বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৩

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

নড়াইলের মধুমতি নদীতে নৌকাবাইচ দেখতে দুই পাড়ে উপচেপড়া ভিড়

নড়াইলের মধুমতি নদীতে নৌকাবাইচ দেখতে দুই পাড়ে দুই জেলার মানুষের উপচেপড়া ভিড়।

আবহমান গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ দেখতে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার ইতনায় মধুমতি নদীর দুই পাড়ে দুই জেলার মানুষের উপচেপড়া ভিড় জমেছিলো।

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার ইতনা ও গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার চরভাটপাড়াসহ নদীর দুপাড়ের কয়েকটি গ্রামের মানুষের যেন মিলন মেলায় রূপ নিয়েছিলো নৌকাবাইচের এই অনুষ্ঠান।

গতকাল বিকেল জুড়ে নির্মল আনন্দ উপভোগ করেছেন দুই পাড়ের মানুষ। নদীর পাড়ে দাঁড়িয়ে, আবার নদীতে নৌকা ও ট্রলারে ঘুরে ঘুরে নৌকাবাইচ উপভোগ করেছেন শত শত মানুষ।

প্রতিযোগিতায় নড়াইল, মাগুরা ও মাদারীপুর জেলার ৫টি নৌকা অংশগ্রহণ করে।

ইতনার আতোষপাড়া থেকে শুরু হয়ে জয়বাংলার খেয়াঘাট পর্যন্ত প্রায় দুই কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গার কালু ফকিরের নৌকা, দ্বিতীয় হয়েছে মাগুরার কালিশংকরপুরের কবির হোসেনের নৌকা এবং তৃতীয় হয়েছে মাদারীপুরের বাহের আলী নৌকা।

প্রথম বিজয়ী নৌকাকে একটি ফ্রিজ, দ্বিতয়ি বিজয়ী নৌকাকে ৩২ ইঞ্চি এলইডি টেলিভিশন এবং তৃতীয় বিজয়ী নৌকার মালিককে ২৪ ইঞ্চি একটি এলইডি টেলিভিশন পুরষ্কার দেওয়া হয়।

পুরষ্কার বিতরণ করেন নৌকা বাইচ উদযাপন কমিটির আহবায়ক ব্যবসায়ী মোঃ ইকবাল হোসেন, ইতনা ইউনিয়ন বিট পুলিশের কর্মকর্তা এস, আই মিজানুর রহমান, নৌকা বাইচ উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব মোঃ বকুল মুন্সী সহ অনেকে।

এদিকে, নদীর দুপাড়ে নড়াইল গোপালগঞ্জ জেলার হাজার হাজার দর্শক প্রতিযোগিতা উপভোগ করেন। দীর্ঘদিন পর এমন আয়োজনে খুশি দুইপাড়ের নানা বয়সী মানুষ। নৌকা বাইচের পাশাপাশি গ্রামীণ সকল খেলাধুলা আয়োজনের দাবি করেছেন আগত দর্শনার্থীদের অনেকেই।

নৌকা বাইচকে ঘিরে নানা রকম মিষ্টির সমাহার নিয়ে বেশ কিছু মিষ্টির দোকানে ব্যাপক ভীড় জমে। এছাড়াও বিভিন্ন পন্যের শতাধিক দোকানে জমজমাট বিক্রি হয়েছে বলে দর্শনার্থীরা জানান।

নৌকা বাইচ উদযাপন কমিটির আহবায়ক মোঃ ইকবাল হোসেন বলেন,‘ গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা ইতনা গ্রামে দীর্ঘদিন পর এবছর থেকে শুরু করা হলো। ১৯৭৪ সালের দিকে পর পর চার বছর নৌকা বাইচ হয়েছিলো। পরবর্তীতে আর নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়নি। তাছাড়া ফেসবুক, ইউটিউব, মোবাইল গেম, আকাশ সংস্কৃতি সহ নানা কারনে বর্তমান সময়ে ঐতিহ্যবাহী এসব খেলাধুলা বিলুপ্তির পথে। তরুন সমাজ সহ মানুষের মাঝে কিছুটা হলেও সুস্থ্য বিনোদন দিতে আমাদের এই আয়োজন। আশা করি আগামী বছর থেকে বৃহৎ পরিসরে নৌকা বাইচের আয়োজন করা হবে। এসজন্য সরকারী পৃষ্ঠপোকতা পেলে ভালো হয়।

একই রকম সংবাদ সমূহ

নড়াইলে অধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১২জন আহত

অধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নড়াইলে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত ১২জন আহত হয়েছে। আহতদেরবিস্তারিত পড়ুন

নড়াইলে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ জাল দলিল ও নকল সরঞ্জাম জব্দ

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের কাশেম সরদার (৩৯) এর বাড়িতে অভিযান চালিয়েবিস্তারিত পড়ুন

নড়াইলে নিখোঁজের ৫ দিন পর ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

নড়াইলের নড়াগাতি থানার পাটনা সুইসগেট সংলগ্ন চিত্রা নদী (বানকানা) নদী থেকে নিখোঁজবিস্তারিত পড়ুন

  • নড়াইলে মধু সংগ্রহে ব্যস্ত মৌ-চাষিরা
  • নড়াইলে গোপন বৈঠকের সময় জামায়াতের ১১ নেতাকর্মী গ্রেফতার
  • নড়াইলে ৪ বছরের শিশুকে ফেলে প্রেমিকের হাত ধরে ঘর ছাড়লেন মা
  • নড়াইলে ৪ বছরের শিশু সন্তানকে ফেলে প্রেমিকের হাত ধরে ঘর ছাড়লেন মা!
  • নড়াইলে স্কুলছাত্রীকে ইভটিজিং, যুবককে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড
  • নড়াইলে জামায়াতের ১১ নেতাকর্মী গ্রেফতার
  • নড়াইলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে বিয়ে স্ত্রীর মর্যাদা না পাওয়ায় থানায় মামলা
  • নড়াইলে নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে যুবক নিখোঁজ, ৩দিন পর লাশ উদ্ধার
  • নড়াইলে প্রেমের ফাঁদে ফেলে শিক্ষার্থীকে বিয়ে, স্ত্রীর মর্যাদা চাওয়ায় নির্যাতন!
  • নড়াইলে পুলিশ সুপারের কার্যালয়, পরিদর্শনে অ্যাডিশনাল আইজি’র
  • নড়াইলের মধুমতি নদীতে যুবক নিখোঁজ
  • নড়াইলে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত
  • error: Content is protected !!