মঙ্গলবার, আগস্ট ৯, ২০২২

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

পশ্চিমবঙ্গেও একের পর এক বন্ধ হচ্ছে সরকারি দপ্তর

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জেরে মাসখানেক আগে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে একের পর এক বন্ধ হচ্ছিল সরকারি দপ্তর। বর্তমানে সেই ছবি ফিরে আসছে পশ্চিমবঙ্গে। রাজ্যেও একের পর এক বন্ধ হচ্ছে সরকারি দপ্তরগুলো।

সংক্রমণের জেরে মঙ্গলবারই কলকাতার জেশপ বিল্ডিংয়ে কৃষি ডিরেক্টরেটের অফিস ফের তিনদিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কিছুদিন আগে ওই দপ্তরে অতিরিক্ত অধিকর্তার করোনা ধরা পড়ায় এই দপ্তরটি বন্ধ করা হয়েছিল। গোটা অফিস স্যানিটাইজেশনের পর তা চালু হয়। কিন্তু সম্প্রতি দপ্তরের ডিরেক্টরেটের গাড়িচালকের কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়েছে। ফলে নতুন করে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে।

শুধু জেশপ বিল্ডিং নয়, শহরের সল্টলেকে পঞ্চায়েত ভবনের পাঁচ ও দশতলায় কর্মীদের করোনা ধরা পড়ার ফলে ওই দুটি তলায়ও অফিস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর।

পাশাপাশি এক সরকারি কর্মচারী সংক্রমিত হওয়ার খবরে বুধবার (১৫ জুলাই) উদ্বেগ ছড়ায় হুগলি জেলার শ্রীরামপুর পৌরভবনেও। আতঙ্কের জেরে এ দিন দুপুরেই নোটিশ জারি করে আগামী ২১ জুলাই পর্যন্ত পৌরভবন বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন ওই জেলার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারপারসন।

অপরদিকে, রাজ্যের ক্রেতাসুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পাণ্ডের পরিবারের একাধিক সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সংক্রমণে জেরে মৃত্যু হয়েছে তার শ্যালক শঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের। মন্ত্রীর স্ত্রীও করোনার কবলে পড়ায় সবাই এখন হোম কোয়ারেন্টিনে। এ দিন মন্ত্রী নিজেই এ খবর জানান। ফলে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কয়েকটি বিভাগ আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।

অবশ্য এর আগে রাজ্যের দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু আক্রান্ত হয়েছিলেন। পরে সুস্থ হয়ে বর্তমানে তিনি নিজের দপ্তর সামলাচ্ছেন।

বুধবার ফের কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে, করোনা উপসর্গ নিয়ে সেখানে ভর্তি হওয়া রোগীদের সঠিক চিকিৎসা না হওয়ার কারণে পরিবারের মধ্যে ক্ষোভ জন্ম নিচ্ছে।

এছাড়া জানা যাচ্ছে, করোনার সংক্রমণ দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পাওয়ায় রাজ্যে কোভিড-১৯ হসপিটালগুলোতে রোগীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। রাজ্যের নিরিখে পরিস্থিতি কিছুটা বেহাল হওয়ার কারণে অনেক করোনা রোগী ভর্তি হওয়ার জন্য হাসপাতাল পাচ্ছেন না। ফলে তারা নিজেদের হোম কোয়ারেন্টিনে রেখেছেন। এমন মত বিরোধীদেরও।

এ পরিস্থিতিতে বুধবার কলকাতা পৌরসভায় পর্যালোচনা বৈঠক করেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। মেয়র ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গে আলোচনা শেষে তিনি জানান, সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোর কোথায় কত বেড ফাঁকা, সেই তথ্য নিয়ে আলাদা পোর্টাল করা হবে। যাতে নির্দিষ্ট রোগী বুঝতে পারেন কোন হাসপাতালে কত বেড ফাঁকা রয়েছে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

ভারতে করোনায় বাড়ছে উদ্বেগ, ২০ হাজার আক্রান্ত প্রায় একদিনে

ভারতে দিন-দুয়েক করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ খানিকটা কম থাকার পর দৈনিক আক্রান্ত ফেরবিস্তারিত পড়ুন

রাশিয়ার সাথে যুদ্ধ বন্ধে চীনের সাহায্য চাইলেন জেলেনস্কি

রাশিয়ার সাথে যুদ্ধ বন্ধে চীনের সহযোগিতা চেয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। একইবিস্তারিত পড়ুন

৩ যুগ পর হারানো তালার একলিমার সন্ধান মিলল পাকিস্তানে

একলিমা বেগম (৬৫) সাতক্ষীরার তালা উপজেলার গঙ্গারামপুর গ্রামের মৃত ইসমাইল শেখের মেয়েবিস্তারিত পড়ুন

  • যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের একটি শপিংমলে এলোপাতাড়ি গুলি, নিহত ৪
  • শ্রীলঙ্কান সেনাবাহিনীকে ‘যা প্রয়োজন’ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
  • প্রধানমন্ত্রীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে নরেন্দ্র মোদীর বার্তা
  • লেখক ও ব্লগার অনন্ত হত্যায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ফয়সাল ভারতে গ্রেপ্তার
  • নুপুর শর্মার ‘শিরশ্ছেদের উস্কানি’ : আজমীর শরীফের খাদেম গ্রেপ্তার
  • ভারতের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিজেপির জোটের প্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মু
  • রাশিয়ার দখলে ইউক্রেনের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ শহর
  • একসঙ্গে দুই প্রেমিকাকে বিয়ে করলেন যুবক!
  • নতুন পদ্ধতিতে সেনাবাহিনীতে লোক নিয়োগ প্রক্রিয়া: ভারতে বিক্ষোভ, পুড়ছে ট্রেন
  • তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ‘প্রেমের প্রস্তাব’ দিয়ে শিক্ষক গণধোলাই খেলেন
  • মহানবী (সা.)কে নিয়ে কটুক্তি: ব্যাপক বিক্ষোভ ভারতের বিভিন্ন স্থানে
  • দিল্লিতে কার পার্কিং লটে ভয়াবহ আগুন