শুক্রবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২৩

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরা, দেশ ও বিশ্বের সকল সংবাদ, সবার আগে

টাকা পেলেই করোনা সার্টিফিকেট দেন ডা. শাহ আলম!

করোনা শনাক্তে নমুনা পরীক্ষায় ঢাকার জেকেজি ও রিজেন্ট হাসপাতালের অনিয়ম ও দুর্নীতি নিয়ে যখন তোলপাড় চলছে, তখন সিলেটে খোঁজ মিলেছে ভয়ানক এক চিকিৎসকের! যিনি নমুনা পরীক্ষা তো দূরের কথা, রোগী না দেখে টাকা পেলেই দিয়ে দেন ‘নন কভিড সার্টিফিকেট’।

তার টার্গেটে থাকেন বিদেশযাত্রীরা। প্রতি সার্টিফিকেটের জন্য নেন চার হাজার টাকা। তবে রিপোর্ট দেওয়ার ক্ষেত্রে তিনি খুবই কৌশলী। করোনা নেগেটিভ রিপোর্টের পরিবর্তে দেন ‘নন কভিড’ প্রত্যয়নপত্র। এ এইচ এম শাহ আলম নামের ওই চিকিৎসক নিজেকে ওসমানী হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার দাবি করলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে তিনি সেখানে কর্মরত নন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ডা. এ এইচ এম শাহ আলম নগরীর মধুশহীদ এলাকায় মেডিনোভা মেডিকেল সার্ভিসেস লিমিটেডের নিচতলায় চেম্বার করেন। বিদেশযাত্রীদের জন্য বিভিন্ন দেশ ও এয়ারলাইন্স করোনা নেগেটিভ সার্টিফেকেট বাধ্যতামূলক করার পর প্রবাসীদের টার্গেট করেন ডা. শাহ আলম। বিভিন্ন মাধ্যমে তিনি বিদেশযাত্রীদের কাছে খবর পৌঁছান ‘করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট’র ব্যবস্থা করে দেওয়ার। ‘করোনা নেগেটিভ’ সার্টিফিকেট দেওয়ার কথা বলে বিদেশযাত্রীদের কাছ থেকে তিনি চার হাজার টাকা করে আদায় করেন। ফ্লাইটের ৪৮ ঘণ্টা আগে তিনি ওই প্রবাসীকে ডেকে নিয়ে হাতে ধরিয়ে দেন প্রত্যয়নপত্র। রোগী বা যাত্রীকে না দেখেই নিজের প্যাডে দেওয়া ওই প্রত্যয়নপত্রে ডা. শাহ আলম লিখে দেন, তিনি ওই ব্যক্তিকে তার চেম্বারে দেখেছেন। তার মধ্যে কভিড-১৯ এর কোনো লক্ষণ নেই। এ ছাড়া প্রত্যয়নপত্রে উল্লেখ করেন, এই মুহূর্তে বাংলাদেশে উপসর্গহীনদের করোনা পরীক্ষার সুযোগ নেই। এদিকে সংশ্লিষ্ট ট্রাভেলস বা এয়ারলাইন্সের সঙ্গে যোগাযোগের পর বিদেশযাত্রীরা বুঝতে পারেন ভুয়া প্রত্যয়নপত্র দিয়ে ডা. শাহ আলম প্রতারণা করেছেন। কিন্তু ফ্লাইটের সময় ঘনিয়ে আসায় তারা ঝামেলায় না জড়িয়ে ঢাকায় গিয়ে প্রাইভেট হাসপাতালে নমুনা পরীক্ষা করিয়ে রিপোর্ট সংগ্রহ করে বিদেশ চলে যান।

নিজের পরিচয়ের ক্ষেত্রেও প্রতারণার আশ্রয় নেন ডা. শাহ আলম। তার প্রত্যয়নপত্রের নিচে নিজের পদবি লেখেন ‘মেডিকেল অফিসার, এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল’। কিন্তু ওসমানী হাসপাতালের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. আবুল কালাম আজাদ জানিয়েছেন, ডা. এ এইচ এম শাহ আলম ওসমানীতে কর্মরত নন।

