সোমবার, অক্টোবর ৩, ২০২২

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

গৌড়মতি আমে নতুন সম্ভাবনা, মণ ১২ হাজার

দেশের বেশির ভাগ জাতের আমের জোগান যখন শেষ হয়, ঠিক তখনই পাকতে শুরু করে গৌড়মতি। আমটি যেমন রসালো, তেমনি সুস্বাদু। এই নাবি জাতের আম চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাবু আলী নামে এক চাষি। গৌড়মতি আম আট থেকে ১২ হাজার টাকা মণ বিক্রি করছেন তিনি।

কৃষি বিভাগ বলছে, গৌড়মতি আমে অর্থনৈতিকভাবেও দেখা দিয়েছে নতুন সম্ভাবনা। কারণ মৌসুম শেষে বাজারে আসায় দামও বেশি পাওয়া যাচ্ছে।

শুক্রবার (১২ আগস্ট) বিকেলে সদর উপজেলার আমনুরা রোডের জামতলাবাজার এলাকার বাবু আলীর আমিরা এগ্রো ফার্মে গিয়ে দেখা যায়, ২০ বিঘা জমি বর্গা নিয়ে গৌড়মতি আমের বাগান করেছেন তিনি। বাগানে প্রায় দুই হাজার আমের গাছ রয়েছে। গত ১০ দিন থেকে এই আম দেশের বিভিন্নস্থানে সরবরাহ করছেন তিনি। এরই মধ্যে প্রায় সাড়ে পাঁচ লাখ টাকার আম বিক্রি করেছেন। আশা করছেন, আরও ১৫ লাখ টাকার আম বিক্রি করবেন।
আমিরা এগ্রো ফার্মের মালিক বাবু আলী বলেন, পাঁচ বছর আগে ৩২ বিঘা জমি বর্গা নিয়ে বিভিন্ন ফলের বাগান গড়ে তুলেছি। এর পরে তিন বছর আগে ২০ বিঘা জমিতে দুই হাজার গৌড়মতি আমের গাছ লাগিয়েছিলাম। গতবছর থেকেই এ গৌড়মতির গাছে আম আসতে শুরু করেছে। গত বছর প্রায় আট লাখ টাকার আম বিক্রিও করেছি। তবে এবার আশা করছি, ২০ লাখ টাকার বেশি আম বিক্রি করতে পারব। যতদিন যাবে গাছ আরও বড় হবে। আমের ফলনও বাড়বে বলে আশা করছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা এই আম এ জেলার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্নস্থানে সরবরাহ করছি। বর্তমানে গৌড়মতি আম ৮ থেকে ১২ হাজার টাকা মণ দরে বিক্রি হচ্ছে।

শাহিদ নামে এক কলেজছাত্র বলেন, কিছুদিন আগে শুনেছি এই বাগানে গৌড়মতি আম পাওয়া যায়। তাই আজকে এক হাজার টাকায় পাঁচ কেজি আম কিনলাম। এই আম খুবই সুস্বাদু।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য) রাজিবুর রহমান বলেন, আমটির প্রথম সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল চাঁপাইনবাবগঞ্জে। তাই বাংলার প্রাচীন এই জনপদের নাম থেকে ‘গৌড়’ আর মূল্য বিবেচনায় রত্নের সঙ্গে তুলনা করে ‘মতি’ শব্দের সমন্বয়ে নতুন জাতের এই আমটির ২০১৩ সালে নামকরণ করা হয়েছিল ‘গৌড়মতি’।

তিনি বলেন, এটি একটি নাবি জাতের আম। সারাদেশের আমের জোগান যখন শেষ হয়, তখনই পাকতে শুরু করে এই গৌড়মতি। এই আম অত্যন্ত সুস্বাদু। আর যেহেতু সব আমের শেষে পাকে এই তাই দামও বেশ ভালো পান চাষিরা। এই আম জেলার জন্য একটি নতুন অর্থনৈতিক সম্ভাবনা।

একই রকম সংবাদ সমূহ

চা-শ্রমিকদের মজুরি বাড়ানো হয়েছে ২৫ টাকা, ধর্মঘট প্রত্যাহার

চা-শ্রমিকদের মজুরি বাড়ানো হয়েছে ২৫ টাকা, মোট দৈনিক মজুরি ১৪৫ টাকা নির্ধারণেরবিস্তারিত পড়ুন

সপ্তম দিনেও ধর্মঘাট অব্যাহত শ্রমিকদের, চা-শিল্পে ক্ষতি

৭ম দিনেও মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে ধর্মঘট করছেন চা শ্রমিকরা। ট্রেড ইউনিয়নভুক্ত বাংলাদেশেরবিস্তারিত পড়ুন

একজন চা শ্রমিকের দৈনিক ১২০ টাকা মজুরি অমানবিক

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে দিশেহারা চা শ্রমিকরা। সমাজের তৃণমূল পর্যায়ের এই শ্রমিকগোষ্ঠী কোনোভাবেই খাপবিস্তারিত পড়ুন

  • ইউরিয়া সারের দাম বেড়েছে কেজিতে ৬ টাকা
  • বাগেরহাটের শরণখোলার সফল খামারি মারুফা আকতার
  • সাতক্ষীরায় কৃষি আবহাওয়া তথ্য পদ্ধতি উন্নতকরণে রোভিং সেমিনার
  • ঝিকরগাছায় কৃষি জলবায়ুর ওপর রোভিং সেমিনার
  • নড়াইলে পতিত জমিতে লেবু চাষে সাফল্য যুবকের
  • ‘বর্তমান সরকার কৃষিবান্ধব’ : কলারোয়ায় কৃষি সিআইজি কংগ্রেসে উপজেলা চেয়ারম্যান
  • কলারোয়ায় পানির দরে পান বিক্রি, বিপাকে পান-চাষীরা
  • কলারোয়ায় প্রাণী সম্পদ অফিসে উপকরণ বিতরণে লুটপাটের অভিযোগ
  • সাতক্ষীরায় আমন ধানের আধুনিক চাষাবাদ পদ্ধতি ও বীজ সংরক্ষণে কৃষক প্রশিক্ষণ
  • সাতক্ষীরায় অনলাইনে কৃষিপন্য বিক্রিতে কৃষকদের প্রশিক্ষণ
  • কলারোয়ার আনাচে-কানাচে খেজুর গাছে ধরেছে কমলা রঙের খেজুর
  • error: Content is protected !!