারতে গোড়ায় কেমিক্যাল মিশ্রিত পানি দিল দুর্বৃত্তরা
  • ফকিরহাটে বিশ্বরোড জামে মসজিদে মহিলাদের নামাজের স্থানের উদ্বোধন
  • error: Content is protected !!