এ ব্যাপারে ডা. শাহ আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি টাকার বিনিময়ে ‘নন কভিড প্রত্যয়নপত্র’ দেওয়ার কথা স্বীকার করেন। তিনি জানান, চার হাজার টাকা নয়, দুই হাজার টাকা করে নিয়ে তিনি দুজন যাত্রীকে প্রত্যয়নপত্র দিয়েছেন। এভাবে প্রত্যয়নপত্র দেওয়া সঠিক হয়নি স্বীকার করে তিনি অনুশোচনাও করেন। ভুয়া পদবি ব্যবহারের ব্যাপারে ডা. শাহ আলম জানান, তিনি বর্তমানে কোনো সরকারি হাসপাতালে কর্মরত নন। টাইপের সময় কম্পিউটার অপারেটর ভুলবশত তার নামের নিচে ওসমানী হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার লিখে ফেলেছে।

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. শিশির চক্রবর্তী জানিয়েছেন, নমুনা পরীক্ষা ছাড়া কভিড-১৯ এর কোনো ধরনের রিপোর্ট বা প্রত্যয়নপত্র দেওয়ার এখতিয়ার কারও নেই। এরকম কাজ কেউ করলে তা সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে করেছেন। সূত্র- বাংলাদেশ প্রতিদিন

একই রকম সংবাদ সমূহ

আগুনে পুড়ে ছাই নলতার মুক্তিযোদ্ধা ফার্নিচার

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা চৌমুহনী বাজারে আগুন লেগে ১টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়েবিস্তারিত পড়ুন

চট্টগ্রামে ইচ্ছা মানব উন্নয়ন সংস্থার আলোচনা সভা

চট্টগ্রামে ইচ্ছা মানব উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মান, জলবায়ু পরিবর্তন ওবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ায় সনাতনীদের বাড়িতে ও মন্দিরে সরস্বতী পুজা অনুষ্ঠিত

কলারোয়ায় সনাতনীদের বাড়িতে ও মন্দিরে চলছে সরস্বতী দেবীর পুজার প্রস্তুতি। ভক্ত ওবিস্তারিত পড়ুন

  • কালিগঞ্জে সরস্বতী পূজায় দু’টি মন্ডপে ৭ দিনব্যাপী আয়োজন
  • যশোরের শার্শায় ৭০টি স্বর্ণের বারসহ ২ পাচারকারী আটক
  • সৌদিতে নির্যাতনের শিকার রোজিনার দেশে ফেরার আকুতি
  • শার্শায় এই প্রথম লাঠি মরিচ চাষে স্মার্ট কৃষক রাজার সফল্য
  • বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশের অভিযানে পরোয়ানাভুক্ত ১০ আসামী আটক
  • মহান জাতীয় সংসদে এমপিদের পেনশন চালুর দাবী জানালেন বীর মুক্তিযোদ্ধা এমপি রবি
  • কলারোয়ার দক্ষিণ জয়নগরে একটি ল্যাম্পপোষ্টের অভাবে পুজামন্দিরটি অরক্ষিত
  • কলারোয়ায় ‘ভুয়া’ এনএসআই কর্মকর্তা আটক
  • কলারোয়ায় বাল্যবিবাহ, মাদক ও পাচার রোধে কর্মশালা
  • বেনাপোলে বিজিবি-বিএসএফ সীমান্ত সম্মেলন
  • কলারোয়ার সাইদুর নির্বাচন কমিশন বিটের সাংবাদিকদের সভাপতি নির্বাচিত, শুভেচ্ছা জ্ঞাপন
  • নড়াইলের প্রবীন সাংবাদিক প্রদ্যোৎ মুখার্জীর আউড়িয়া মহাশশ্মানে সৎকাজ সম্পন্ন
  • error: Content is protected !!