সোমবার, জানুয়ারি ৩০, ২০২৩

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

কলারোয়ায় কৃষি কর্মকর্তার পরামর্শে সবজি চাষে কৃষকের ভাগ্যের পরিবর্তন

কলারোয়ায় প্রদর্শনীর কর্মসূচীর আওতায় উপকারভোগী কৃষকদের সাফল্যগাঁথা রয়েছে কৃষকের মাঠ জুঁড়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার সঠিক পরামর্শে সফলতার দিক খুঁজে পেয়েছেন কৃষকরা।
বসতবাড়ির আঙ্গিনায় কৃষি ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তি সম্প্রসারণের মাধ্যমে নিরাপদ সবজি বাগান প্রদর্শনী কৃষকের সাফল্য গাঁথা নিরাপদ শাক সবজি ও ফসল আবাদ করে নিজের ভাগ্য বদল করেছেন কলারোয়া উপজেলার সাধারণ কৃষক-কৃষাণী। নিরাপদ শাক সবজি উৎপাদন করে কলারোয়ার কৃষকরা রোল মডেলে পরিণত হয়েছে।
উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ আবুল হোসেনের সাথে যোগাযোগ করে নিরাপদ সবজি উৎপাদনের জন্য ইচ্ছা পোষণ করেন উপজেলার ১২টি
ইউনিয়নের শত শত কৃষক ও কৃষাণী। বর্তমানে কৃষির প্রতি অগাধ ভালোবাসা এবং নতুন নতুন প্রযুক্তি গ্রহণের অদম্য আগ্রহ দেখে উপজেলা কৃষি অফিসারের তত্তবাবধানে ৭০ শতাংশ জমিতে সবজি চাষ হয়েছে।
উপজেলা কৃষি ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ফল এবং সবজি উৎপাদন, বাজারজাতকরণ কর্মসূচির আওতায় বসতবাড়ির আঙ্গিনায় কৃষি ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তি সম্প্রসারণের মাধ্যমে সবজি বাগান এর প্রদর্শনী স্থাপন করা হয়েছে।
উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ আবুল হোসেনের সঠিক দিক নির্দেশনার মাধ্যমে উপজেলায় ৬হাজার ৭শ হেক্টর জমিতে সরিসা চাষ, ৩২শ বিঘা জমিতে উপসি ধান চাষ, ৩৫০বিঘা জমিতে গম চাষ, ৭০বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ, ২৫০বিঘা জমিতে সূর্যমূখী চাষ হচ্ছে। সর্বমোট ১২হাজার ৫০০শ হেক্টর জমিতে চাষ শুরু হয়েছে। সরকার কৃষি প্রণোদনায় সার-বীজ ফ্রিতে দিচ্ছেন।
উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ আবুল হোসেনের দেয়া পরামর্শে কৃষকের জমিতে লাল শাক, ডাটা ফসলসহ অন্যান্য ফসল আবাদ শুরু হয়েছে। অনেকে নিরাপদ সবজি চাষাবাদ করে এবং লাভবান হয়ে অনেক খুশি। নিরাপদ ফসল আবাদ করে এবং জৈব সার, জৈব বালাইনাশক ব্যবহার করে ফসল উৎপাদন করলে মাটির গুণাগুন ভাল থাকে, পরিবেশ নির্মল থাকে এবং সেই সাথে নিরাপদ সবজি খেলে রোগমুক্ত ও সুস্থ
জীবনযাপন সম্ভব হয়।
যুগিখালী ইউনিয়নের কামারালী গ্রামের কৃষক আব্দুস সামাদ বলেন, রাসায়নিক সারের বিকল্প হিসেবে জৈবসার তৈরি ও তার ব্যবহার বিধি শিখেছি। রোগ-বালাই হলে কোন সময় কোন ওষুধ দিতে হবে সেই পরামর্শ নিয়েছি। আগে কৃষি সম্পর্কে পরামর্শ নিতে হলে শহরে যেতে হতো। এখন কৃষকদের বাড়িতেই ছুটে আসছেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তারা। এমন হলে আমাদের উপজেলায় কৃষিতে বিপ্লব ঘটবে।
উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ আবুল হোসেন বলেন, কলারোয়া মাটিতে সব ধরনের ফসল উৎপাদন হয়। এজন্য কৃষি নিয়ে কৃষকদের সবসময়ই পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। আমাদের সাধ্যমত কৃষকদের সেবা দিয়ে যাচ্ছি। কারণ একজন প্রকৃত কৃষক এদেশের বড় সম্পদ তারা তাদের মেধাকে কাজে লাগিয়ে সবজি চাষ করে দেশকে আরো এগিয়ে নিতে পারবে। এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

একই রকম সংবাদ সমূহ

কলারোয়ায় বেড়বাড়ি ৯ নং ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি রমজান আলী আর নেই

কলারোয়ার কেরালকাতায় প্রবীন আ’লীগ নেতা রমজান আলী আর নেই। আ’লীগ দলীয় সুত্রেবিস্তারিত পড়ুন

মানবাধিকার কর্মী রঘুনাথ খাঁর মুক্তির দাবি করেছে কলারোয়া পৌর প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ

দীপ্তটিভির জেলা প্রতিনিধি মানবাধিকার কর্মী রঘুনাথ খাঁর মুক্তির দাবি জানিয়েছেন কলারোয়া পৌরবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় শিক্ষার মান বৃদ্ধি করনে ৫৮ সহকারী শিক্ষক নিয়োগ।। যোগদানোত্তর সংবর্ধনা

কলারোয়ায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান বৃদ্ধি করণে ৫৮জন নতুন সহকারী শিক্ষক নিয়োগবিস্তারিত পড়ুন

  • কলারোয়ায় অসহায় মানুষের পাশে দাড়ালেন আমজাদ হোসেন
  • কলারোয়ায় আলাইপুরে কৃষকদের মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত
  • কলারোয়া পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মনোরঞ্জন সাহা আর নেই
  • কলারোয়ার কাকডাঙ্গা মাদ্রাসার অধ্যক্ষের ইন্তেকাল
  • কলারোয়ার সীমান্ত প্রেসক্লাবে দৈনিক পত্রদূতের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
  • কলারোয়া পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মনোরঞ্জন সাহার মৃত্যুতে শোক
  • কলারোয়ায় খাল খনন করলেন পৌর মেয়র মনিরুজ্জামান বুলবুল
  • কলারোয়ায় সরকারি হাসপাতাল সংলগ্ন ড্রেনটি ময়লা-আবর্জনার স্তুপে বেহাল দশা
  • সাবেক এম এল এ মমতাজ আহমেদের সহধর্মিণীর মৃত্যুতে কলারোয়া প্রেসক্লাবের শোক
  • কলারোয়ায় ফুলে ফুলে ভরে গেছে ঔষধি গুনে সমৃদ্ধ সজনে গাছ
  • কলারোয়ায় প্রয়াত মমতাজ আহমেদের সহধর্মিণীর ইন্তেকাল
  • কলারোয়ায় মাসিক আইন শৃঙ্খলা ও এনজিও সমন্বয় সভা
  • error: Content is protected !!