বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৩

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

নড়াইলের আমাদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে পাঠদান

নড়াইলের আমাদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে পাঠদান। নড়াইলের আমাদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২৪ নভেম্বর ছাদের বিমের পলেস্তারা খসে পড়ে। তবে কেউ হতাহত হয়নি।

বেলা সাড়ে ১১টা। বিদ্যালয়ে চলছে কার্যক্রম।উজ্জ্বল রায়, হঠাৎ ছাদের বিমের পলেস্তারা খসে পড়ে একটি শ্রেণিকক্ষে। ভেঙে যায় বেঞ্চ ও চেয়ার। মেঝেতে ছড়িয়ে–ছিটিয়ে পড়ে সেসব পলেস্তারা। তবে শিক্ষার্থীরা তখন কক্ষে না থাকায় রক্ষা পেয়েছে।

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার আমাদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২৪ নভেম্বর ওই ঘটনা ঘটে। বিদ্যালয়ের একতলা ভবনের একটি কক্ষে পলেস্তারা খসে পড়ে। এর আগেও ছাদের পলেস্তারা খসে পড়েছে ওই ভবনের। ছয়-সাত বছর ধরে জরাজীর্ণ ভবনটি। কক্ষ-সংকটের কারণে ওই ভবনে পাঠদান ও অফিসের কার্যক্রম চলে।

১৯৭২ সালে আমাদা গ্রামে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত। বর্তমানে শিক্ষার্থী আছে প্রায় সাড়ে তিন শ। বিদ্যালয়ে বর্তমানে একটি একতলা ভবন ও দুটি টিনশেড ঘর আছে। টিনশেড ঘর দুটিতে আছে ছয়টি কক্ষ। এর চারটি শ্রেণিকক্ষ, একটি কক্ষে লাইব্রেরি ও আরেকটিতে বিজ্ঞানাগার। একতলা ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছিল ১৯৯৪-৯৫ অর্থবছরে। ভবনটিতে তিনটি কক্ষ আছে। এর একটি শ্রেণিকক্ষ, একটি ছাত্রী মিলনায়তন, আরেকটিতে প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষকেরা বসেন ও অফিসের কার্যক্রম চলে। পলেস্তরা খসে পড়া কক্ষটিতে নবম শ্রেণির ক্লাস হতো। বর্তমানে সেখানে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে না।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, একতলা ভবনটি জরাজীর্ণ। বিমের তিন ভাগের এক ভাগ পলেস্তারা খসে রড বের হয়ে গেছে। চেয়ার, বেঞ্চ ও মেঝেতে বিমের বড় বড় অংশ ভেঙে পড়ে আছে। ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে সেগুলো। ঝুঁকিপূর্ণ ওই ভবনে পাশের একটি কক্ষে ঠাসাঠাসি করে বসা প্রধান শিক্ষকসহ অন্য শিক্ষকেরা। সে কক্ষেই বসে অফিস সহকারীরা অফিসের কার্যক্রম চালাচ্ছেন। ভবনটির একটি কক্ষের মেঝে দেবে গেছে। টিনশেড ভবন দুটির দেয়ালে ফাটল ধরেছে। একটি টিনশেড ঘরের অবস্থা বেশি জরাজীর্ণ।

নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী লামিয়া, নাসরিন, আরমান ও রবিউল জানায়, সেদিন (২৪ নভেম্বর) পলেস্তারা খসে পড়ার সময় ওই কক্ষে থাকলে বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। বিদ্যালয়ের মাঠে একটি কর্মসূচিতে ছিল। ওই কক্ষে বর্তমানে পাঠদান বন্ধ রয়েছে।

বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আলমগীর গাজী বলেন, একমাত্র একতলা ভবনটি ব্যবহার অনুপযোগী। গত প্রায় সাত বছর ধরে জরাজীর্ণ ওই ভবনটিতে পলেস্তারা খসে পড়ে। গত বছর বিদ্যালয়ের নিজস্ব অর্থে ২০ হাজার টাকা খরচ করে মেরামত করা হয়। এখন মেরামত যোগ্যও নয়। তারপর ঝুঁকি নিয়ে সেখানে সব কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে।

প্রধান শিক্ষক নির্মল কুমার কুন্ডু বলেন, ‘গত প্রায় সাত বছর ধরে মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে ওই ভবনে কাজ চালাতে হচ্ছে। নতুন ভবন খুবই জরুরি। আমরা দীর্ঘদিন চেষ্টা করেও নতুন ভবন পাচ্ছি না।

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এস এম ছায়েদুর রহমান বলেন, বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে নতুন ভবন অনুমোদনের জন্য যে ধরনের প্রক্রিয়া রয়েছে, সে ব্যাপারে তাঁদের সহযোগিতা করা হবে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

নড়াইলে অধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১২জন আহত

অধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নড়াইলে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ১২জন আহত হয়েছে। আহতদেরবিস্তারিত পড়ুন

নড়াইলে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ জাল দলিল ও নকল সরঞ্জাম জব্দ

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের কাশেম সরদার (৩৯) এর বাড়িতে অভিযান চালিয়েবিস্তারিত পড়ুন

নড়াইলে নিখোঁজের ৫ দিন পর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

নড়াইলের নড়াগাতি থানার পাটনা সুইসগেট সংলগ্ন চিত্রা নদী (বানকানা) নদী থেকে নিখোঁজবিস্তারিত পড়ুন

  • নড়াইলে মধু সংগ্রহে ব্যস্ত মৌ-চাষিরা
  • নড়াইলে গোপন বৈঠকের সময় জামায়াতের ১১ নেতাকর্মী গ্রেফতার
  • নড়াইলে ৪ বছরের শিশুকে ফেলে প্রেমিকের হাত ধরে ঘর ছাড়লেন মা
  • নড়াইলে ৪ বছরের শিশু সন্তানকে ফেলে প্রেমিকের হাত ধরে ঘর ছাড়লেন মা!
  • নড়াইলে স্কুলছাত্রীকে ইভটিজিং, যুবককে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড
  • নড়াইলে জামায়াতের ১১ নেতাকর্মী গ্রেফতার
  • নড়াইলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে বিয়ে স্ত্রীর মর্যাদা না পাওয়ায় থানায় মামলা
  • নড়াইলে নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে যুবক নিখোঁজ, ৩দিন পর লাশ উদ্ধার
  • নড়াইলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে শিক্ষার্থীকে বিয়ে, স্ত্রীর মর্যাদা চাওয়ায় নির্যাতন!
  • নড়াইলে পুলিশ সুপারের কার্যালয়, পরিদর্শনে অ্যাডিশনাল আইজি’র
  • নড়াইলের মধুমতি নদীতে যুবক নিখোঁজ
  • নড়াইলে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত
  • error: Content is protected !!